Nation

ইউটিউবারের পাল্টা জবাব : মানহানির মামলা বাবা কে ধাবার বিরুধ্যে

আর্থিক প্রতারণার দায়ে খারিজ করে প্রমান পেশ ইউটিউবারের, মানহানির মামলা বাবা র বিরুদ্ধে

পৃথা কাঞ্জিলাল : ভাইরাল ভিডিও এর দৌলতে রাতারাতি ভাগ্য ফিরে যাওয়া “বাবা কা ধাবা”(Baba Ka Dhaba) র মালিক কান্তা প্রসাদ ইউটিবার গৌরব ওয়াসানের(Gaurav Wasan) বিরুদ্ধে থানায় প্রায় ২০ লক্ষ টাকার আর্থিক প্রতারণার অভিযোগ দায়ের করেছিলেন। এবার পালটা মানহানির অভিযোগ করলেন ঐ ইউটিবার। সোশ্যাল মিডিয়ার মাধ্যমে ভাইরাল ভিডিও এর দৌলতে রাতারাতি বদলে গিয়েছিল গরীব দম্পতির দিল্লির মালব্য নগরে একটি ছোট ধাবা চালাতেন বৃদ্ধ দম্পতি। সামাজিক মাধ্যমের জন্য একটি ভিডিও করতে সেখানে উপস্থিত হয়েছিলেন এক ইউটিবার। সেখানে জানা যায় তার জীবনের গল্প এবং কান্নায় ভেঙে পড়েন বৃদ্ধ। সাহায্যের জন্য ভিডিও করেন ওই ইউটিউবার। ২৪ ঘন্টার মধ্যে সেই ভিডিওটি এতটাই ভাইরাল হয়ে যায় যে লোকেরা নিজেই তাদের সহায়তা করতে পৌঁছে যায়। আম আদমি পার্টির বিধায়ক সোমনাথ ভারতীও সহায়তার জন্য এগিয়ে আসেন।

ভিডিওটি বসুন্ধরা নামের এক টুইটার ব্যবহারকারী শেয়ার করেন। পোস্ট হতেই তুমুল ভাইরাল হয়েছে সেই ভিডিও। বৃদ্ধ দম্পতির মুখে হাসি ফিরিয়ে দেবার জন্য ঝাঁপিয়ে পড়েন অনেকেই। পরদিনই ঐ দোকানের সামনে উপচে পড়ে ভিড় , বিভিন্ন এলাকা থেকে আসেন এই দোকানের সাফল্যের ভাগ নিতে, যে দোকানে একেবারেই বিক্রি ছিল না রাতারাতি বিক্রি বেড়ে হাসি ফুটে ওঠে বৃদ্ধ দম্পতির মুখে। কিন্তু এবার ঐ ইউটিউবারের বিরুদ্ধেই থানায় অভিযোগ জানালেন বৃদ্ধ দোকানী। তার অভিযোগ যে ঐ ইউটিবার তার সাহায্যের জন্য যে টাকা এসেছে তা আত্মসাত্‍ করেছে। পাশাপাশি এখন তার দোকানে খরিদ্দারও আসে না। যারা আসেন তারাও শুধু সেলফি তোলার জন্য।

আর এই অভিযোগের পরিপ্রেক্ষিতে দাবি খারিজ করে ইউটিউবার জানিয়েছেন, ‘আমি যখন ভিডিওটি শ্যুট করেছি তখন আমি জানতাম না যে এটি এত বড় হয়ে উঠবে। আমি চাইনি যে লোকেরা বাবাকে হয়রানি করবে, তাই আমি আমার ব্যাঙ্কের বিবরণগুলি ভাগ করে নিই।’

পাশাপাশি এই ইউটিউবারের বিরুদ্ধে বাবা কে ধাবার জন্য আসা ২০ থেকে ২৫ লাখ নয়ছয়ের অভিযোগ করেছেন অন্য ইউটিউবাররা। তাদের বিরুদ্ধে তিনি আইনি পদক্ষেপ নেবেন বলেও জানিয়েছিলেন। তারপরেই তিনি ঐ বৃদ্ধের বিরুদ্ধে মানহানির অভিযোগ করেন। সবার সামনে আপোষ করেননি তিনি নিজের ব্যাঙ্কের ডিটেলস দেখতে এবং এও জানিয়েছেন তিনি নিজে গিয়েছিলেন ব্যাঙ্কে কান্তা জমা দিতে এবং ব্যংকের তরফে জানানো হয়ে ওনার একাউন্ট সিজ হয়েগেছে। ওয়াসান র বক্তব্য ” একাউন্ট এ এতো পরিমান লেনদেন র হিসেবে দেখে আমি ভিডিও করে বারণ সাধারণ দের উদ্যেশে আর টাকা না পাঠাতে, বাবা নিজেও বলেন আমার আর সাহায্য লাগবেনা; উনি নিজে এ চাইছেন না সাহায্য তাহলে আমি ওনার টাকা নয়ছয় কি করে করবো?” যদিও ঐ বৃদ্ধ জানিয়েছেন, তার অভিযোগ ভুল প্রমানিত হলে তিনি ক্ষমা চাইবেন।

Show More

Related Articles

Leave a Reply

Back to top button
%d bloggers like this: