Nation

ভোট নিয়ে নির্বাচন কমিশন কি নির্দেশ জারি করেছে জেনে নিন –

শুক্রবার বিস্তারিত নির্দেশিকা জারি করেছে নির্বাচন কমিশন।

পল্লবী কুন্ডু : ইতিমধ্যেই যা কর্ম পরিকল্পনা করা হোক নাই কেন মাথায় রাখতে হবে করোনা পরিস্থিতির কথা।তবে এই অতিমারীর মধ্যে কিভাবে ভোট হবে বা হওয়া সম্ভব তা নিয়ে শুক্রবার বিস্তারিত নির্দেশিকা জারি করেছে নির্বাচন কমিশন।এদিকে বিহারে নভেম্বরে বিধানসভা নির্বাচন হওয়ার কথা আর ২০২১ সালের এপ্রিল-মে মাসে ভোট নেওয়ার কথা পশ্চিমবঙ্গ, আসাম সহ কয়েকটি রাজ্যে। এছাড়াও উপনির্বাচন রয়েছে।

তাই একটা নির্দেশিকা মাথায় রেখেই সমস্ত কর্ম ক্রিয়া পরিচালনা করতে হবে। এর জন্য রাজ্য স্তরে এবং প্রতিটি বিধানসভা স্তরে একেকজন করে নোডাল অফিসার নিয়োগ করা হবে। বাড়তি ভোট কর্মী নিয়োগ করতে হবে এবং সামাজিক দূরত্ববিধি মেনে যাতে তারা যাতায়াত করতে পারেন, তার জন্য বাড়তি গাড়িও যোগাড় করার কথা বলা হয়েছে নির্দেশিকায়।

তাহলে এক নজরে দেখে নিন নির্বাচন কমিশনের শুক্রবারের নির্দেশিকায় কি কি বলা হয়েছে –

১. বুথে ঢোকার আগে প্রত্যেক ভোটারের তাপমাত্র মাপা হবে। যাদের তাপমাত্রা বেশি থাকবে, তাদের ফিরিয়ে দিয়ে ভোটগ্রহণ পর্বের একেবারে শেষ ঘন্টায় আসতে বলা হবে। প্রত্যেক ভোটারকে গ্লাভস দেওয়া হবে। সেটা পড়েই তাকে নাম সই করতে হবে এবং ই ভি এমের বোতাম টিপতে হবে।
২. নির্বাচন সংক্রান্ত সব কাজের সময়ে আবশ্যিকভাবে মাস্ক পড়তে হবে।
৩. প্রতিটি বুথ ভোটের আগের দিন জীবানুমুক্ত করতে হবে। বাছতে হবে এমন জায়গা, যা যথেষ্ট বড়, যাতে সামাজিক দূরত্ববিধি মেনে চলা যায়।
৪. নির্বাচন কর্মীদের জন্য ফেসমাস্ক, স্যানিটাইজার, ফেসশিল্ড এবং গ্লাভস দেওয়া হবে। বাড়তি কর্মীও নিয়োগ করা হবে, যাতে কারও করোনা লক্ষণ দেখা দিলে দ্রুত পরিবর্ত কর্মীকে কাজে লাগানো যায়।
৫. প্রচারের জন্য রোড শো করা যেতে পারে, কিন্তু সর্বাধিক ৫টি গাড়ি ব্যবহার করা যেতে পারে। বাড়ি বাড়ি ঘুরে প্রচার করতে হবে প্রার্থীর সঙ্গে সর্বাধিক ৫জন ব্যক্তি থাকতে পারবেন।
৬. যাদের বয়স ৮০-র বেশি, যারা করোনা মোকাবিলার জন্য জরুরী পরিষেবার সঙ্গে যুক্ত এবং যাদের করোনা সংক্রমণ ধরা পড়েছে, তাদের জন্য পোস্টাল ব্যালটের ব্যবস্থা করা হবে।
৭. মনোনয়ন দাখিল করার গোটা প্রক্রিয়াই অনলাইনে করা যেতে পারে। যদি সশরীরে হাজির হয়ে কোনও প্রার্থী মনোনয়ন পত্র দাখিল করতে চান, তাহলে মাত্র দুজন সঙ্গীকে নিয়ে পূর্ব নির্ধারিত সময়ে তাকে রিটার্নিং অফিসারের কাছে যেতে হবে।

উপরিউক্ত সমস্ত নির্দেশিকা মেনেই ভোটের গোটা প্রক্রিয়া পরিচালনার নির্দেশ দিয়েছে নিৰ্বাচন কমিশন।

Tags
Show More

Related Articles

Leave a Reply

Back to top button
Close
Close
%d bloggers like this: