Nation

আত্মহননের চেষ্টা রাজীব গান্ধী হত্যায় সাজাপ্রাপ্ত আসামী নলিনী শ্রীহরণের, কি করছিলেন জেল কতৃপক্ষ ?

সোমবার রাতেই কারাগারের মধ্যে আত্মহত্যার চেষ্টা করেন নলিনী শ্রীহরণ।

পল্লবী কুন্ডু : রাজীব গান্ধী হত্যায় সাজাপ্রাপ্ত আসামী নলিনী শ্রীহরণের আত্মহননের চেষ্টা।চাঞ্চল্য ছড়িয়েছে ভেলোর জেল এলাকা জুড়ে।গতকাল অর্থাৎ সোমবার রাতেই কারাগারের মধ্যে আত্মহত্যার চেষ্টা করেন নলিনী শ্রীহরণ। তিনি যে আত্মঘাতী হওয়ার চেষ্টা করছেন তা প্রথম টের পান পাশের কুঠুরির বন্দিই। তৎক্ষণাৎ বিপদ এড়াতে তড়িঘড়ি সেই বন্দিই জেল কর্তৃপক্ষকে বিষয়টি জানায়।এরপরেই জেল কর্তৃপক্ষ বিষয়টি জানতে এলে আত্মহননের হুমকি দেয় নলিনী শ্রীহরণ।

পরে এই গোটা বিষয় সংবাদমাধ্যমের কাছে আসলেও জেল কর্তৃপক্ষের দাবি, সমস্যা আপাতত মিটেছে। পরে শ্রীহরণের আইনজীবী পি পুগাঝেন্ডি জানান, তাঁর মক্কেল গলায় কাপড় পেঁচিয়ে আত্মহননের চেষ্টা করেছে।ওই আইনজীবীর দাবি, পাশের কক্ষেই যে আসামী রয়েছে তাকে নিয়েই সমস্যার জেরে জেলরের সামনেই আত্মহননের চেষ্টা করেছে নলিনী শ্রীহরণ।

চেন্নাইয়ের শ্রীপেরুবুদুর এলাকায় রাজনৈতিক প্রচারে এসে মানব বোমায় নিহত হন প্রাক্তন প্রধানমন্ত্রী রাজীব গান্ধী।নলিনী ছাড়াও রাজীব গান্ধী হত্যার ষড়যন্ত্রে জড়িত ছিলেন তার স্বামী-সহ ৬ জন এখন কারাগারে সাজা খাটছে। স্পেশ্যাল টাডা আদালতের রায়ে তাদের শাস্তি নির্ধারণ হয়েছে। নলিনী শ্রীহরণ ভারতের একমাত্র মহিলা যাবজ্জীবন দণ্ডপ্রাপ্ত আসামী যে ১৯৯১ সাল থেকে জেলবন্দি রয়েছে। এই মুহূর্তে নলিনী শ্রীহরণ ভেলোরে বিশেষ করে যা মহিলাদের জন্য নির্মিত সেই জেলেই যাবজ্জীবন সাজা খাটছেন। এবং ইতিমধ্যেই তার সাজাপ্রাপ্ত জীবনের ২৯ তা বছর ওই অন্ধকার কুঠুরিতেই কেটে গেছে।

কিন্তু যে প্রশ্নটি উঠছে তা হলো, যে আসামীর সারাজীবনের দায়িত্ব জেল কতৃপক্ষ নিয়েছে সে কিভাবে এই আত্মহননের পথে হাটতে পারে ? আজ যদি পাশের কক্ষের ওই আসামী জেল কতৃপক্ষ কে না জানাতো বা সে যদি কোনোরকম টের না পেতো তাহলেতো মৃত্যু হলো নলিনী শ্রীহরণের। তাহলে তখন কি জবাব দিত জেল কতৃপক্ষ ? তবে এটি কি কোনোভাবে কতৃপক্ষের অসচতেনতারই পরিচয় দিচ্ছে ?

Tags
Show More

Related Articles

Back to top button
Close
Close
%d bloggers like this: