Nation

হায়দরাবাদের ইএসআই হাসপাতাল, সারি সারি পুড়ছে করোনা মৃতদেহ

তেলেঙ্গানার ডিরেক্টর অফ মেডিক্যাল এডুকেশন ডাঃ কে রমেশ রেড্ডি জানান, মৃতদেহ নিয়ে যাওয়ার মতো অবস্থা ছিল না।

পল্লবী কুন্ডু : ৫০ টি মৃতদেহ পোড়ানো হচ্ছে সারি বেঁধে। ভিডিও সোশ্যাল মিডিয়ায় আসতেই মুহূর্তে তা ভাইরাল হল। গোটা বিশ্ব জুড়েই করোনা পরিস্থিতি এখন সাংঘাতিক । প্রতিদিন বেড়েই চলেছে আক্রান্তের সংখ্যা । সেই ভিডিও তে দেখা যাচ্ছে ৫০-এর বেশি করোনায় মৃতদেহ পোড়ানো হচ্ছে একসঙ্গে। এই ঘটনা হায়দরাবাদের ইএসআই হাসপাতালের। সেই হাসপাতালের এক জায়গাতেই এভাবে সারি সারি মৃতদেহ পোড়ানোর ব্যবস্থা করা হয়েছিল। তেলেঙ্গানার ডিরেক্টর অফ মেডিক্যাল এডুকেশন ডাঃ কে রমেশ রেড্ডি জানান, মৃতদেহ নিয়ে যাওয়ার মতো অবস্থা ছিল না। পাশাপাশি অন্ত্যেষ্টিক্রিয়ার জন্য প্রয়োজনীয় কর্মীসংখ্যাও একেবারে নেই বললেই চলে ।

আর এই ভিডিও প্রকাশ্যে আসতেই শুরু হয়েছে রাজনৈতিক তরজা। কংগ্রেস বিধায়ক সিথাক্কা ট্যুইট করে বলেন, ” সরকারের দেওয়ার রিপোর্ট অনুযায়ী করোনায় মৃত্যু হয়েছে ৭ জনের । কিন্তু ভিডিওতে দেখা যাচ্ছে ইএসআই হাসপাতালের ওই জায়গায় ৩০-এর বেশি মৃতদেহ পোড়ানো হচ্ছে । এর থেকেই বোঝা যায়, সরকার করোনা নিয়ে প্রথম থেকেই ভুল তথ্য জানাচ্ছে ।” তেলেঙ্গানার করোনা পরিস্থিতি যথেষ্ট খারাপের দিকে এগোচ্ছে। তাই ইতিমধ্যেই সংক্রমণের সাথে সাথে বাড়ছে মৃতের সংখ্যাও। পাশাপাশি সেই মৃতদেহ গুলিই ইতিমধ্যে হয়ে দাঁড়িয়েছে প্রশাসনের মাথা ব্যাথার কারণ।

একসঙ্গে এত করোনা রোগীর মৃতদেহ সত্‍কার করতে রীতিমত হিমশিম খেতে হচ্ছে রাজ্য প্রশাসনকে। তবে এমনভাবে মৃত দেহ সৎকারের কারণ যদি খুতিয়ে দেখা হয়। তবে জানা যাচ্ছে, চলতি সময়ে পরিবহণ ব্যবস্থা ঠিক নেই পাশাপাশি পর্যাপ্ত কর্মীও নেই । তাই করোনায় মৃতদের দেহ শ্মশানঘাটে নিয়ে যাওয়া বা দেহ সত্‍কারের জন্য লোকই খুঁজে পাওয়া যাচ্ছে না। যার জন্য বাধ্য হয়েই এভাবে একসঙ্গে ৫০-এর বেশি মৃতদেহ পোড়ানো হয়েছে।

Tags
Show More

Related Articles

Back to top button
Close
Close
%d bloggers like this: