Sports Opinion

গতকাল শিহরণ জাগানো ম্যাচ বদলে দিলো কিংস ইলেভেন পাঞ্জাবের চলতি মরশুমের যাত্রাপথ

সন্ধে ৭.৩০ টা থেকে মুম্বাই ইন্ডিয়ান্স বনাম কিংস ইলেভেন পাঞ্জাবের শিহরণ জাগানো ম্যাচ। সেখানে একটা নয়, দুটো সুপার ওভার। শেষ হাসি হাসলো পাঞ্জাব শিবির

পল্লবী কুন্ডু : যে সব মানুষরা চলতি বছরে এই করোনা পরিস্থিতিতে বাইরে গিয়ে ভিড় ঠেলে ঠাকুর দেখার পক্ষপাতী নন তাদের জন্য এই বছরে অপেক্ষা করছে এইপিএল অর্থাৎ ইন্ডিয়ান প্রিমিয়ার লীগ(Indian Premier League)। দুর্দান্ত ফর্মে চলছে চলতি আইপিএল মরশুম। আর যদি কথা শেষ রবিবারের হয় তাহলে তো কোনো কথাই নেই। প্রথমে দুপুর ৩.৩০ থেকে কলকাতা নাইট রাইডার্স বনাম সানরাইজার হায়দ্রাবাদ ম্যাচ। যাকে বলে হাড্ডাহাড্ডি লড়াই। আর তা প্রমান করেছে সুপার ওভার। যদিবা শেষ হাসি হাসে কলকাতা-ই। আর তারপর সন্ধে ৭.৩০ টা থেকে মুম্বাই ইন্ডিয়ান্স বনাম কিংস ইলেভেন পাঞ্জাবের শিহরণ জাগানো ম্যাচ। সেখানে একটা নয়, দুটো সুপার ওভার। অর্থ্যাৎ বুঝতেই পারছেন যে কেউ-ই এক চুল জায়গা ছাড়ার পাত্র নয়।

ইন্ডিয়ান প্রিমিয়ার লিগ ত্রয়োদশ সিজনে মুম্বই ইন্ডিয়ান্স ও কিংস ইলেভেন পঞ্জাবের মধ্যে রুদ্ধশ্বাস ম্যাচ দেখতে পেলেন দর্শকরা। রোমাঞ্চকর ম্যাচে মুম্বইকে হারাল কেএল রাহুল এবং তার দল। নির্ধারিত ২০ ওভারে দুই দলের স্কোরই সমান হওয়ার পর প্রথম সুপার ওভার, কিন্তু তাতেও কেউ তার জায়গা ছাড়লো না। সেখানেও টাই হয়। এরপর ম্যাচের ফয়সালা হল দ্বিতীয় সুপার ওভারে। কিন্তু দ্বিতীয় সুপার ওভারে কিংস ইলেভেন পঞ্জাবের মায়াঙ্ক আগারওয়াল একটা দুর্দান্ত ফিল্ডিং ম্যাচের মোড় ঘুরিয়ে দেয়।

দ্বিতীয় সুপার ওভারে মুম্বই ইন্ডিয়ান্সের কায়রন পোলার্ড ডিপ মিডউইকেটের ওপর দিয়ে শট খেলেন। বল উড়ে যাচ্ছিল সীমানার ওপর দিয়ে। কিন্তু বাউন্ডারি লাইনে দাঁড়ানো মায়াঙ্ক শূন্যে শরীর ছুঁড়ে দিয়ে বল ধরে মাঠের ভেতরে ফেলে দেন। তাঁর এই দুরন্ত প্রচেষ্টায় নিশ্চিত ছয় রান থেকে বঞ্চিত হয় মুম্বই। মাত্র দুই রান নেন ব্যাটসম্যানরা। নিশ্চিতভাবে চার রান বাঁচান তিনি।কিন্তু মায়াঙ্কের প্রয়াসে মুম্বই দ্বিতীয় সুপার ওভারে ১১ রানই তুলতে পারে। এরপর সুপার ওভারে ব্যাট করতে নেমে জুটি চার মেরে কিংস ইলেভেন পঞ্জাবকে শুধু জয়ই এনে দিলেন না, সেইসঙ্গে প্লেঅফে যাওয়ার সম্ভাবনাও জিইয়ে রাখলেন।

Show More

Related Articles

Leave a Reply

Back to top button
%d bloggers like this: