Science & Tech

টেক প্রেমীদের জন্য সুখবর! অসাধারণ ফিচারের সাথে লঞ্চ হল Moto G30 ও Moto G10

দেখে নিন কি কি স্পেশাল ফিচার আছে এই ফোনগুলিতে

নিজস্ব সংবাদদাতা: স্মার্টফোনের বাজারে আবারও নতুন আরো আধুনিক ফিচারসহ ফোন নিয়ে হাজির Motorola। Moto G সিরিজের অধীনে নতুন ফোন Moto G30 ও Moto G10 এনেছে সংস্থা। এই ফোনগুলি ইতিমধ্যেই ইয়োরোপে লঞ্চ হয়ে গেছে। সংস্থার ওয়েবসাইট ও বিভিন্ন রিপোর্ট থেকে জানা যাচ্ছে IP52 রেটিং ওয়াটার রেজিস্টেন্ট ডিজাইনে তৈরি Moto G30 ও Moto G10 রয়েছে দু’টি ফোনেই প্লাস্টিক বডি।

দেখে নেওয়া যাক আর কী কী ফিচার রয়েছে এই দুই ফোনে-

Moto G30: 6.5 inch IPS LCD ডিসপ্লে দিয়ে ডিজাইন করা হয়েছে এই ফোন। 720 x 1,600 পিক্সেলের রেজোলিউশন ও 90 Hz রিফ্রেশ রেট রয়েছে এতে। স্ন্যাপড্র্যাগন 662 processor plus Adreno 610 GPU যুক্ত এই ফোনটিতে থাকছে অ্যান্ড্রয়েড ১১। দু’টি স্টোরেজ অপশনের সাথে এই ফোন টি পাওয়া যাচ্ছে। একটি 4GB, 128GB ও একটি 6GB, 128GB। এছাড়াও ক্যামেরা কোয়ালিটির সাথে কোনোরকম আপস না করে কোয়াড পিক্সেল টেকনোলজির ক্যামেরা থাকছে এই ফোনে, যাতে থাকছে 64 MP মেইন সেনসর থাকছে। সাথে 8 MP আল্ট্রা ওয়াইড, 2 MP ম্যাক্রো ক্যামেরা ও 2 MP ডেপথ সেনসর রয়েছে। সেলফির জন্য 13MP ক্যামেরা দেওয়া হচ্ছে। 5000mAh ব্যাটারি ব্যাক-আপ পাওয়া যাবে এতে, সাথে থাকবে ২০ ওয়াটের ফাস্ট চার্জার।

Moto G10: এই ফোনটিও 6.5 inch 720p+ ডিসপ্লে দিয়ে ডিজাইন করা হয়েছে। Snapdragon 460 chipset যুক্ত এই ফোনটিও আগের ফোনটির মতোই দু’টি স্টোরেজ ভ্যারিয়েন্টে পাওয়া যাচ্ছে। একটি 4GB, 128GB ও একটি 6GB, 128GB। তবে, এই ফোনের ক্ষেত্রে মেমোরি কার্ডের অপশন পাওয়া যাবে, যাতে 512GB পর্যন্ত মেমোরি কার্ড ব্যবহার করা যাবে। এছাড়া Moto G30-র মতোই ক্যামেরা স্পেসিফিকেশন থাকছে এই ফোনে। থাকছে 48MP-র মেইন সেনসর। পাশাপাশি 8 MP সেলফি ক্যামেরা দেওয়া হয়েছে। এই ফোনেও 5000mAh ব্যাটারি ব্যাকআপ পাওয়া যাবে। সঙ্গে পাওয়া যাবে ১০ ওয়াটের ফাস্ট চার্জার।

দু’টি ফোনেই ফিঙ্গারপ্রিন্ট স্ক্যানারের সুবিধা রয়েছে। ফোনের সাইড বাটনে Google Assistant পাওয়া যাবে। এই দুই ফোন এখনো পর্যন্ত ইউরোপের বাজারে লঞ্চ হলেও ভারতে বা অন্যান্য দেশে কবে লঞ্চ হবে বা তাদের দাম কি হবে তা জানা যায়নি।

Show More

Related Articles

Leave a Reply

Back to top button
%d bloggers like this: