Nation

কৃষকদের নয়া প্রস্তাব প্রদান, অপেক্ষা স্বরাষ্ট্র মন্ত্রীর অনুমোদনের

এবার কেন্দ্রীয় কৃষি মন্ত্রী নরেন্দ্র সিং তোমর বুধবার কৃষি আইনে সংশোধনী আনতে একটি প্রস্তাব তৈরি করেছেন, আশা বিক্ষোভ সমাপ্তির

পল্লবী কুন্ডু : কৃষি আইন(Agricultural law) নিয়ে বিক্ষোভ এই মুহূর্তে গগন স্পর্শী। তবে পরিস্থিতিকে শীতলতা প্রদানের চেষ্টায় বহাল উপরিমহল। দিল্লির(Delhi) বিভি্ন্ন সীমান্তে হাজার হাজার কৃষক টানা ১৩ দিন ধরে বিক্ষোভ চালিয়ে যাচ্ছেন। সরকার এই প্রতিবাদ মিছিলকে থামাতে আলোচনার রাস্তায় যেতে চাইছে, কিন্তু কৃষকরা অনড়, তারা আইন বাতিল ছাড়া আর কিছু চান না। কেন্দ্রীয় কৃষি মন্ত্রী নরেন্দ্র সিং তোমর(Narendra Singh Tomar ) বুধবার কৃষি আইনে সংশোধনী আনতে একটি প্রস্তাব তৈরি করেছেন, যাতে দিল্লি সীমান্তে কৃষক বিক্ষোভ শেষ হয়। সংশ্লিষ্ট বিষয় নিয়েই সূত্রের খবর, তোমর সংশোধনী নিয়ে প্রস্তাবটি কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্র মন্ত্রীকে(Amit Shah) পাঠিয়েছেন তাঁর অনুমোদনের জন্য।

কেন্দ্র যে প্রস্তাব তৈরি করেছে তাতে মূলত যে বিষয় গুলি রয়েছে তা হলো, ন্যূনতম সহায়ক মূল্য(এমএসপি) উঠে যাবে না। কেন্দ্র এমএসপি চালিয়ে নিয়ে যাবে। এপিএমসি আইনে বড় পরিবর্তন। পাশাপাশি বেসরকারি ব্যবসায়ীদের কৃষকদের সঙ্গে ব্যবসা করে গেলে তাদের নিজেদের নথিভুক্ত করবে হবে। চুক্তি চাষে সাধারণ আদালতে যাওয়ার সুযোগ থাকবে কৃষকদের। কেন্দ্র বেসরকারি ব্যবসায়ীদের ওপর কর বসাতে সম্মত হয়েছে।

অমিত শাহের অনুমোদন পাওয়ার পরেই কৃষি মন্ত্রী প্রস্তাবটি কৃষক সংগঠনগুলিকে পাঠাবেন। কৃষক সংগঠনগুলি সরকারের পাঠানো প্রস্তাবগুলি নিয়ে আলোচনা করে ভবিষ্যত্‍ কর্মপন্থা ঠিক করবে। এদিকে মঙ্গলবার রাতেই নির্দিষ্ট কিছু কৃষক নেতাদের সঙ্গে আলোচনায় বসেছিলেন স্বরাষ্ট্র মন্ত্রী অমিত শাহ। কিন্তু সেই বৈঠক ব্যর্থ হয়। কৃষক নেতারা নয়া কৃষি আইনে সংশোধনীর প্রস্তাব বাতিল করে দেন, জানান আইনগুলিই বাতিল করতে হবে।

Show More

Related Articles

Leave a Reply

Back to top button
%d bloggers like this: