Education Opinion

কঠিন পরিস্থিতিতেও ৩ মাসের মধ্যে ৩৫০টি কোর্স সেরে বিশ্বরেকর্ড গড়লেন তরুণী

অনুপ্রেরনা হয়ে পথ দেখাচ্ছে আরতি, বহু মানুষকে দেখাচ্ছে আশার আলো

দেবশ্রী কয়াল : করোনাকালে সারা বিশ্বের উপর পড়েছে প্রকোপ। গত ৬ মাস আগে পর্যন্ত মানুষের জীবন প্রায় থমকে গেছিল। গৃহবন্দী হয়ে পড়েছিলেন মানুষ। যার জেরে বহু মানুষ অবসাদের শিকার হয়েছিলেন। কিন্তু এমন সময়েই মানুষের অনুপ্রেরণা হয়ে দাঁড়াল একজন। যা এই নিউ নর্মাল লাইফে মানুষকে তাঁর জীবনে এগিয়ে যেতে আরও সাহায্য করবে। এই অনুপ্রেরণা মাত্র ৩ মাসে ৩৫০টি কোর্স করে গড়ে ফেলেছেন বিশ্বরেকর্ড।

কোচির বাসিন্দা আরতি রঘুনাথ, বায়োকেমিস্ট্রিতে তিনি স্নাতকোত্তর স্তরের ছাত্রী। তবে এই লকডাউনে ঘরে বসে সময় নষ্ট হচ্ছিল আর পাঁচজনের মতোই। কিন্তু সময়ের অপচয়টা বুঝতে পেরে আরতি শুরু করেন অনলাইনে নানাবিধ কোর্স করা। এরপর ক্রমে ক্রমে সেই সংখ্যাটা পৌঁছে যায় সাড়ে তিনশোর ঘরে। বিশ্বের নানা খ্যাতনামা বিশ্ববিদ্যালয়ের অনলাইন কোর্সে অংশগ্রহণ করেন আরতি, আর তাতেই হয় কিস্তিমাত। ইউনিভার্সাল রেকর্ড ফোরামের তরফে জুটেছে তাঁর স্বীকৃতি।

আরতির এমন স্বীকৃতিতে তাঁর অভিভাবক ও শিক্ষকেরা খুশি তো বটেই, সাথেই বিস্মিতও ! তবে আরতি অবশ্য নিজে সেই কৃতিত্ব নিতে চান না। তাঁর কথায়, “আমার শিক্ষকরাই আমাকে এই অনলাইন ক্লাসের দিশা দেখিয়েছিলেন। আমার কলেজের প্রিন্সিপাল আজিম মহম্মদ, কোর্স কো অর্ডিনেটর হানিফা কেজি, ক্লাস টিউটর নীলিমা টি কে-এর সহায়তায় আমি কোর্সগুলি শেষ করতে পেরেছি। আরতীর ঝুলিতে রয়েছে জন হপকিনস বিশ্ববিদ্যালয়, ডেনমার্ক টেকনিক্যাল ইন্সটিটিউট, কোপেনহেগেন বিশ্ববিদ্যালয়, নিউইয়র্ক বিশ্ববিদ্যালয়ের ডিগ্রি। তাঁর এমন কাজে আজ বহু মানুষ পাচ্ছেন অনুপ্রেরণা, অনেক পড়ুয়ারা অবসাদের শিকার না হয়ে এগিয়ে যাওয়ার অনুপ্রেরণা পাবেন।

Show More

Related Articles

Leave a Reply

Back to top button
%d bloggers like this: