West Bengal

মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় : আমাকে একটা এই রাজ্যে আরবিআই খুলতে দিন আমি সব টাকা দিয়ে দেব!

প্রশাসনিক পর্যালোচনা সভা, হাওড়া জেলা. কাজের জন্য সমালোচিত ববি হেকিম। পৌর সভা গুলো ভালো কাজ করছে না

  1. জল রাস্তা , রাস্তা , বাথরুম অবস্থা বেহাল। বাস্তবে কোন কাজ করছে না মুখ্যমন্ত্রী মানলেন
  2. রাস্তায় আন্দোলনের নাম বসে পড়লেই আন্দোলন হয় না। শুধু টাকা বাড়ালেই চলবে না। কথা থেকে পাবো। ২০০৪ সালে পার্শ্ব শিক্ষকরা ৪০০০ টাকা পেতেন আমি সরকারে এসে বাড়িয়ে এখন ১০০০০ টাকা করেছি। আর কত করবো।
  3. সকালে টুইট করে তিনি লেখেন, “কাশ্মীরের মাবাধিকার,শান্তির জন্য প্রার্থনা করি৷ মানবাধিকার রক্ষা হৃদয়ের খুব কাছের বিষয়৷ ১৯৯৫ সালেও সরব হয়েছিলাম ৷ মানবাধিকার রক্ষা ও লকআপে মৃত্যুর প্রতিবাদ৷ ২১ দিন রাস্তায় নেমে আন্দোলন করেছি ৷”
  4. শনিবার রাতে কল্যাণী সেন্ট্রাল বাস টার্মিনালে পার্শ্ব শিক্ষকদের উপর পুলিশের লাঠিচার্জ নিয়ে সরগরম হয়ে ওঠে রাজ্য রাজনীতি। সমকাজে সমবেতন দেওয়ার দাবি-সহ একাধিক দাবি নিয়ে গত শুক্রবার থেকে আন্দোলনের রাস্তায় নেমেছেন রাজ্যের প্রায় ৪০ হাজার পার্শ্ব শিক্ষক। কিন্তু এ দিন মুখ্যমন্ত্রী বলে দেন, অনেক মাইনে বাড়ানো হয়েছে। এক্ষুণি আর সম্ভব নয়। “গত বছরই পার্শ্ব শিক্ষকদের মাইনে ৪ হাজার টাকা থেকে ১০ হাজার টাকার বেশি করা হয়েছে।”
  5. কয়েকদিন আগেই বিকাশ ভবনে টানা অনশনের শেষে দাবি আদায় করেন প্রাথমিক শিক্ষকরা “পার্থদার একটা এডুকেশন ডিপার্টমেন্ট নিয়ে মাথা খারাপ হয়ে যাচ্ছে। রোজ রাস্তায় বসে পড়ছে।” এ বার আন্দোলনে পার্শ্ব শিক্ষকরা। এত ধরনের শিক্ষক আন্দোলনে যে সরকারের নাজেহাল হওয়ার অবস্থা হয়েছে, তা-ও কার্যত স্বীকার করে নেন মুখ্যমন্ত্রী। বলেন,
  6. কোনও রাখঢাক না করে তা স্পষ্ট করে দিলেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। সোমবার হাওড়ার প্রশাসনিক বৈঠকে মুখ্যমন্ত্রী বলেন, “একটা টিচার যদি বলে স্ট্রাইক করব, কালো ব্যাজ পরব, তাহলে বাচ্চারা কী শিখবে? শিক্ষকদের সম্মান করি। কিন্তু ওরা কী ভাবে? লাফিয়ে লাফিয়ে মাইনে বাড়বে?” পার্শ্ব শিক্ষকদের রাস্তায় নেমে আন্দোলন করা নিয়ে যে তিনি রুষ্ট, ওঁদের দাবিকে তিনি যে অযৌক্তিক মনে করেন.
Show More

Related Articles

Back to top button
%d bloggers like this: