Industry & Tread

বিপিসিএল ইউনিয়ন কর্মীদের হাতে নোটিশ ধরাল কর্তৃপক্ষ, কারন ধর্মঘট !

আইনি নিয়ম মেনেই হয়েছিল ধর্মঘট, কিন্তু তা বেআইনি বলল কর্তৃপক্ষ

দেবশ্রী কয়াল : অনেক সরকারি কেন্দ্রকেই করে দেওয়া হচ্ছে বেসরকারীকরণ। আর তাতে আওয়াজ তুলেছেন বহু মানুষ, বহু রাজনৈতিক সংগঠন গুলি। আর এই বেসরকারিকরণের বিরোধিতা করে সোম এবং মঙ্গলবার দুদিন ধরে ধর্মঘট পালন করেছেন পূর্বাঞ্চলের শ্রমিক এবং কর্মচারিরা। তবে সেই ধর্মঘটের পরিপ্রেক্ষিতেই কর্মীদের কাছে নোটিশ পাঠিয়েছে কর্তৃপক্ষ।

এই নোটিশ পাঠানোর পিছনে কারণ দেখিয়ে কর্তৃপক্ষ অভিযোগ জানায় এই দুদিনের ধর্মঘট ছিল বেআইনি। তাই শাস্তি মূলক ব্যবস্থা নিতে ১০ দিনের বেতন কাটা হতে পারে কর্মীদের। ইতিমধ্যেই কর্মীদের সাত দিনের শোকজ নোটিশ দেওয়া হয়েছে। যদি সন্তোষজনক জবাব না পাওয়া যায় তখন ধর্মঘটীরা শাস্তির মুখে পড়তে পারেন বলে জানানো হয়েছে কর্তৃপক্ষের তরফে।

এদিকে ধর্মঘটী ইউনিয়নের বক্তব্য, লাভজনক রাষ্ট্রায়ত্ত তেল সংস্থাকে বাঁচানোর উদ্দেশ্যে শ্রমিক ও কর্মীরা এই ধর্মঘট ডেকে ছিল। এবং শিল্প বিরোধ আইন মেনে ধর্মঘটের ১৪ দিন আগে নোটিশও দেওয়া হয়েছিল কর্তৃপক্ষকে। এছাড়া কেন্দ্রীয় লেবার কমিশনের কাছেও এই ধর্মঘটের ব্যাপারে চিঠি দেওয়া হয়েছিল যাতে ধর্মঘটীদের সঙ্গে তাঁরা আলোচনায় বসেন। এবং তার প্রেক্ষিতেই আঞ্চলিক লেবার কমিশনার ইউনিয়নের প্রতিনিধিদের সঙ্গে বৈঠকেও হয়েছিল গত ২৫ আগস্ট এবং ৪ সেপ্টেম্বর। তাছাড়া পরবর্তী ‌ আলোচনার দিনও স্থির হয়েছিল ২৫ সেপ্টেম্বর।

যদিও বিপিসিএল বেসরকারিকরণের বিরোধিতা করে এর আগেও ধর্মঘট ডেকে ছিল। ২০১৯ সালের ২৮শে নভেম্বর একদিনের ধর্মঘট হয়েছিল। তার পরে ২০২০ সালের ৮ই জানুয়ারি দেশজুড়ে সাধারন ধর্মঘটের দিনেও এই সংস্থার কর্মী ও শ্রমিকরা অংশ নিয়েছিল। তবে এবারে ধর্মঘট পালন করাতেই এমন নোটিশ ধরিয়েছে কর্তৃপক্ষ।

Show More

Related Articles

Leave a Reply

Back to top button
%d bloggers like this: