West Bengal

অতিমারীতে অসহায় মানুষের পাশে দক্ষিণ 24 পরগনা জেলা তৃণমূল ছাত্র পরিষদ

এই সময়ে মানুষকে করতে হবে সাহায্য, করে যেতে হবে তাঁদের জন্য কাজ

দেবশ্রী কয়াল : করোনা পরিস্থিতিতে আজ বহু মানুষ হয়ে আছেন অসহায়। লকডাউনে অনেকের গেছে কাজ, বাড়িতে টাকা নেই, ঠিক মতো দুবেলা জুটছে না খাবার। সংসার চালাতে গিয়ে মাথায় পড়ছে হাত। তাই তাদের সাহায্য করা, তারা যাতে অনাহারে না দিন কাটায় তাদের জন্য সাহায্যের হাত বাড়িয়ে দিল তৃণমূল ছাত্র পরিষদ কর্মীরা।

গতকাল ২২শে জুলাই, দক্ষিণ 24 পরগনা জেলা তৃণমূল ছাত্র পরিষদ পরিবারের উদ্যোগে, রাজপুর সোনারপুর 26 নম্বর ওয়ার্ডের পৌরমাতা টুম্পা দাসের সহযোগিতায়, জেলা সম্পাদক বিপ্লব শীলের ব্যবস্থাপনায় ও সহায়তায় করোনার মতো কঠিন পরিস্থিতিতেও সকল সামাজিক বিধি নিয়ম মেনে রাজপুর সোনারপুর পৌরসভার 26 নম্বর ওয়ার্ডে কালীতলায় 70 টি পরিবারের হাতে খাদ্যসামগ্রী তুলে দিল জেলা তৃণমূল ছাত্র পরিষদের কর্মীরা। এদিন এই ৭০টি পরিবারের হাতে তাঁরা, চাল, ডাল, সয়াবিন তুলে দিয়েছেন। তাঁরা জানিয়েছেন আগামী দিনেও তাঁরা নিজেদের সাধ্যমত মানুষের হাতে খাবার তুলে দেবেন । তাঁরা জানিয়েছেন এই ভাবেই আগামী দিনে মানুষের পাশে দাঁড়াতে চান তাঁরা, মানুষের জন্য কাজ করতে চান তাঁরা।

এদিন এই অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন দক্ষিণ 24 পরগনা জেলা তৃণমূল ছাত্র পরিষদের সহ সভাপতি শুভ্রজিৎ মিত্র, জেলা সম্পাদক বিপ্লব শীল, দক্ষিণ 24 পরগনা জেলা তৃণমূল যুব কংগ্রেসের সদস্য অরিজিৎ রায়চৌধুরী, রাজপুর টাউন তৃণমূল ছাত্র পরিষদের সহ সভাপতি প্রতীক সরকার সহ অন্যান্য তৃণমূল ছাত্র পরিষদ কর্মীরা।

এদিন অনুষ্ঠানে, জেলা সম্পাদক বিপ্লব শীল বলেন, ” আমরা জেলা তৃণমূল ছাত্র পরিষদ সাধারণ মানুষের পাশে দাঁড়িয়ে এক অসাধারণ অভিজ্ঞতার সম্মুখীন হয়েছি. তাতে মনে হয় এই দুঃসময়ে, অতিমারীর সময় আমাদের মানুষের পাশে থাকা একান্ত জরুরি এবং আগামী দিনেও আমরা মানুষের পাশে দাঁড়াবো। ”

এরপর, জেলা তৃণমূল ছাত্র পরিষদের সহ সভাপতি শুভ্রজিৎ মিত্র বলেন, ” সকলের তরে সকলে আমরা প্রত্যেকে আমরা পরের তরে। ” মানুষের পাশে দাঁড়ানোই আমাদের কাজ। তাই আমাদের মাননীয়া মুখ্যমন্ত্রী মমতা ব্যানার্জী ও আমাদের রাজনৈতিক অভিভাবক মাননীয় সাংসদ অভিষেক ব্যানার্জীর আদর্শে অনুপ্রাণিত আমরা দক্ষিণ 24 পরগনা জেলা তৃণমূল ছাত্র পরিষদ পরিবার রাজপুর সোনারপুর পৌরসভার 26 নম্বর ওয়ার্ডে কালীতলায় ক্ষুদ্র সামর্থ্য অনুযায়ী 70 টি পরিবারের হাতে খাদ্যসামগ্রী তুলে দিতে পেরে খুবই খুশি হলাম। ভবিষ্যতেও তা করবো বলে আশা রাখছি। গত 21 শে জুলাই আমাদের জননেত্রী আমাদের ছাত্র সমাজকে আহ্বান জানিয়েছেন ছাত্র সমাজকে রাজনীতির মঞ্চে আরো বেশি করে এগিয়ে আসার জন্য, আর সেই আহ্বানকে মান্যতা দিয়ে জেলা তৃণমূল ছাত্র পরিষদের এই ক্ষুদ্র প্রয়াস। আগামী দিনে আমরা আরো বেশি করে মানুষের পাশে থাকতে চাই, তাদের জন্যই কাজ করে যেতে চাই।

তিনি আরও বলেন, শিক্ষার প্রগতি, সংঘবদ্ধ জীবন ও দেশপ্রেমের পতাকা তলে আরো বেশি করে ছাত্রসমাজকে যোগদান করার আবেদন নিয়ে আমরা আগামী দিনে আরো ছোট ছোট প্রয়াসে এগিয়ে আসবো। ছাত্র রাজনীতি শুধু ভোটের রাজনীতি নয়। বছরের 365 দিন মানুষকে সাথে নিয়ে মানুষের পাশে থাকার রাজনীতি। এবং গতকাল আমরা যে অভিজ্ঞতা সঞ্চয় করেছি তাতে মনে হয় আমাদের বহু মানুষের পাশে থাকা প্রয়োজন আছে এই অতিমারীর সময়, এবং আমরা তা আগামী দিনে আরও ভালো ভাবে করতে পারবো সেই আশাই রাখি।

Tags
Show More

Related Articles

Back to top button
Close
Close
%d bloggers like this: