Weather

আবারও বঙ্গে ঠোকা দিল শীত, নামতে শুরু করেছে পারদ

উত্তুরে হাওয়া দিচ্ছে কামড়, শীতের আমেজে মজেছেন বঙ্গবাসী

দেবশ্রী কয়াল : পৌষেই উধাও হয়েছিল বঙ্গ থেকে শীতের (Winter) আমেজ। বঙ্গবাসী ভেবেই নিয়েছিল আর হয়ত ধরা দেবে না ঠান্ডা। এমনিতেই শীত এই বছর দেরি করে বঙ্গে এসেছিল, তাই আশা করা হয়েছিল যে হয়ত বেশ দীর্ঘ সময় এবং কনকনে ঠান্ডা পড়বে। কিন্তু সেই আশাতে পূর্বেই পড়েছে জল। আর যেহেতু শীত উধাও হয়েছে তাতে আক্ষেপও বেড়েছে বঙ্গবাসীর। তবে সংক্রান্তির দিনের সাথে সাথেই আবার বঙ্গে ফিরেছে শীত। পৌষ পেরিয়ে আজ মাঘ মাসের প্রথমে আবার নেমেছে পারদের মান। আবার উত্তুরে হাওয়া কামড় বসাতে চলেছে। রীতিমত শৈত্যপ্রবাহের সতর্কতা জারি হয়েছে দক্ষিণবঙ্গের একাধিক জেলায়।

আজ, শুক্রবার সকালে আলিপুর আবহাওয়া দফতরের (Alipore Meterogical Department) তরফে জানানো হয়েছে, আগামী দু’দিন পুরুলিয়া, বাঁকুড়া, বীরভূম, পশ্চিম বর্ধমান ও মুর্শিদাবাদে শৈত্যপ্রবাহ অনুভব করা যাবে। কলকাতার সর্বনিম্ন তাপমাত্রা ১৫ ডিগ্রির কাছাকাছি থাকতে পারে। জেলার ক্ষেত্রে তা অন্তত ১০ ডিগ্রি থাকবে বলেই জানানো হয়েছে। আজ শুক্রবার কলকাতায় তাপমাত্রা ১৪.৫ ডিগ্রি সেলসিয়াস। গতকালের থেকে প্রায় ২ ডিগ্রি পারদ কমেছে আজ। এবং রাতের দিকে তাপমাতরা আরও কমার পূর্বাভাস দিচ্ছে হাওয়া অফিস। জানা যাচ্ছে উত্তর-পশ্চিমে শীতল হওয়ার দাপটে পারদ আরও নীচে নামতে পারে বঙ্গে। আগামীকাল, শনিবার তাপমাত্রা থাকতে পারে ১৩ ডিগ্রি সেলসিয়াসের আশপাশে।

ডিসেম্বরের শেষে জাঁকিয়ে পড়েছিল ঠান্ডা, কিন্তু নতুন বছরের সাথে সাথেই শীতের আমেজ উধাও হয়ে উষ্ণতা বাড়তে শুরু করে। এই সপ্তাহের সোমবারও কলকাতার সর্বনিম্ন তাপমাত্রা ছিল ২১ ডিগ্রি সেলসিয়াস, যে স্বাভাবিকের তুলনায় অনেকটাই বেশি। বেলার দিকে রোদ উঠলে রীতিমতো গরম পড়ে যাচ্ছিল রোজই। কিন্তু তার দু’দিনের আবারও ফিরল শীত। ভোরের দিকে তো বেশ ঠান্ডা পড়ছে, বেলা বাড়লেও রোদ-গরমের দেখা নেই তেমন। পৌষ সংক্রান্তির এই উৎসবে নতুন করে ঠান্ডা পড়াতে আবারও তার আমেজে মজেছে বাঙালি।

Show More

Related Articles

Leave a Reply

Back to top button
%d bloggers like this: