West Bengal

দুর্নীতিতে ভরা, মিলছে না কয়েক কোটির হিসাব, এফআইআর দায়ের হল অর্জুন সিংয়ের বিরুদ্ধে

অভিযোগ অনেক, কিন্তু একটাও মানতে নারাজ বিজেপি সাংসদ

দেবশ্রী কয়াল : আরও একবার আইনি বিপাকে জড়ালেন উত্তর ২৪ পরগনার বারাকপুরের বিজেপি সাংসদ অর্জুন সিং। তাঁর বিরুদ্ধে অভিযোগ ওঠে, ভাটপাড়া পুরসভার পুরপ্রধান থাকাকালীন নিজের আত্মীয়দের সংস্থাকে কাজ পাইয়ে দিয়েছেন তিনি। কেবল তাই না তার পাশাপাশি চার কোটিরও বেশি টাকার গরমিল করেছেন তিনি। অর্জুন সিংয়ের বিরুদ্ধে ভাটপাড়া থানায় এ বিষয়ে অভিযোগও দায়ের করেছেন পুরসভার প্রশাসক অরুণ বন্দ্যোপাধ্যায়। যদিও নিজের বিরুদ্ধে ওঠা এই অভিযোগকে সম্পূর্ণ অস্বীকার করেছেন বিজেপি সাংসদ, অর্জুন সিং।

২০১০ থেকে ২০১৯ সাল পর্যন্ত তৃণমূল পরিচালিত ভাটপাড়া পুরসভার পুরপ্রধান ছিলেন অর্জুন সিং। অভিযোগ ওঠে, সেই সময় কিছু কাজের জন্য দু’টি সংস্থাকে কাজ পাইয়ে দেন তিনি। এবং সেই কাজ করার জন্য ২০১৭ সালে ওই সংস্থাকে পুরসভার তহবিল থেকে ৪ কোটি ৫২ লক্ষ ২০ হাজার টাকাও দেওয়া হয়। আর তার থেকেই ৩ কোটি ৩০ লক্ষ ১৪ হাজার টাকার হিসাব মেলেনি বলেই ওঠে অভিযোগ।

এছাড়াও অভিযোগ উঠছে, ইনফ্রা কনটিনেন্টাল ইঞ্জিনিয়ারিং নামে ওই সংস্থাটি আসলে নাকি অর্জুন সিংয়ের আত্মীয়দের। টাকা নিয়েও তারা কোনও কাজ করেনি বলে অভিযোগ। আর এই বিষয়ে মঙ্গলবার অর্জুন সিংয়ের বিরুদ্ধে ভাটপাড়া থানায় অভিযোগও দায়ের করেছেন পুরসভার প্রশাসক অরুণ বন্দ্যোপাধ্যায়।

এদিন ভাটপাড়ার তৃণমূলের আহ্বায়ক সোমনাথ শ্যাম বলেন, ‘এতদিন অডিট চলছিল। আর সেই অডিট থেকে একের পর এক দুর্নীতি ধরা পড়ছে। কো-অপারেটিভ ব্যাংকে প্রায় ২৫ কোটি টাকার দুর্নীতি রয়েছে। পুরসভায় খুব কম হলেও ১০০ কোটি টাকার দুর্নীতি রয়েছে।’ তবে বিজেপি সাংসদ অর্জুন সিং এই অভিযোগ উড়িয়ে দিয়েছেন। তাঁর দাবি, ‘এ অনেক আগেকার কথা। আমি এখন সাংসদ হয়ে গিয়েছি। পুরসভায় অনেক তছরূপ ছিল। মানুষ তার জবাব দিয়ে দিয়েছে।’

Tags
Show More

Related Articles

Back to top button
Close
Close
%d bloggers like this: