Health

করোনার বাহক মশা, কি বলছেন বিশেষজ্ঞরা

এবার করোনা বাহক নিয়েও মশাকেই চিহ্নিত করা হবে কিনা সেই নিয়েও চিন্তিত গবেষকেরা।

পল্লবী কুন্ডু : করোনা ভাইরাস নিয়ে প্রতি মুহূর্তে নতুন মোড়। এতদিন মশা ডেঙ্গু, ম্যালেরিয়ার বাহক হিসেবে চিহ্নিত থাকলেও এবার করোনা বাহক নিয়েও মশাকেই চিহ্নিত করা হবে কিনা সেই নিয়েও চিন্তিত গবেষকেরা। বর্তমানে বর্ষা আশায় বাড়ছে ডেঙ্গুর প্রকোপ। একদিকে যেমন করোনা, অন্যদিকে তেমনি ডেঙ্গু নিয়ে চূড়ান্ত সচেতনতা বাড়াচ্ছে স্বাস্থদপ্তর। কিন্তু মশা করোনা ভাইরাস বহন করতে পারে কিনা, তা নিয়ে চিন্তিত ছিলেন গবেষকরা। এবার সেই বিষয় নিয়ে মেঘ কাটিয়ে সামনে এলো রিপোর্ট। তবে স্বস্তির বিষয় এই যে, গবেষকেরা জানাচ্ছে মশা করোনার বাহক নয় এবং মশার কারণে সংক্রমণ ছড়ানোর কোনো ভয় নেই। এই বিষয় নিয়ে সহমত প্রকাশ করেছে ‘হু’-ও।

গবেষকেরা যে বিষয়টি জানাচ্ছেন যে, মশার মূলত যে তিনটি প্রজাতি এডিস, অ্যানোফিলিস ও কিউলেক্স। এই প্রজাতি গুলির দেহে করোনা ভাইরাস জীবিত থাকতে পারেনা। এর ফল বসত এদের থেকে সংক্রমণের কোনো ভয়ও থাকছেনা। গবেষণায় যা দাবি করা হয়েছে তা হল, করোনা আক্রান্ত কোনও ব্যক্তির দেহ থেকে যে মুহূর্তে মশা রক্ত নিজের শরীরে শোষণ করে সঙ্গে সঙ্গে ভাইরাস ধ্বংস হয়ে যায়। ফলে মশার মাধ্যমে করোনাভাইরাস ছড়ানো সম্ভব নয়।

অতএব কিছুটা স্বস্তি কমিয়ে গবেষণা থেকে উঠে আসছে এই মুহূর্তে ডেঙ্গু এবং ম্যালেরিয়া বাহক হিসেবে মশাকে নিয়ে ভয় থাকলেও এই মুহূর্তে করোনা নিয়ে কোনোরূপ চিন্তা থাকছেনা। তবে মশা নিয়ে ইতিমধ্যেই সারা বিশ্ব জুড়েই একটা গবেষণা চলছিল। তবে এই বিষয় নিয়েই আমেরিকার ক্যানসাস প্রদেশের ক্যানসাস স্টেট ইউনিভার্সিটির গবেষকরা জানিয়েছেন, বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা যে দাবি করেছে তা আমরা বিজ্ঞানসম্মতভাবে প্রমাণ করতে তথ্য জোগাড় করছি।অতএব প্রতি মুহূর্তে সংক্রমণ লাফিয়ে লাফিয়ে বাড়লেও মশা দ্বারা সংক্রমণের কোনো ভয় আর খালোনা।

Tags
Show More

Related Articles

Back to top button
Close
Close
%d bloggers like this: