Education Opinion

সংক্রমণ রুখতে, সামাজিক বিধির নিয়ম মেনে ডিজিটালি পরীক্ষা নেওয়ার পথে যাদবপুর

বাড়ি বসেই পরীক্ষা দেবে পড়ুয়ারা, উত্তর দেওয়ার জন্যে মিলবে মাত্র কয়েক ঘন্টাই

দেবশ্রী কয়াল : করোনা আবহে কীভাবে ফাইনাল ইয়ারের পরীক্ষা নেওয়া হবে সেই নিয়ে ছিল সবার মনে প্রশ্ন। সামাজিক দূরত্ব বিধি মানা আবশ্যিক, তাই এবারে কলকাতা বিশ্ববিদ্যালয়ের পথেই এগোচ্ছে যাদবপুর বিশ্ব বিদ্যালয়। ফাইনাল ইয়ারের পরীক্ষা হবে বাড়িতে বসেই ডিজিটাল মিডিয়ার মাধ্যমে। গতকাল সোমবারেই এমন সিদ্ধান্ত নিয়েছে কর্তৃপক্ষ বোর্ড মিটিংয়ে।

তবে হ্যাঁ, যাদবপুরে কিন্তু কলকাতার মতো ২৪ ঘণ্টা ধরে পরীক্ষা নেওয়া হবে না। প্রতি পত্রে ৫০ নম্বরের পরীক্ষা দিতে হবে দু’ঘণ্টার মধ্যে। প্রশ্ন ডাউনলোড করা, উত্তরপত্র পাঠানোর জন্য অবশ্য বাড়তি কিছু সময় মিলবে। তবে তা এক ঘণ্টার বেশি হবে না বলেই জানা যাচ্ছে। অর্থাৎ নির্দিষ্ট সময়ের মধ্যেই বাড়িতে বসে ছাত্র-ছাত্রীদের দিতে হবে পরীক্ষা। এই বিষয়ে যাদবপুরের উপাচার্য সুরঞ্জন দাস বলেন, ”সুপ্রিম কোর্টের নির্দেশ এবং ইউজিসি-র নির্দেশিকার পাশাপাশি আমাদের প্রতিষ্ঠানের আইন অনুসরণ করে ‘ডিজিটাল-ডিসট্যান্স মোড’-এ পরীক্ষা নেওয়ার সিদ্ধান্ত হয়েছে।”

কলেজ ও বিশ্ববিদ্যালয়ের চূড়ান্ত সেমিস্টারের পরীক্ষা নিয়ে সর্বোচ্চ আদালত এবং ইউজিসি বলেছিল, চলতি মাসেই অর্থাৎ সেপ্টেম্বরেই পরীক্ষা নিয়ে ফল প্রকাশ করতে হবে। কিন্তু উপাচার্যদের সঙ্গে শিক্ষামন্ত্রী পার্থ চট্টোপাধ্যায়ের বৈঠকে ঠিক হয়, সেপ্টেম্বরে নয় অক্টোবরেই হবে পরীক্ষা হবে এবং সেই মাসেই হবে পরীক্ষার ফল প্রকাশ। অক্টোবরে পরীক্ষা নেওয়ার জন্য ইউজিসি-র অনুমতি চেয়েছে উচ্চশিক্ষা দফতর। ইউজিসি-র উত্তর অনুযায়ীই পরীক্ষার নির্ঘণ্ট জানাবে যাদবপুর।

লিখিত পরীক্ষা হয়ত আগামী মাসেই হবে। তবে প্র‌্যাক্টিক্যাল, সাপ্লিমেন্টারি পরীক্ষাগুলি নেওয়া হবে চলতি মাসেই। হোম অ্যাসাইনমেন্টের মাধ্যমে এই মূল্যায়ন করা হবে, নাকি মৌখিক ভাবে— সেটা ঠিক করবে সংশ্লিষ্ট বিভাগ। প্রশ্ন পত্র ই-মেল বা হোয়াটসঅ্যাপের মাধ্যমে পরীক্ষার্থীদের কাছে পাঠানো হবে। তাঁরা বাড়িতেই উত্তর লিখে মেল বা হোয়াটসঅ্যাপেই উত্তরপত্র পাঠাবেন। কিন্তু সবার কাছে হয়ত সেই সুবিধা নেই তাই সে ক্ষেত্রে যাঁরা তা পারবেন না, সেই সব পরীক্ষার্থীর কাছে প্রশ্ন পাঠানো এবং তাঁদের কাছ থেকে উত্তরপত্র সংগ্রহের ব্যবস্থা করবে কর্তৃপক্ষ।

Tags
Show More

Related Articles

Leave a Reply

Back to top button
Close
Close
%d bloggers like this: