West Bengal

এই সরকার কখনও সৌমিত্রবাবুকে সম্মান দেয়নি, আর এখন তাঁর মৃতদেহকে নিয়ে নাটক করল : তোপ অধীরের

রাজ্য সরকারকে নিশানা করে একের পর এক বিস্ফোরক অভিযোগ তোলেন অধীর রঞ্জন

দেবশ্রী কয়াল : দীপাবলির আলোর রোশনাইয়ের মাঝে সবকিছুকে অন্ধকার করে প্রয়াত হয়েছেন কিংবদন্তি সৌমিত্র চট্টোপাধ্যায় (Soumitra Chatterjee)। তাঁর মৃত্যুতে শোকাহত সবাই। তবে তাঁর মৃত্যুর শোক পালন হওয়ার আগেই রাজনৈতিক মহলে তাঁর অস্ত্বিত্বকে নিয়ে শুরু হয়েছে টানাটানি। তিনি কোন দলের ছিলেন, কাণ্ডের সমর্থক ছিলেন এই নিয়ে হয় বহু ঘটনা। এদিকে আজ সকালে প্রয়াত অভিনেতা সৌমিত্র চট্টোপাধ্যায়ের বাড়িতে যান কংগ্রেস নেতা অধীর চৌধুরী (Adhir Ranjan Chowdhury)। সেখানে তিনি সৌমিত্র চট্টোপাধ্যায় এর কন্যা পৌলোমী বসুর সাথে কথা বলেন। শ্রদ্ধার্ঘ্য জানান প্রয়াত অভিনেতাকে। আর তারপরেই তিনি তোপ দাগেন রাজ্য সরকারের (State Government) বিরুদ্ধে। ক্ষুব্ধ অধীর জানান, সৌমিত্র বাবুর মৃতদেহ নিয়ে রাজনীতি করা হয়েছে।

অথচ এই সরকারই বাংলায় ক্ষমতায় আসার পর থেকে বিভিন্ন পদ থেকে সৌমিত্র বাবুকে সরিয়েছিল। আর এখন তাঁর মৃত্যুর পর তাঁর মরদেহ নিয়ে রাজনীতি হয়ে গেল। দুই হাজার কুড়ি সাল পর্যন্ত অনেক ছোটখাটো মাঝারি, এপাড়া, শিল্পীদের সম্মান দেওয়া হয়েছে। কিন্তু সৌমিত্র চট্টোপাধ্যায় যিনি একজন আন্তর্জাতিক খ্যাতিসম্পন্ন অভিনেতা এবং শিল্পী, তাকে কখনো এই সরকার ছোটখাটো মাঝারি সম্মান দেওয়ার পর্যন্ত প্রয়োজন বোধ মনে করেনি।

গত রবিবার দীর্ঘ ৪০ দিনের লড়াই শেষ করে সৌমিত্র চট্টোপাধ্যায় প্রয়াত হন। সেদিনই শোভাযাত্রা করে মরদেহ শ্মশানে নিয়ে যাওয়ার সময় বাম কংগ্রেস তৃণমূল সব রাজনৈতিক দলের নেতারাই সামিল হয়েছিলেন। গান স্যালুটে পূর্ণ রাষ্ট্রীয় মর্যাদায় বিদায় দেওয়া হয় অভিনেতা কে। রাজনীতির রং ভুলে সেদিন শোভাযাত্রায় সামিল হয়েছিলেন বাম কংগ্রেস তৃণমূল সব রাজনৈতিক দলের নেতারা। কিন্তু তারপর থেকেই উঠে আসে একের পর এক অভিযোগ। আর আজ রাজ্য সরকারের বিরুদ্ধে সোজাসুজি তোপ দাগেন প্রদেশ কংগ্রেস সভাপতি অধীর রঞ্জন চৌধুরী।

Show More

Related Articles

Leave a Reply

Back to top button
%d bloggers like this: