Health

ভক্তমহলে ভয়, আবারো নক্ষত্র খসে পড়বে নাতো বলিউডের আকাশ থেকে !

ঐশ্বর্য্য ও আরাধ্যা কিছুটা স্থিতিশীল থাকলেও, এখনি ছাড়া পাচ্ছেননা মিতাভ বচ্চন এবং অভিষেক বচ্চন।

পল্লবী কুন্ডু : ভয়াল করোনা থাবার থেকে রেহাই নেই কারোর। যেমন সাধারণ মানুষ থেকে পরিযায়ী শ্রমিক তেমনি রাজনৈতিক নেতা মন্ত্রী থেকে শুরু করে তারকা মহল। সব জায়গাতেই কোভিড-১৯ তার জাল বিস্তার করেছে। আর এবার বলিউডে বচ্চন পরিবার নিয়েও প্রতি মুহূর্তে আশঙ্কা আরো বাড়ছে।এর আগে গত ১১ই জুলাই করোনা আক্রান্ত হওয়ার কথা নিজেই তার ট্যুইটার হ্যান্ডেলে শেয়ার করেন অমিতাভ বচ্চন।এরপর গত শনিবারই তাকে ভর্তি করা হয় মুম্বইয়ের নানাবতী হাসপাতালে। তার পরেই সেদিন রাতে করোনা আক্রান্ত হওয়ার কথা জানা যায় অভিষেক বচ্চনেরও। তারপর তাকেও ভর্তি করা হয় নানাবতী হাসপাতালে।এবং তারপরেই ধীরে ধীরে পরীক্ষা করা হয় পরিবারের বাকি সদস্যদের।

সেই মুহূর্তে করোনার রিপোর্ট নেগেটিভ আসে ঐশ্বর্য্য ও আরাধ্যার এবং জয়া বচ্চন ও শ্বেতা বচ্চন নন্দারও।তারপর গত রবিবারই কোভিড রিপোর্ট পজিটিভ আসে ঐশ্বর্য্য ও আরাধ্যার।জানা যায়, প্রথমে ব়্যাপিড টেস্টে নেগেটিভ আসলেও পরে দ্বিতীয় পরীক্ষায় অর্থাত্‍ সোয়াব টেস্টের রিপোর্ট পজিটিভ আসে ঐশ্বর্য্য ও আরাধ্যার।তবে রিপোর্ট পজেটিভ থাকলেও তাদের মধ্যে উপসর্গ খুব মৃদু থাকে এই কারণেই প্রাথমিক অবস্থাতে তারা বাড়িতেই হোম আইসোলেশনে ছিলেন। কিন্তু তার পরেই ধীরে ধীরে শারীরিক অবস্থার অবনতি ঘটতে শুরু করে।শুক্রবার রাতে জ্বর আসায় ঐশ্বর্য্য ও আরাধ্যাকেও ভর্তি করা হয় মুম্বইয়ের নানাবতী হাসপাতালে।

তবে তারপরেই শনিবার সকালেই হাসপাতাল কতৃপক্ষ বচ্চন পরিবারকে ঐশ্বর্য্য ও আরাধ্যার শারীরিক অবস্থা নিয়ে আস্বস্ত করেন এবং জানান যে তাদের শারীরিক অবস্থার উন্নতি হয়েছে। বচ্চন পরিবারের সকল অনুগামীরাই ভালো খবর শোনার জন্য উদগ্রীব হয়ে ছিলেন।অন্যদিকে, জানা যাচ্ছে আরও সপ্তাহখানেক পর হাসপাতাল থেকে ছাড়া পেতে পারেন অমিতাভ এবং অভিষেক বচ্চন।তবে কিছুটা ভয় তো থেকেই যায়। তাই হাতে বেশ কিছুটা সময় রেখেই হাসপাতাল কতৃপক্ষ অমিতাভ বচ্চন এবং অভিষেক বচ্চনকে ছাড়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছেন।

চলতি বছরে বলিউডের আকাশ থেকে একের পর এক তারা হারিয়ে যেতে দেখেছে ভক্ত মহল তাই এবার ‘বিগ বি’ কে নিয়েও খানিক ভয়ের মেঘ জমেছে ভক্ত মহলে।

Tags
Show More

Related Articles

Back to top button
Close
Close
%d bloggers like this: