Youth

লকডাউনে কাজ নেই, মাথায় সংসারের দায়িত্ব, অবসাদে আত্মঘাতী যুবক

ছেলের মৃত্যু সংবাদ মানতে না পেরে, আত্মঘাতী বৃদ্ধ বাবাও

দেবশ্রী কয়াল : মারণ করোনার জেরে, দীর্ঘ ২ মাস ধরে সারা দেশ জুড়ে চলে লকডাউন। এদিকে করোনার কামড়ে যখন মানুষ মারা যাচ্ছে, তখন কিন্তু লকডাউন ও কেড়ে নিচ্ছে অনেকের জীবন। এখন চলছে আনলক ২ পর্ব। পুরানো ছন্দে ফিররছেন মানুষ। কিন্তু সবাইকে আদেও ফিরতে পারছেন তাঁদের জীবনে ? উত্তরে আসছে না। বহু মানুষ হারিয়েছে কাজ। অনেকের এখন রোজগার বন্ধ, করোনা পরিস্থিতিতে কাজ শুরু করতে চায় না অনেকেই। আর তাতেই পকেটে পড়ছে টান। তার উপরে যে হারের বাজারের দাম বাড়ছে তাতে সংসার চালাতে গেয়ে রীতিমত নাজেহাল হচ্ছেন মানুষ। আর তার জেরেই অনেকে বেছে নিচ্ছে আত্মহত্যার মতো কঠিন পথ। একদিকে করোনা যেমন মানুষের প্রাণ কাড়ছে, তেমনি প্রাণ কাড়ছে লকডাউন।

এমনিতেই অভাবের সংসার। তার উপর লকডাউনে হারিয়েছে কাজ। ফলে সংসার সামলানো কার্যত দায় হয়ে দাঁড়িয়েছিল নবদ্বীপের যুবকের কাছে। একদিকে চাকরি নেই, অপরদিকে সংসারের দায়িত্ব, দুইয়ের টানাপোড়নে অবসাদে ভুগতে শুরু করেছিলেন যুবক। আর সেই অবসাদের জেরেই বিষ খেয়ে ‘আত্মহত্যা’ করলেন ওই যুবক। ছেলের মৃত্যু সংবাদ পেয়ে তা সহ্য করতে পারেনি বাবা, খবর শুনে আত্মঘাতী হন তাঁর বাবাও।

জানা যাচ্ছে, নদিয়ার নবদ্বীপের বাসিন্দা ওই যুবকের নাম দীপঙ্কর মালাকার। এক হোটেলে কাজ করতেন তিনি। এদিকে লকডাউনে কাজ চলে যাওয়ায় বাড়ি ফিরে আসেন ওই যুবক। বন্ধ হয়েগেছিল রোজগার। ফলে সংসার খরচ, বাবা-মায়ের চিকিত্‍সার খরচ কীভাবে জোগাড় হবে তা বুঝতে পারছিলেন না ওই যুবক। এই নিয়ে চরম অবসাদে ভুগছিলেন তিনি। শেষমেশ কোনো উপায় না পেয়ে এই কঠিন পরিস্থিতিতে তিন দিন আগে বিষ খেয়ে আত্মহত্যার চেষ্টা করেন দীপঙ্কর। তিনি অসুস্থ হয়ে পড়তেই পরিবারের সদস্যরা তাঁকে হাসপাতালে নিয়ে যায়। দুদিন লড়াই চালাতে সক্ষম হলেও, শেষ পর্যন্ত মৃত্যুর কাছে হেরে যান যুবক।

এদিকে দীপঙ্করের মৃত্যুর খবর পাওয়া মাত্রই অদ্ভুত ভাবে চুপ হয়ে যান তাঁর বাবা। কান্নাকাটিও করেননি তিনি। ঘটনার ঘণ্টাখানেকের মধ্যেই ঘর থেকে মেলে বৃদ্ধের ঝুলন্ত দেহ। প্রতিবেশীদের কথায়, অনেক কষ্ট করে ছেলেকে বড় করেছিলেন ওই বৃদ্ধ। অর্থাভাব থাকলেও সুখী ছিলেন তাঁরা। কিন্তু ছেলের এই নির্মম পরিণতি কিছুতেই মানতে পারেননি তিনি। সেই কারণেই এই চরম সিদ্ধান্ত।

Tags
Show More

Related Articles

Back to top button
Close
Close
%d bloggers like this: