Sports Opinion

কে এল রাহুলের বিধ্বংসী ১২৩ রান, মুখ থুবড়ে পড়ল আরসিবি

অল আউট হল বিরাট বাহিনী, দুর্ধর্ষ জয়লাভ পাঞ্জাবের

দেবশ্রী কয়াল : গতকালের ম্যাচ জিতে স্কোর বোর্ডের একদম টপে রয়েছে কিংস ইলেভেন পাঞ্জাব। রয়্যাল চ্যালেঞ্জার্স ব্যাঙ্গালোরের বিরুদ্ধে একটা দুর্ধর্ষ ম্যাচ খেলে ক্যাপ্টেন রাহুলের টিম পাঞ্জাব। আর ৯৭ রানে বিরাট বাহিনীকে হারিয়ে আইপিএল ২০২০-র প্রথম জয় তুলে নিল লোকেশ রাহুলের কিংস ইলেভেন পাঞ্জাব। এদিন ম্যাচে একাই ক্যাপ্টেন কে এল রাহুল ১৩২ রানের একটি বিধ্বংসী ইনিংস খেলেন। কিন্তু পুরো ব্যাঙ্গালোরের টিম, এক রাহুলের রান এর সংখ্যাকেও টপকাতে পারেনি। মাত্র ১০৯ রানে তাঁরা অল আউট হয়ে যায়। এদিন ম্যাচে আরসিবিকে ২০৭ রানের টার্গেট দিয়েছিল পাঞ্জাব। কিন্তু খেলার শুরুতেই পরে যায় বড় ৩টি উইকেট, আর তারপর থেকেই পড়তে থাকে ব্যাঙ্গালোরের উইকেট। শেষমেশ অলআউট হয়ে বিদায় নিতে হয় বিরাটের দলকে।

অপরদিকে ১৩২* হাঁকিয়ে আইপিএলে ভারতীয়দের মধ্যে এই ইনিংসে সর্বোচ্চ রান সংগ্রহক হয়েছেন রাহুল। যদিও তার জন্য খানিকটা হলেও দায়ী ব্যাঙ্গালোর অধিনায়ক বিরাট কোহলি। ৯০ এর ঘরে থাকাকালীন দু বার তার মিসহিট করা শট তালুবন্দি করতে ব্যর্থ হয়েছিলেন কোহলি। ওই ক্যাচ গুলি এতটাই সহজ ছিল যে পাড়ার ক্রিকেটেও তা মিস করা অপরাধ হিসেবে গণ্য হবে। সেই ক্যাচ মিসগুলির দৌলতে ম্যাচের সেরাও হয়েছেন কে এল রাহুল। ক্রিকেট বিশেষজ্ঞদের মতে তখনি যদি কে এল রাহুলকে আটকাতে পারত, উইকেট নিয়ে তাঁকে ফেরত পাঠাতে পারত, তাহলে হয়ত আরসিবির উপর খেলার প্রথম থেকেই এতটা প্রেসার আসতো না।

এদিন পাহাড় প্রমাণ রান তাড়া করতে নেমেই শুরু থেকেই চাপের মুখে পড়ে আরসিবি ধারাবাহিকভাবে উইকেট হারাতে থাকে। গত ম্যাচের হাফ সেঞ্চুরিয়ান দেবদূত পাডিকল এদিন ১ রান করে আউট হন। দ্রুত উইকেট হারানোয় নিজে তিন নম্বরে না এসে বিরাট কোহলি জোস ফিলিপেকে ব্যাটিং করার সুযোগ করে দেন। টপ অর্ডারে সুযোগ পেলেও এদিন ০ রানে সাজঘরে ফিরলেন। এরপর অধিনায়ক বিরাট চারে নেমে ১ রানে আউট হন। ওইখানেই ম্যাচের ভাগ্য নির্ধারিত হয়ে গিয়েছিল। তারপরেও এবি ডিভিলিয়ার্স ২৮ ও আরসিবির হয়ে ওয়াশিংটন সুন্দর সর্বোচ্চ ৩০ রান করে একটি মরিয়া চেষ্টা চালিয়েছিলেন, কিন্তু তা একেবারেই যথেষ্ট ছিল না। শেষ মুহূর্ত পর্যন্ত তাঁরা খেলা চালিয়ে যেতে পারেনি। হয়ে যায় সবাই অল আউট।

Show More

Related Articles

Leave a Reply

Back to top button
%d bloggers like this: