West Bengal

হাইকোর্টের রায় মানতে নারাজ ‘ফোরাম ফর দুর্গোত্‍সব’, আর্জি পুনবিবেচনার

রায়ে আপত্তি পূজা উদ্যোক্তাদের, হাইকোর্টের রায়ের বিরুদ্ধে কী যাবে রাজ্য সরকার ?

দেবশ্রী কয়াল : আজ চতুর্থী, কিন্তু এখনো পূজা নিয়ে বিভ্রান্তি কাটছে না। মানুষ পূজায় বের হবেন নাকি না, সেই নিয়ে এখনও চলছে দন্দ্ব। বর্তমান করোনা পরিস্থিতিতে গতকাল দর্শকহীন পূজা করার মামলার রায়দান করেছে কলকাতা হাইকোর্ট(Kolkata High Court)। কিন্তু সেই রায়ে আপত্তি জারি করছেন পূজা উদ্যোক্তারা। আজ সেই রায়ের পুনবিবেচনার আর্জি নিয়ে হাই কোর্টের ডিভিশন বেঞ্চের দ্বারস্থ হচ্ছে ‘ফোরাম ফর দুর্গোত্‍সব'(Forum For Durgotsav)। আজ মঙ্গলবার বিচারপতি সঞ্জীব বন্দ্যোপাধ্যায় ও বিচারপতি অরিজিত্‍ বন্দ্যোপাধ্যায়ের ডিভিশন বেঞ্চে রিভিউ পিটিশন ফাইল করার কথা।

করোনাতে(Corona Virus) বহু মানুষ প্রাণ হারিয়েছেন, হাসপাতালে বেডের সংখ্যা অল্প, চিকিৎসকরাও করোনা আক্রান্ত হয়ে পড়ছেন, শিক্ষা প্রতিষ্ঠান এখনও খোলেনি। এমন পরিস্থিতিতে সরকার কীভাবে উৎসব করে সেই নিয়ে প্রশ্ন তুলেছিল আদালত। এই মুহূর্তে কেবল নিয়ম মেনে পুজো (Durga Puja)হোক কিন্তু উত্‍সব নয়। এই দাবি জানিয়েই কলকাতা হাই কোর্টে জনস্বার্থ মামলা করেন বিদ্যুত্‍ দপ্তরের প্রাক্তন কর্মী অজয়কুমার দে। সেই মামলারই শুনানি চলছিল দিনকয়েক ধরেই। সেই মামলার পরিপ্রেক্ষিতে রাজ্যের স্বরাষ্ট্রসচিব এবং মুখ্যসচিবকে ভিড় নিয়ন্ত্রণের ব্লু প্রিন্ট জমা দেওয়ার নির্দেশ দিয়েছিল কলকাতা হাই কোর্ট। কিন্তু রাজ্যের তরফে কোনও ব্লু প্রিন্ট জমা দেওয়া হয়নি।

এরপরই গতকাল করোনার কথা মাথায় রেখে চলতি বছর পুজোয় মণ্ডপে প্রবেশ নিষেধাজ্ঞা বলেই জানিয়ে দেয় কলকাতা হাই কোর্ট। বিচারক জানান, ১৫ থেকে ২৫ জন পুজো উদ্যোক্তা শুধু মণ্ডপে প্রবেশ করতে পারবেন। সমস্ত পুজো মণ্ডপের বাইরে ঝোলানো থাকবে ‘নো এন্ট্রি’ বোর্ড। অপরদিকে যে পুজো উদ্যোক্তারা কোভিড বিধি মেনে দর্শনার্থীদের মণ্ডপে ঢুকতে দেওয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছিলেন হাই কোর্টের রায়ে মনমরা তাঁরা। তাঁদের কথায়, এতদিনের এত আয়োজনের কী হবে? হঠাত্‍ দর্শকরা হাজির হলে কীভাবে ভিড় সামলাবেন? কোনও অপ্রীতিকর পরিস্থিত তৈরি হবে না তো?

আর তাই মহা চতুর্থীর দিন হাই কোর্টের এই রায় পুনর্বিবেচনার আর্জি জানাবে ‘ফোরাম ফর দুর্গোত্‍সব’। এ নিয়ে সোমবার গভীর রাত পর্যন্ত একাধিক আইনজীবীদের সঙ্গে আলোচনা সারেন তাঁরা। এ নিয়ে সংগঠনের সাধারণ সম্পাদক শাশ্বত বসু জানিয়েছেন, ‘অর্ডারের কপি হাতে পেয়েছি। ফের আদালতে রায় পুনর্বিবেচনার আর্জি জানাচ্ছি।’ তবে রাজ্য সরকারও আবেদন করবে কি না, তা এখনও স্পষ্ট নয়। এখন প্রশ্ন আজ আদালত আবার কী রায় দেবে ! আজ মহা চতুর্থী, ১ দিন পর ষষ্ঠী রাজ্য সরকার কী কোনো পদক্ষেপ নেবে এই রায়ের বিরুদ্ধে ? কি হবে পূজাতে আদালতের নিদান ?

Show More

Related Articles

Leave a Reply

Back to top button
%d bloggers like this: