Tech

কিভাবে বেরোবেন হোয়াটসঅ্যাপ থেকে? সিগন্যাল অ্যাপ কতটা কাজে আসবে?

হোয়াটসঅ্যাপের খবরটি প্রকাশ্যে আসার পর থেকেই বেজায় ক্ষুব্ধ ইউজারদের একটা অংশ, তাদের একটা অংশ এর মধ্যেই সিগন্যাল অ্যাপ ডাউনলোড করে সেখানে অ্যাকাউন্ট খুলে ফেলেছেন

পৃথ কাঞ্জিলাল : প্রাইভেসি পলিসিতে পরিবর্তনের কারণে গত কয়েকদিন ধরে আলোচনায় রয়েছে মেসেঞ্জিং অ্যাপ হোয়াটসঅ্যাপ। অনেকেই চাইছেন ডিলিট করতে নতুন নিয়ম অনুযায়ী আগামী ৮ ফেব্রুয়ারির মধ্যে প্রাইভেসি পলিসির আপডেট এবং টার্মস অ্যান্ড কন্ডিশন মানতে হবে ইউজারদের, নাহলে ডিলিট হয়ে যেতে পারে অ্যাকাউন্ট। এই খবর প্রকাশ্যে আসার পর থেকেই বেজায় ক্ষুব্ধ ইউজারদের একটা অংশ। তবে সাবধান থাকার জন্যে জেনে নেওয়া ভালো কিকরে ডিলিট করবেন হোয়াটসঅ্যাপ অ্যাকাউন্ট –
১। প্রথমে আপনার ফোনে ফাইল ম্যানেজার লঞ্চ করুন অর্থাত্‍ খুলুন।

২। সেখান থেকে হোয়াটসঅ্যাপ ফোল্ডার খুঁজে তার উপর ট্যাপ করুন।

৩। হোয়াটসঅ্যাপের সাব-ফোল্ডারের একটা লম্বা তালিকা আপনার সামনে খুলে যাবে।

৪। এরপর ডেটাবেস ফাইল ট্যাপ করে অল্প সময় হোল্ড করুন। তাহলেই ডিলিট অপশন আসবে।

৫। এবার ডিলিট করে দিন সমস্ত ব্যাকআপ।

এই সমস্যার ফলে অনেকেই খোঁজ করছেন নতুন কোনো প্লাটফর্ম যার দ্বারা কাজ হবে এবং নতুন জেনারেশন ইতিমধ্যেই খুঁজে নিয়েছে সিগন্যাল অ্যাপ। কিন্তু দীর্ঘদিন হোয়াটসঅ্যাপ ব্যবহার করার ফলে অসংখ্য গ্রুপে সঙ্গে যুক্ত হয়েছিলেন ইউজাররা। সেই সমস্ত গ্রুপে সব বন্ধুদের ফের এক জায়গায় ফিরিয়ে আনার কাজ যতটা কঠিন বলে মনে হচ্ছে ঠিক ততটাও অসুবিধের নয়। মুশকিল আসানের উপায় রয়েছে। মানতে হবে কয়েকটি পদ্ধতি।

সিগন্যাল অ্যাপেও হোয়াটসঅ্যাপের গ্রুপ ফিরিয়ে আনার সহজ উপায় রয়েছে-

১। সিগন্যাল অ্যাপ ডাউনলোড করে সেখানে অ্যাকাউন্ট খোলার পাশাপাশি নতুন গ্রুপও তৈরি করতে হবে। অ্যাপ ডাউনলোড করে অ্যাকাউন্ট খোলার পর দেখা যাবে উপরে ডানদিকের কোণে একটি পেনসিল আইকন রয়েছে। সেখানে ক্লিক করে ‘নিউ গ্রুপ’ অপশন পাওয়া যাবে। সেই অপশনে সিলেক্ট করে ইউজার নতুন গ্রুপ তৈরি করতে পারবেন। যিনি গ্রুপ খুলছেন তিনি ছাড়া অন্তত আরও একজনকে অ্যাড করতে হবে।

২। – সিগন্যাল অ্যাপে নতুন গ্রুপ খোলা হয়ে গেলে গ্রুপ সেটিংসয়ে গিয়ে ওই গ্রুপের লিঙ্ক কপি করে রাখতে পারবেন ইউজাররা। ফোনের মধ্যেই ‘কপি টু ক্লিপবোর্ড’ অপশনের মাধ্যমে গ্রুপ লিঙ্ক কপি করে রেখে দেওয়া সম্ভব।

৩। বন্ধুদের গ্রুপ লিঙ্ক পাঠিয়ে দিন- গ্রুপ তৈরি হয়ে গেলে সেই গ্রুপে লিঙ্ক আপনার আপাতত হোয়াটসঅ্যাপে থাকা গ্রুপে শেয়ার করে দিন। এই লিঙ্ক পেয়ে গেলে অনায়াসেই আপনার বন্ধুবান্ধব এবং আত্মীয়-স্বজনরা সিগন্যাল অ্যাপের নতুন গ্রুপে জয়েন করতে পারবেন। এক ক্লিকেই হবে সমস্যার সমাধান।

কি মনে করছেন সাধারণ মানুষ সিগন্যাল নিয়ে? পেশায় শিক্ষক রাজর্ষি সরকার জানিয়েছেন “জিনিষটা খুব unique হলেও যন্ত্রের যন্ত্রনা থাকবেই। তবে ছাত্র ছাত্রীদের নোটস পাঠাতে হলে এখনো হোয়াটসঅ্যাপ ই ব্যবহার করছি। সিগন্যাল অ্যাপ টি শুধুমাত্র নামানো এ আছে।” অঙ্কুশ মুখার্জী পুরোটাই রয়েছেন সিগন্যাল এর বিরুদ্ধে, পেশায় ছাত্র অঙ্কুশ মনে করেন “অসুবিধা র সৃষ্টি হতেপারে এর ফলে এবং আমরা যে পরিষেবা পেয়ে এসেছি তার থেকেও ব্যাহত হতেপারি।” মুখ খুলেছেন আরো এক ছাত্র Birla Institute of Technology and Science, Pilan র শৌভিক চ্যাটার্জি, “পারমিশন বলতে খুব একটা কিছু চাইছে না এই মুহূর্তে শুধু ফোন নম্বর চাইছে সিগন্যাল এবং কোনো ইমেইল ভেরিফিকেশন ও হচ্ছেনা, এটি একটি সাধারণ মেসেজ অ্যাপ যাতে লোকাল ব্যাকআপ হয়ে যার ফলে ওদের সার্ভারে আমাদের মেসেজ থাকেনা। এখনো অনেক ইউসার দেড় জয়েন করা বাকি। বাকিরা জয়েন করলে হয়তো কিছু সুবিধা মিলতেপারে।” এখনো মিশ্র মতামত পোষণ করছেন অনেকেই সিগন্যাল অ্যাপ টিকে নিয়ে দেখার বিষয়ে এর ভবিষ্যৎ কি হতে চলেছে এবং সাধারণের কাছে কি উদাহরণ পেশ করবে অ্যাপটি।

Show More

Related Articles

Leave a Reply

Back to top button
%d bloggers like this: