West Bengal

বাজিতে “বাজিবে” কিসের সুর? কি বলছেন আমজনতা থেকে বিশেষজ্ঞ?

বাজি বিষয়ে কি আলোড়ন উঠছে রাজ্যে? দীপাবলি নিয়ে চিন্তায় রাজ্য

পৃথা কাঞ্জিলাল : উমার পরেই শ্যামা ও বাঙালির আরো একবার আনন্দের পালা। পুজোতে রাজ্যবাসীর ঢল আটকাতে পারলেও চিন্তা উঠছে দীপাবলি নিয়ে। আতসবাজির(Fire Crackers) ধোঁয়াতে ক্ষতি হতে পারে করোনা রোগীদের। কালীপুজো, জগদ্ধাত্রী পুজো ও ছট পুজোয় ভিড় ও দূষণ এড়াতে আদালতের দ্বারস্থ সেই মামলাকারী যাঁর মামলাতে হাইকোর্টের(Kolkata High Court) রায় ছিল দর্শকশূন্য মন্ডপ।

দুর্গাপুজোর শেষে সংক্রমণ ও মৃতের সংখ্যা যথেষ্ট ভাবাচ্ছে। এই অবস্থায় আরো কিছু দিন সময়ে চাইছেন এবং সংক্রমণ এড়াতে করোনা বিধি মানার ওপর জোর দিচ্ছেন চিকিৎসকরা। এস এস কে এম হাসপাতালের চিকিৎসক অধ্যাপক দীপ্তেন্দ্র সরকারের ভাবনা ‘ ভিড়ের মধ্যে সচেতন হলে নাগরিক এমনি যাবেন না. এইরটাই করোনা সংক্রমণ ঠেকানোর একমাত্র উপায়ে। ডক্টর্স ফোরামের সহ সভাপতি কৌশিক লাহিড়ীর বয়ানে ‘ বাজির ধোঁয়াতে ফুসফুস আক্রান্ত হলে তা সংক্রামিত মানুষের পক্ষে তা ক্ষতিকর। সেই জন্য এই ব্যাপারে কঠোর ব্যবস্থা নেওয়া উচিত।

বাজির বাজার যেখানে এই সময়ে সরগরম থাকে, বাজি ব্যবসায়ী গোপালবাবুর কথাতে ‘ এই বছর বাজার একদম ই ফাঁকা, গতবছরের তুলনায় বিক্রি একেবারে শোচনীয়, মাল তোলা গেলেও বা মাল আসলেও তা কেনার লোক একদম ই নেই। মহামান্য আদালত ৬ মাস আগে রায়ে দিলে আমরা মাল তুলতাম না।’ আম জনতার অনেকেই বাজি বিরোধী এই বছর। পেশায় ছাত্র ও ছবি তুলতে ভালোবাসেন সিঞ্চন ভট্টাচার্য জানান,’ আমদের বাড়ির সকলেই বাজি বিরোধী এই বছর, বাড়িতে বয়স্করা আছেন। ধোঁয়াতে ক্ষতি হতে পারে। তাই এই বছর টা না ই বা হল। পেশায় শিক্ষক রাজর্ষি সরকারের বক্তব্য, ‘ আমার মা ক্যান্সারের পেশেন্ট, তাই আতশবাজি এই বছর কোনোভাবেই না। ধোঁয়া ক্ষতিকর হতে পারে। তাই দীপাবলি শুধু দীপে ই কাটুক।’

কোভিড পরিস্থিতিতে বড় সিদ্ধান্ত নিল রাজস্থান সরকার। দিওয়ালির আগে বাজি বিক্রিতে নিষেধাজ্ঞা জারি করা হল মরুরাজ্যে। কংগ্রেস শাসিত রাজস্থানের মুখ্যমন্ত্রী অশোক গেহলট টুইট করে জানিয়েছেন, বাজি পোড়ালে দূষণের মাত্রা বেড়ে যায়। যার ফলে বহু মানুষের শ্বাসকষ্ট হতে পারে। কোভিড পরিস্থিতিতে যা ভয়াবহ হতে পারে। রাজস্থানের অন্যতম প্রধান উত্‍সব দিওয়ালি।কয়েকশ কোটি টাকার বাজি বিক্রি হয় দিওয়ালি উপলক্ষে।রাজ্য সরকারের এই সিদ্ধান্তের ফলে বিপাকে বাজি ব্যবসায়ীরাও। যথেষ্ট প্রশ্নের মুখে আতশবাজি এই বছর। শুধু ই আলো? নাকি আতশেও মজবে দীপাবলি যে বিষয়ে যথেষ্ট সংশয়ে বাঙালি এখনো।

Show More

Related Articles

Leave a Reply

Back to top button
%d bloggers like this: