Culture

শশুর কমিশনের সামনে হাজির জামাই : সওয়াল জবাবে দিনভর

হরিপদ মোদী : শশুর মশাই দিন কয়েক আগেই মুদির দোকানে ফর্দ দিয়ে এসেছে কি কি লাগবে , কারণ মজুত টাকার সুদ কমেছে। চলতি খরচ চালিয়ে বেশি কিছু করতে গেলে মাসের শেষে টান পড়বে । বিধিনিষেধ মেনেই বাজার হাট করা হয়েছে। চিন্তা একটাই মেয়ে জামাই এর ভ্যাকসিনটা নেওয়া হয়েছি কি ?

চলতি গল্পে, “এক গৃহবধূর স্বামী গৃহে নিজে মাছ চুরি করে খেয়ে বার বার দোষ দিতেন এক কালো বেড়ালের ওপর।এর প্রতিশোধ নিতে ছোট বউয়ের বাচ্চা হলেই ওই কালো বেড়ালটি তাঁর সন্তান তুলে মা ষষ্ঠীর কাছে লুকিয়ে দিয়ে আসে। গৃহবধূ তা জানতে পেরে ষষ্ঠী দেবীর কাছে ক্ষমা প্রার্থনা করেন। দুই শর্তে তাঁকে ক্ষমা দান করেন ষষ্ঠী দেবী।” যাই হোক সেই কথা , কিন্তু আজকের কথায় জামাই বাড়ি কি দুধ-ক্ষির সবটাই খেয়ে মেয়ের ওপর দোষ দিচ্ছে কিনা ? সেই বিষয়েই চলবে জবাব-সওয়াল।

শশুর বাড়ির স্বজন থেকে ঘনিষ্ঠ প্রতিবেশীরাও হাজির হন ছলেবলে কৌশলে, কেমন হল জামাই ? মিষ্টির হাঁড়ি হাতে ফিনফিনে সাদা মসলিনের পাঞ্জাবি আর মালকোচা মারা ধুতিতে শ্বশুরঘর আলো করা জামাই বাবাজি বসার ঘরে , ঠিক মেয়ে কে নিয়ে মা রান্না ঘরে একটু আড়াল করে চলে তদন্তের পালা। শাশুড়ি কেমন , শশুর কথা বলে কি না , ননদের খবর কি ? তোর বরের অন্য আত্বিয়দের কে কি বললো ? জামাইয়ের কাজ কেমন চলছে ? তোকে হাত পুড়িয়ে রান্না করতে হয় নাকি ? জামাইয়ের অন্য কারোর সাথে কিছু নেই তো ? জামাই কি তোর কথা তে সিদ্ধান্ত নেয় না মায়ের কথাতে ? সব শেষে বলে জামাইকে হাতে রাখতে পারছো না ?

প্রথমে প্রাইমা ফেসি করেই জামাইকে আশীর্বাদের ধরন কি হবে ঠিক তার ওপর নির্ভর করবে । তবে ডিজিটালের যুগে প্রতিমুহূর্তে লাইভ সংযোগ থাকলেও জামাই ষষ্ঠীতে এই রিয়াজের বাইরে কিছু হবে না। দুপুরের খাবার দাবার হবে পরে চেষ্টা চলে শাশুড়িমার যে জামাই হাত করা , তবে লিবারেল শাশুড়িদের বেপারটা আলাদা। সব মিলিয়ে কাঁচা মিঠের সম্পর্কে বিয়ের প্রথম তিনটি বছর তো থাকেই।

শেষের দু বছর বহু কন্যা-জামাতাই পারেনি মেয়ের বাপের বাড়িতে । তবু মেয়ে-জামাইয়ের জন্য দূর থেকে হোক বা কাছ থেকে, সমস্ত বাবা-মায়েরাই মঙ্গল কামনা করবেন, আশীর্বাদ করবেন প্রাণ ভরে । তবে জানেন কী, এই জামাই ষষ্ঠীর তাৎপর্য আসলে কী? এই অনুষ্ঠান প্রকৃতপক্ষে মেয়েদের মঙ্গল কামনার অনুষ্ঠান ।

Show More

Related Articles

Leave a Reply

Back to top button
%d bloggers like this: