West Bengal

মাঝ নদীতে পুড়ে ছাই বোর্ট, অল্পের জন্য রক্ষা পেলেন যাত্রীরা

পুড়ে গেল পর্যটকদের বোর্ট, ঘন্টাখানেক চেষ্টার পর আগুন আসে নিয়ন্ত্রণে

দেবশ্রী কয়াল : বিপদ কখনও বলে আসে না। মাঝরাতে নদীর উপর পুড়ে গেল একটি বোট। ভাগ্যচক্রে অল্পের জন্যে রক্ষা পেয়ে গেলেন,সুন্দরবনে বেড়াতে আসা একদল পর্যটক। ঘটনাটি ঘটেছে গতকাল রবিবার রাতে, উপকূল় থানার সাতজেলিয়ার দয়াপুর এলাকায়। জানা যাচ্ছে, গত শনিবার ‘এমবি মা চণ্ডী’ নামে একটি বোটে ২৫ জনের পর্যটক দল সুন্দরবন ভ্রমণের জন্য গদখালি জেটিঘাট থেকে রওনা দেয়। তিনদিনের সুন্দরবন ট্যুর ছিল তাদের। সুন্দরবনের জলপথে বিভিন্ন এলাকা ঘুরে বোটটি রবিবার রাতে দয়াপুর ঘাটে নোঙর করে। রাত্রিবাসের জন্য বোট থেকে পর্যটকরা নেমে স্থানীয় একটি হোটেলে গিয়ে ওঠেন। সেই সময় বোটের মধ্যে কোনো পর্যটক ছিলেন না। আর তখনই ঘটে অঘটন।

আর সেই গভীর রাতেই অন্য নৌকায় থাকা বেশ কয়েকজন মত্‍স্যজীবী দেখতে পান ‘এমবি মা চণ্ডী’ বোটে দাউ দাউ করে জ্বলছে আগুন (Fire)। তখনই তারা চিৎকার শুরু করেন। চিত্‍কার চেঁচামেচির শব্দে ছুটে আসেন স্থানীয় গ্রামের মানুষজন। তারা নদীর জল দিয়ে আগুন নিয়ন্ত্রণে আনার চেষ্টা করেন। প্রায় ঘণ্টাখানেকের চেষ্টায় আগুন নিয়ন্ত্রণে আসে। কিন্তু ততক্ষণে অবশ্য বোটটি আগুনে ভস্মীভূত হয়ে যায়। তবে কোনো যাত্রী না থাকায় এক বড় ধরনের দুর্ঘটনা থেকে বাঁচা গেছে।

স্থানীয় বাসিন্দাদের দাবি, সুন্দরবন ভ্রমণে আসা কলকাতার পর্যটক দলটি রাতে বোটের মধ্যে না থাকার জেরে বড় ধরনের দুর্ঘটনা থেকে রক্ষা পেয়েছে। না হলে বড়সড় দুর্ঘটনা ঘটে যেত। এরপর ঘটনার খবর পাওয়া মাত্র ঘটনাস্থলে পৌঁছায়, সুন্দরবন উপকূল থানার পুলিশ। প্রাথমিক তদন্তের পর জানা যাচ্ছে, বোটের ইঞ্জিন থেকেই ওই বোটের মধ্যে আগুন লাগে। বোটের মধ্যে থাকা রান্নার গ্যাস সিলিন্ডার ফেটে এরপর আগুন আরও দ্রুত ছড়িয়ে পড়ে।

Show More

Related Articles

Leave a Reply

Back to top button
%d bloggers like this: