Nation

ধারাভি নিচ্ছে স্বস্তির নিশ্বাস

কমছে সংক্রমণের হার, মোকাবিলা চলছে জোরকদমে

দেবশ্রী কয়াল : করোনার সংক্রমণের জেরে আজ সকলেই ভয়ে হয়ে রয়েছেন ত্রস্ত। এই মারণ ভাইরাসের জেরে আক্রান্তের সংখ্যার নিরিখে ও মৃত্যুর সংখ্যার নিরিখে সবচেয়ে বেশি ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে মহারাষ্ট্র। সেখানে প্রতিনিয়ত বেড়ে চলেছে আক্রান্তের সংখ্যা। প্রথমে যেভাবে এশিয়ার বৃহত্তম বস্তি ধারাভিতে আক্রান্তের সংখ্যা বেড়ে চলেছিল, সেই নিয়ে সবাই দুশ্চিন্তায় পরে গেছিল। তবে এখন স্বস্তি দিচ্ছে ধারাভিতে করোনা আক্রান্তের সংখ্যা। সেখানে নতুন করে করোনা আক্রান্তের সংখ্যা নেমেছে দশেরও নিচে। মঙ্গলবার নতুন করে করোনায় আক্রান্ত হন মাত্র ৫ জন। বর্তমানে ধারাভিতে মোট করোনা আক্রান্তের সংখ্যা ২,১৮৯ জন। আর তাতেই জাগছে আশার আলো।

ধারাভিতে প্রতি বর্গকিমিতে ২,২৭,১৩৬ জন মানুষের বাস। সেখানে এপ্রিলের শুরুতে থাবা বসায় মারণ করোনা ভাইরাস। ১৮ দিন অন্তর রোগীর সংখ্যা দ্বিগুণ হতে থাকে ধারাভিতে। একমাসে রোগীর সংখ্যা পৌঁছয় ৪৯১-এ। সংক্রমণের হার তখন ১২%। ঘিঞ্জি এলাকা, সরু রাস্তা, পাশাপাশি ঘর, একই শৌচালয় অনেকে ব্যবহার করেন, স্থানীয় লোকজনের পক্ষে সামাজিক দূরত্ব বজায় রেখে চলাও কষ্টকর। সংক্রমণের মোকাবিলা সহজ ছিল না। তবে শেষ পর্যন্ত বহু চেষ্টার ফলে, করোনা সংক্রমণে সেখানে রোখ লাগানো সম্ভব হয়। ধীরে ধীরে কমতে থাকে সেখানে আক্রান্তের সংখ্যা।

যদিও ধারাভি করোনার প্রকোপ থেকে খানিক মুক্তি পেয়েছে, কিন্তু লড়াই এখনো শেষ হয়নি। মহারাষ্ট্রের পরিস্থিতি খুবই সঙ্কটময়। করোনার জেরে দেশে সবচেয়ে বেশি ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে মহারাষ্ট্র।

Show More

Related Articles

Back to top button
%d bloggers like this: