West Bengal

মাতৃপক্ষেই ভক্তদের জন্য খুলে যাচ্ছে কালীঘাট মন্দিরের গর্ভগৃহ

ভক্তদের জন্য ষষ্ঠী থেকে দশমী পর্যন্ত ভক্তদের জন্য খোলা থাকবে কালীঘাট মন্দিরের গর্ভগৃহ।

পল্লবী কুন্ডু : ২০২০ দুর্গোৎসব নিয়ে বড়ো সিদ্ধান্ত হাইকোর্টের।পুজো নিয়ে রায়দান করল কলকাতা হাইকোর্ট। প্রতিটি দুর্গাপুজো মণ্ডপকে কন্টেইনমেন্ট জোন হিসেবে বিবেচনা করার নির্দেশ দিয়েছেন বিচারপতি। একই সঙ্গে সব মণ্ডপে দর্শকদের প্রবেশ নিষিদ্ধ করা হয়েছে। প্রতিটি মণ্ডপে বাফার জোন রাখতে হবে। বড় মণ্ডপের থেকে ১০ মিটার পর্যন্ত ব্যারিেকড করে বাফার জোন রাখতে হবে। আর ছোট মণ্ডপ গুলির ক্ষেত্রে ৫ মিটার পর্যন্ত ব্যারিকেড করে বাফার জোন ঘোষণা করতে হবে। কড়া নির্দেশ দিয়েছে কলকাতা হাইকোর্ট। এমতাবস্থায় একাধিক মানুষের মন-ই কিছুটা ভারাক্রান্ত হয়েছে।

তবে অন্যদিকে ভক্তদের জন্য ষষ্ঠী থেকে দশমী পর্যন্ত ভক্তদের জন্য খোলা থাকবে কালীঘাট মন্দিরের(Kalighat Mandir) গর্ভগৃহ। তবে ১০ জনের বেশি ভক্ত একসঙ্গে গর্ভগৃহে প্রবেশ করতে পারবেন না। মানতে হবে করোনা বিধি। এমনটাই মন্দির কমিটির এক বৈঠকে সিদ্ধান্ত হয়েছে। মন্দির কর্তৃপক্ষ জানিয়েছেন,পুজোয় ৫ দিন খোলা থাকবে মায়ের গর্ভগৃহ। প্রথম দফায় সকাল ৬টা থেকে দুপুর ১টা পর্যন্ত। আবার বিকেল ৪টে থেকে রাত ১১টা পর্যন্ত খোলা থাকবে গর্ভগৃহ। কালীঘাট মন্দিরের ২ নম্বর গেট দিয়ে ভক্তরা গর্ভগৃহে যেতে পারবেন। তবে ৬ ফুট দূরত্ব রেখে যেতে হবে।

মন্দিরে মধ্যে একটি সিন্দুকে সতীর প্রস্তরীভূত অঙ্গটি রক্ষিত আছে; এটি কারোর সম্মুখে বের করা হয় না। এই মন্দির কলকাতার একটি প্রসিদ্ধ কালীমন্দির এবং একান্ন শক্তিপীঠের অন্যতম হিন্দু তীর্থক্ষেত্র।আর যারা নাটমন্দির থেকে প্রতিমা দর্শন করবেন, তাদেরকে ৫ নম্বর গেট দিয়ে ঢুকতে হবে। করোনা আবহে কালীঘাট মন্দির খোলা থাকলেও গর্ভগৃহ বন্ধ রাখা হয়েছে। তা আগামী বুধবার অর্থাত্‍ মহাপঞ্চমীর দিন সকালে খুলে দেওয়া হবে ভক্তদের জন্য। ফলে দীর্ঘদিন পর মায়ের গর্ভগৃহে প্রবেশ করে দর্শনের সুযোগ পাবেন ভক্তরা।

Show More

Related Articles

Leave a Reply

Back to top button
%d bloggers like this: