West Bengal

ভীড়হীন গঙ্গাসাগর, ১১০০ CCTV দিয়ে তুমুল নজরদারি

আদালতের ছাড়পত্র মিললেও মকর সংক্রান্তিতে অন্য বছরের তুলনায় এ বছর পুণ্যার্থীদের ভিড় অনেকটাই কম গঙ্গাসাগরে

পৃথা কাঞ্জিলাল : করোনা আবহে থমকেছে অনেককিছু, কিন্তু মানুষ থমকে যাবার নয় তাই নিউ নর্মালে মকর সংক্রান্তি উপলক্ষে গঙ্গাসাগরের পুণ্যস্নানে আজ, বৃহস্পতিবার গিয়েছেন অনেকেই তবে অন্য বছরেই তুলনায় চেনা ভিড় উধাও। ভিনরাজ্য থেকে যে পুর্ণার্থীরা প্রতিবছর আসেন, তাঁরাও এবার সংখ্যায় অনেক কম এসেছেন বলেই জানা গিয়েছে।

প্রশাসন সূত্রে দাবি, গতকাল বুধবার সন্ধ্যা পর্যন্ত ৮ লক্ষর কাছাকাছি পুণ্যার্থী সাগরসঙ্গমে এসেছেন। প্রতিবারের মত এবারও কড়া নজরদারির ব্যবস্থা রয়েছে সেখানে। টহল দিচ্ছে উপকূলরক্ষী ও বিপর্যয় মোকাবিলা বাহিনী। নিরাপত্তায় সহায়তা করছে নৌবাহিনীও।শর্তসাপেক্ষে গঙ্গাসাগরে স্নানের অনুমতি দেয় কলকাতা হাইকোর্ট । জলে ডুব দিয়ে সমুদ্রে স্নানের অনুমতি দিলেও, ই-স্নানের উপরেই বেশি জোর দিতে বলেছেন প্রধান বিচারপতি টিবিএন রাধাকৃষ্ণণ এবং বিচারপতি অরিজিত্‍ বন্দ্যোপাধ্যায়ের বেঞ্চ।

তবে মহামারীর আবহে গঙ্গাসাগর মেলায় ভিড় নিয়ন্ত্রণ নিয়ে আশঙ্কা প্রকাশ করে, জনস্বার্থ মামলা দায়ের করেন অজয় দে নামে এক ব্যক্তি। সাগর মেলা প্রাঙ্গণ ও বাবুঘাটে মেলার মাঠকে কন্টেনমেন্ট জোন হিসেবে চিহ্নিত করার আর্জি জানানো হয়।করোনা আবহে মেলার আয়োজনে, সরকার কী ধরনের সাবধানতা অবলম্বন করছে, তা জানতে চেয়ে রাজ্য সরকারের কাছে হলফনামা চেয়ে পাঠায় কলকাতা হাইকোর্ট। মুখ্যমন্ত্রী আগেই জানিয়েছিলেন, এবার গঙ্গাসাগর মেলা হবে অনেক ছোট। বুধবার শুনানি চলাকালীন রাজ্যের আইনজীবী অ্যাডভোকেট জেনারেল কিশোর দত্ত বলেন, এবার অনেক কম সংখ্যক মানুষ মেলায় অংশগ্রহণ করছেন। গতবারের তুলনায় মাত্র দশ শতাংশ মানুষ এবার এসেছেন। সাগরের জল বদ্ধ নয়, বহমান। সেক্ষেত্রে করোনা ছড়ানোর আশঙ্কা অনেক কম বলে মনে করছেন বিশেষজ্ঞরা।

Show More

Related Articles

Leave a Reply

Back to top button
%d bloggers like this: