Sports Opinion

দুরন্ত ফিল্ডিং, ৩৭ রানে দুর্দান্ত জয় কেকেআর-এর,

বড় মাত্রার রান নয়, কিন্তু প্রথম কয়েক ওভারেই রাজস্থানের ব্যাটিং মেরুদন্ত ভেঙে দিল নাইট শিবির

দেবশ্রী কয়াল : গতকাল দূর্ধর্ষ খেলে, পয়েন্ট টেবিলে দ্বিতীয় স্থান দখল করে নিল কলকাতা নাইট রাইডার্স। গতকাল আইপিএলের ১২ তম ম্যাচে মুখোমুখি হয়েছিল রাজস্থান রয়্যালস ও কলকাতা নাইট রাইডার্স। এদিন রাজস্থানের বিরুদ্ধে ২৭ রানে জিত লাভ করে নাইট শিবির। এই নিয়ে দুটি ম্যাচ জিতল কলকাতা আর এই টুর্নামেন্টে প্রথম হারল স্টিভ স্মিথ এর রাজস্থান।

গতকাল ম্যাচে টস জিতে রাজস্থানের দল প্রথমে বোলিং করার সিদ্ধান্ত নেয়। প্রথমে ব্যাটিং করতে নামেন শুভমন গিল ও সুনীল নারিন। কিন্তু শুরুটা তেমন ভালো হয়নি। সুনীল নারিন পঞ্চম ওভারেই ১৪ বলে ১৫ রানের স্লো ইনিংস খেলে আউট হয়ে যান। তবে তরুণ শুভমান গিল আর নীতিশ রাণা ইনিংস সামলান আর দলকে ৮০ রানে নিয়ে যান।

ওপেনিং ব্যাটসম্যান শুভমান গিল আর নীতিশ রানা দ্বিতীয় উইকেটে হাফসেঞ্চূরি পার্টনারশিপ গড়েন। তবে এরপর রাণা রাহুল তেওটিয়ার বলে রিয়ান পরাগকে ক্যাচ দিয়ে আউট হয়ে যান মাত্র ২২ রান করে। এর পর দ্রুতই শুভমানও আর্চারের বলে ৪৭ রান করে প্যাভিলিয়নে ফিরে যান। এরপর ব্যাটিং করতে আসা অ্যান্দ্রে রাসেল কিছু বড়ো শট অবশ্যই মারেন কিন্তু তিনিও ২৪ রান করে অঙ্কিত রাজপুতের শিকার হন। শেষে ইয়ন মর্গ্যান নিজের যোগ্যতা আর অভিজ্ঞতার প্রমাণ দিয়ে দলকে ১৭৪ রানে পৌঁছে দেন।

কলকাতা এই ম্যাচে ২০ ওভারে নিজেদের ৬ উইকেট হারিয়ে ১৭৪ রান করতে সফল হয়। মর্গ্যান ২৩ বলে ৩৪ রান করেন। রাজস্থানের হয়ে আর্চার ২টি, অঙ্কিত রাজপুত, রাহুল তেওটিয়া, টম ক্যুরেন আর জয়দেব উনাকট ১টি করে উইকেট নেন। এরপরেই শুরু হয়ে যায় খেলায় টানটান উত্তেজনা। এর আগের দুটি ম্যাচে দুর্দান্ত খেলেছিল রাজস্থান। তাই গতকালের ম্যাচে তারা আবার কী দেখতে চলেছে তার অপেক্ষায় ছিল সকলেই।

এরপর ১৭৫ রানের টার্গেট নিয়ে মাঠে নেমে পড়ে রাজস্থান। অনেকে মনে করেছিল এই টার্গেট খুব সহজেই তারা পূরণ করতে পারবে ও জিতে যাবে আরও একটা ম্যাচ। কিন্তু এদিন নাইট বোলাররা আবারও প্রমাণ করলেন কেন তাঁদের টুর্নামেন্টের অন্যতম শক্তিশালী বোলিং লাইন আপ বলা হচ্ছে। প্রথম কয়েক ওভারেই দু’দলের পার্থক্য গড়ে দিলেন তিন ভারতীয় বোলার। দুই পেসার মাভি-নাগারকোটি এবং স্পিনার বরুণ চক্রবর্তীই কার্যত ভেঙে দিলেন রাজস্থানের ব্যাটিংয়ের মেরুদণ্ড। বাটলার (২১) বাদে ব্যর্থ স্মিথ (৩), স্যামসন (৮), উত্থাপা (২), পরাগ (১)। গত ম্যাচের নায়ক রাহুল তেওটিয়াও ফিরলেন মাত্র ১৪ রান করে। তিন বোলারের মধ্যে নাগারকোটি নিজের প্রথম ওভারেই তুলে নেন উত্থাপা এবং পরাগের উইকেট। এরপর দুরন্ত একটি ক্যাচে আর্চারের উইকেটও তুলে নেয় সে। এদিন বোলিং অর্ডারে ক্যাপ্টেন দীনেশ কার্তিক যথেষ্ট মাথা খাটিয়েছে বলতে হয়। নিজেদের দুর্দান্ত ফিল্ডিংয়ে রাজস্থানের ৯টি উইকেট তুলে নেয় তারা ও ৩৭ রানে জয়লাভ করে এদিন কলকাতা নাইট রাইডার্স।

Show More

Related Articles

Leave a Reply

Back to top button
%d bloggers like this: