Nation

বিপক্ষের চাপে অমিত শাহ : বক্তব্য রাখছেন লোকসভায়

ভিডিও সৌজন্যে :- লোকসভা টিভি

জওহরলাল নেহরুই জম্মু-কাশ্মীরের সমস্যার কারণ, বিস্ফোরক ব্যাখ্যা করলেন স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীর
নির্বাচন করাতে বিজেপি সরকার সবসময় প্রস্তুত জম্মু-কাশ্মীরে এই প্রশ্নে অমিত শাহ জানান,

১) জম্মু-কাশ্মীর সংরক্ষণ আইন ২০০৪ সংশোধনী প্রস্তাব পেশ করেন স্বরাষ্ট্র মন্ত্রী অমিত শাহ
২) পরিস্থিতির কথা বিচার করেই আরও ৬ মাস রাষ্ট্রপতি শাসন কার্যকর করা হবে জম্মু-কাশ্মীরে
৩) কংগ্রেসকে কটাক্ষ করে অমিত শাহের অভিযোগ, ৭০ বছরে ৯৩ বার রাষ্ট্রপতি শাসন জারি হয়েছে সেখানে
৪) তারা এই সরকারে বিরুদ্ধে শ্বাসরোধ করার অভিযোগ তোলে কীভাবে? তাঁর কথায়, গত পাঁচ বছরে জম্মু-কাশ্মীরে সন্ত্রাসবাদ নিয়ে ‘জিরো-টলারেন্স’ ভূমিকা নিয়েছে মোদী সরকার। উপত্যাকায় তরুণ প্রজন্মের মধ্যে ভারত বিরোধী এজেন্ডা ঢুকিয়ে দেওয়ার যে চেষ্টা চলেছে, তা কড়া হাতে দমন করেছে সরকার।
৫) রাজনৈতিক ফায়দা পেতে কখনওই ৩৫৬ অনুচ্ছেদ প্রয়োগ করেনি এ সরকার।
৬) জম্মু-কাশ্মীরে নির্বাচন কবে হবে তা জানতে সরব হন বিরোধীরা।
৭) নির্বাচন করাতে বিজেপি সরকার সবসময় প্রস্তুত। নির্বাচন কমিশন যবে সিদ্ধান্ত নেবে, সেই দিনই নির্বাচন হবে জম্মু-কাশ্মীরে।
৮) অমিত শাহ কাশ্মীরের সমস্যার জন্যদায়ী করেন দেশের প্রথম প্রধানমন্ত্রী জওহরলাল নেহরুকেই।
৯) স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী সর্দার বল্লভভাই প্যাটেলের উপর কখনওই তিনি ভরসা রাখতে পারেননি
১০) স্বাধীনতার পর যে সব রাজ্য রাজাদের অধীনে ছিল, তা ভারতের অন্তর্ভুক্ত করতে দায়িত্ব বর্তায় সর্দার বল্লভভাই প্যাটেলের উপর। কিন্তু জম্মু-কাশ্মীর বিষয়টি দেখছিলেন খোদ জওহরলাল নেহরু। সেখানেই একমাত্র ৩৭০ অনুচ্ছেদ প্রয়োগ করা হয়েছে।
১১) এক দেশ, এক আইন নিয়ে যখন বিপক্ষ নেতা শ্যামাপ্রসাদ মুখোপাধ্যায় জম্মু-কাশ্মীরে যান, সেখানে তাঁকে জেলবন্দি করে তত্কালীন শেখ আবদুল্লা সরকার। জেলের মধ্যেই তাঁর মৃত্যু হয়। কংগ্রেসকেই কাঠগড়ায় দাঁড় করান স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী।
১২) ১৯৩১ সালে ন্যাশনাল কনফারেন্স তৈরি হয়। সেখানে কংগ্রেস নিজেদের প্রভাব বিস্তার না করে ন্যাশনাল কনফারেন্সকে সমর্থন দেয়। স্বাধীনতার পর থেকেই এই দল জম্মু-কাশ্মীরে ক্ষমতায় ছিল। প্রশাসনিক কাজে কংগ্রেস কখনওই নাক গলায়নি বলে দাবি অমিত শাহের।
১৩) কাশ্মীরি সংস্কৃতি প্রসঙ্গে অমিত শাহ সাফ জানান, ইনসানিয়ত, কাশ্মীরিয়ত এখানে অটুট রয়েছে। কাশ্মীরের সংস্কৃতি রক্ষায় দায়বদ্ধ এ সরকার। তিনি বলেন, “আমরা টুকরো টুকরো দল নই, জম্মু-কাশ্মীরে মানুষের বিরুদ্ধে নই। যারা সন্ত্রাসবাদে মদত দেয়, ভারত বিরোধী ভাবনা পোষণ করে, সরকার তাদের বিরুদ্ধে।”

Show More

OpinionTimes

Bangla news online portal.

Related Articles

Back to top button
%d bloggers like this: