Sports Opinion

হার্দিকের চোখে সফরের সেরা নাটরজন-ই

গতকাল ম্যচের পর নিজের ম্যান অফ দ্য ম্যাচের ট্রফি হার্দিক তুলে দেন তরুণভি যোদ্ধা নাটরজনের হাতে

পল্লবী কুন্ডু : ইন্ডিয়া বনাম অস্ট্রেলিয়া সিরিজে(India vs Australia series) কেউ কাউকে এক চুল জায়গা ছাড়ার নয়। প্রথম ওয়ান ডে তে অস্ট্রেলিয়া শিরোপার অধিকারী হলেও প্রথম দুটি ম্যাচের পর থেকে নিজেদের ছন্দে দেখা যায় বিরাট বাহিনী-কে। আর সেই ধারাকে বজায় রেখেই পরবর্তী টি টোয়েন্টি তে জয়ী ভারত। তবে ম্যাচ জেতার পাশাপাশি খেলার মাঠে একে অপরের প্রতি শ্রদ্ধা মুগ্ধ করেছে সকলকে। গতকাল ম্যচের পর নিজের ম্যান অফ দ্য ম্যাচের ট্রফি হার্দিক(Hardik Pandya) তুলে দেন তরুণ খেলোয়াড় নাটরজনে(T. Natarajan)র হাতে।

অবশ্য ক্রিকেট ময়দানে এমন দৃশ্য বিরল নয়। প্রথমবার ভারতীয় ক্রিকেটের ক্ষেত্রে এই নিদর্শন স্থাপন করেছিলেন বিশ্বকাপজয়ী ওপেনার গৌতম গম্ভীর। বিরাট কোহলির প্রথম একদিনের আন্তর্জাতিক ম্যাচে শতরানের পর তার হাতে নিজের ম্যান অফ দ্যা ম্যাচ ট্রফি তুলে দেন গৌতম। আর এবার ভারত অস্ট্রেলিয়া টি-টোয়েন্টি সিরিজ শেষে এমনই এক নিদর্শন রাখলেন হার্দিক পান্ডিয়া। এবারের টি-টোয়েন্টি সিরিজে অস্ট্রেলিয়ার বিরুদ্ধে দুরন্ত ফর্মের নজির রেখেছেন তিনি। বিশেষত গত ম্যাচে তার দুরন্ত ব্যাটের জেরেই প্রায় অসম্ভব পরিস্থিতি থেকে ঘুরে দাঁড়ায় টিম ইন্ডিয়া। সাথে সাথেই সিরিজও আসে ভারতের অধীনেই। গতকালকের শেষ ম্যাচেও হার্দিক যতক্ষণ ছিলেন ভারতীয় সমর্থকদের আশা ছিল হয়তোবা আবার কিছু মিরাক্কেল করবেন তিনি।

যদিও শেষ পর্যন্ত তা আর সম্ভব হয়ে ওঠেনি। জ্যাম্পার বলে বড় শট নিতে গিয়ে শেষপর্যন্ত প্যাভিলিয়নে ফিরে যেতে হয় তাকে। তবে ম্যাচ শেষে এদিনের সেরা কে ? তা ঠিক করতে খুব একটা সমস্যা হয়নি বিশ্লেষকদের। সহজেই সেই পুরস্কার জিতে নিয়েছেন হার্দিক। কিন্তু নিজে পুরস্কার জিতলেও তার চোখে ম্যান অফ দ্য সিরিজ অন্য কেউ। নিজেই নটরাজনের হাতে পুরস্কার তুলে দিয়ে তিনি বলেন,” এই ট্রফি তোমারই প্রাপ্য, তুমিই আমার চোখে এই সফরের ম্যান অব দ্যা সিরিজ।”

অস্ট্রেলিয়ার দুরন্ত ব্যাটিংয়ের সামনে যখন চাহাল, শার্দুল, চাহারদের মতো বোলাররা রান রুখতে ব্যর্থ হয়েছেন তখন দলের সামনে ঢাল হয়ে দাঁড়িয়েছেন নটরাজন। শুধু তাই নয় দলের হয়ে ডেথ ওভারে বোলিং করার দায়িত্বও নিয়েছেন তিনি। দলে চাহার, শার্দুলদের মত অভিজ্ঞ বোলার থাকা সত্ত্বেও, যখন এক তরুণ বাঁহাতি নিজে থেকে দায়িত্ব অর্জন করে নেন আঠারোতম এবং কুড়ি তম ওভার বোলিং করার জন্য তখন বুঝতে হবে কতটা পরিণত মস্তিষ্ক তার। আর সেই কারণেই এই দুরন্ত অভিষেকের পর তার হাতে পুরস্কার তুলে দিলেন ভারতের অন্যতম খ্যাতনামা অলরাউন্ডার হার্দিক পান্ডিয়া।

Show More

Related Articles

Leave a Reply

Back to top button
%d bloggers like this: