West Bengal

কড়া নজরে রেলের পার্সেল পরিষেবা, চলছে বেআইনি

বেআইনিভাবে বহু ধরনের পণ্য যাতায়াত করছে বলে কাস্টমস সূত্রে খবর।

পল্লবী কুন্ডু : রেলের সাহায্যে যে পার্সেল পাঠানো হয় এবার তাতে দুর্নীতির ছাপ। একাধিক কাজকর্ম বেআইনি ভাবে হচ্ছে বলে জানা যাচ্ছে বিশেষ সূত্রে।বেআইনিভাবে বহু ধরনের পণ্য যাতায়াত করছে বলে কাস্টমস সূত্রে খবর। খিদিরপুর থেকে হায়দরাবাদের জন্য রেলে ইমারজেন্সি সার্ভিসে কুরিয়ার বুকিংয়ে ৪০০টি মোবাইল পার্টস পাঠানো হচ্ছিল এবং তারপর বারাসত থেকে কাস্টমস টিম এসে হাওড়া ৯ নম্বর প্লাটফর্ম থেকে চিনা যন্ত্রাংশগুলি আটক করে।

কাস্টমসের চিফ কমিশনার প্রমোদকুমার আগরওয়াল জানান, পার্টসগুলি বেআইনিভাবে ট্রেনে হায়দরাবাদে যাচ্ছিল কুরিয়ার মারফত্‍।পার্সেল পরিষেবা বেড়ে যাওয়ায় অনেকেই নানা ধারনের সুযোগ নিচ্ছে বলে কাস্টমসের পাশাপাশি সেলস ট্যাক্স বিভাগের কর্মীরা অভিযোগ তুলেছেন।চিনা পণ্যের আমদানিতে নিষেধাজ্ঞা জারি করেছে কেন্দ্র সরকার। তবে চোরাই পথে সেগুলি এখনও ভারতে প্রবেশ করছে এবং বাজারে বিক্রি হচ্ছে। গত জুন মাসে, কলকাতা-সহ দেশের সমস্ত বিমানবন্দর ও পোর্টে চিনা পণ্য খালাসে নিষেধাজ্ঞা জারি করেছিল কাস্টমস।

‘Air Cargo Agents’ Association of India’ এবং ‘cargo managing committee’-র তরফে জানানো হয়েছিল, কাস্টমসের তরফে পণ্য খালাসে জড়িত সমস্ত আধিকারিকদের অভ্যন্তরীণভাবে নির্দেশ দেওয়া হয়েছে তাঁরা যেন চিন থেকে আসা পণ্য খালাস না করেন। যে পণ্যে ইতিমধ্যে ক্লিয়ারেন্স দেওয়া হয়েছে সেগুলিকেও যেন খালাস না করা হয়। সমস্ত পণ্য ফের পরীক্ষা করে খালাস করার বিষয়ে সিদ্ধান্ত নেওয়া হবে। কলকাতা ছাড়াও মুম্বই ও চেন্নাই বিমানবন্দর ও পোর্টে এই নির্দেশিকা পাঠানো হয়। তবে পরবর্তী সময়তে নজরদারি আরো কড়া হবে বলে জানিয়েছে কর্তৃপক্ষ।

Show More

Related Articles

Leave a Reply

Back to top button
%d bloggers like this: