West Bengal

সংক্রমণ রুখতে জগদ্ধাত্রী পূজাতে গাইডলাইন রাজ্য সরকারের

থাকছে বেশ অনেকগুলি নিয়ম, সকল বিধি মনেই সারতে হবে পূজা

দেবশ্রী কয়াল : সবে মাত্র শেষ হয়েছে দুর্গাপূজা, আসন্ন জগদ্ধাত্রী পূজা (Jagadhatri Puja)। চন্দননগরে অতি ধুমধাম ভাবে প্রত্যেক বছর এই উৎসব পালন করা হয়ে থাকে। সকল কৃষ্ণনগর(Krishnanagar), চন্দননগর(Chandannagar) বাসি কেবল এই পূজার অপেক্ষায় সারা বৎসর থাকেন। জগদ্ধাত্রী পুজো ও জগদ্ধাত্রী পুজোর বিসর্জন ঘিরে উন্মাদনা চরমে থাকে স্থানীয় বাসিন্দাদের। আর কেবলমাত্র শুধু স্থানীয় বাসিন্দারা নন, এই পুজোর মজা নিতে ভিড় জমান কলকাতা সহ বিভিন্ন জেলার বাসিন্দারাও।

তবে করোনা পরিস্থিতিতে কেমন কী হবে তা ভাবাচ্ছে সকলকে। দুর্গাপুজোর সময় সরকারের তরফে একাধিক বিধি নিষেধ আরোপ করা হয়েছিল। কেন্দ্রর তরফেও উত্‍সবের মরসুমে জারি করা হয়েছিল একাধিক গাইডলাইন। তাই এবার, জগদ্ধাত্রী পুজো ও পুজোর শোভাযাত্রা নিয়ে নয়া গাইডলাইন প্রকাশ করল রাজ্য সরকার। নয়া গাইডলাইনে অনুযায়ী, দুপুর ২টো থেকে রাত ৯ টার মধ্যেই প্রতিমা নিয়ে শোভাযাত্রা সম্পন্ন করতে হবে।

এর পাশাপাশি এবছর ঘট বিসর্জনের প্রক্রিয়াতেও কিছু বদল আনা হয়েছে। অন্যান্য বছরের মতো এ বছর চন্দননগরে হবে না ঘট বিসর্জন। পাশাপাশি রাজ্য সরকারের নয়া নিয়ম অনুযায়ী, পূজা মণ্ডপে একসঙ্গে ১৫ জনের বেশি প্রবেশের অনুমতি নেই। মণ্ডপের ভিতর সর্বোচ্চ ১০ জন ঢাকি থাকবেন। অন্য কোনও বাজনা থাকতে পারবে না। শোভাযাত্রায় সর্বোচ্চ ১০ জন থাকতে পারবেন একসঙ্গে। এবং ঘাটেও সর্বোচ্চ ১০ জন থাকতে পারবেন বলে নয়া নির্দেশিকায় বলা হয়েছে। প্রশাসনের নিয়মানুসারে পুজোর প্যান্ডেল করতে হবে খোলামেলা। প্রত্যেক মণ্ডপে মাস্ক এবং স্যানিটাইটাইজারের ব্যবস্থা করতে হবে। এবং ১০ মিটার আগে থেকে ব্যারিকেড থাকবে চন্দননগরে প্রত্যেকটি পুজো প্যান্ডেলের। অর্থাৎ সকল কোভিড নিয়ম মেনেই পালন করতে হবে পূজা।

Show More

Related Articles

Leave a Reply

Back to top button
%d bloggers like this: