Education Opinion

আর নয় বাড়তি ফি, বেসরকারি স্কুলকে নির্দেশ রাজ্য সরকারের

লকডাউনে দিতে হবে মানবিকতার পরিচয়, কারোর উপর চাপানো যাবে না জরিমানা

দেবশ্রী কয়াল : লকডাউনে অনেকেরই গেছে চাকরি। আবার অনেকেই পাননি তাঁদের বকেয়া মেইন। আনলক ২ পর্বে বেশ অনেক অফিস খুলে গেলেও এখনও অনেকেই বাড়ি থেকেই কাজ করাচ্ছে কর্মচারীদের। এই লকডাউনে যখন পকেটে পড়েছে টান, তখন অনেক গুলি বেসরকারি স্কুল বাড়িয়েছিল তাদের ফী। আর তাতেই বিক্ষোভ দেখিয়েছিল অভিভাবকেরা। তবে এবারে বেসরকারি স্কুলগুলির ফি সমস্যা সমাধানে কড়া পদক্ষেপ নিল রাজ্য সরকার।

এদিন নির্দেশিকা জারি করে স্কুল শিক্ষা দফতর জানিয়ে দিল, টিউশন ফি ছাড়া আর কোন কোন ফি স্কুল কর্তৃপক্ষ এখন নিতে নিতে পারবে না। আর এই নির্দেশিকা যদি কোনো স্কুল অমান্য করে তাহলে সেক্ষেত্রে কড়া ব্যবস্থা নেওয়া হবে বলে জানিয়েছে স্কুল শিক্ষা দফতর।

নির্দেশিকায় স্পষ্টত জানানো হয়েছে, পরিবহণ, কম্পিউটার ল্যাব, লাইব্রেরি ফি নেওয়া যাবে না। এর পাশাপাশি কোনও ফি বৃদ্ধি করা যাবে না। অনলাইন ক্লাস থেকে বাদও দেওয়া যাবে না পড়ুয়াদের। এছাড়া কোনও পড়ুয়ার যদি ফি দিতে দেরি হলে তা মানবিকতার সঙ্গে বিচার করতে হবে। কারোর উপরেই জরিমানা চাপিয়ে দেওয়া চলবে না। এই কঠিন পরিস্থিতিতে সবাইকে সকলের দিকটা বুঝে চলতে হবে। মানবিকতার পরিচয় দিয়েই সকল সিদ্ধান্ত নিতে হবে।

সারা রাজ্য তথা সারা দেশ লকডাউনে কঠিন পরিস্থিতির মধ্যে দিয়ে যাচ্ছে। করোনা সংক্রমণ রুখতে দীর্ঘ কয়েকমাস ধরে বন্ধ রয়েছে সকল শিক্ষা প্রতিষ্ঠান। আর এই পরিস্থিতিতে অভিভাবকরা টিউশন ফি ছাড়া অন্য কোনও ফি দেবেন না, বলে দাবি জানান। যেভাবে হটাৎ করেই স্কুলের ফি বাড়ানো হয়েছিল তাতে একপ্রকার মাথায় হাত পড়ে গেছিল অভিভাবকদের। আর তার জেরেই তারা বিক্ষোভে সামিল হন। এই বিষয়ে মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় এবং শিক্ষামন্ত্রী পার্থ চট্টোপাধ্যায়কে তাঁরা চিঠিও দিয়েছেন। মুখ্যমন্ত্রী এবং শিক্ষামন্ত্রী দুজনেই স্কুল কর্তৃপক্ষের কাছে ফি না বাড়ানোর আর্জি জানিয়েছেন।

কিন্তু তাতেও পরিস্থিতি ঠিক হয় না। এরপর শিক্ষামন্ত্রী পার্থ চট্টোপাধ্যায়ের আর্জি মেনে কিছু স্কুল বর্ধিত ফি কমায়। কিন্তু অভিযোগ ওঠে, কয়েকটি স্কুল এখনও ফি কমানোর বিষয়ে সিদ্ধান্ত নেয়নি। এমনকি কোনও কোনও স্কুল নির্দিষ্ট সময়ের মধ্যে ফি জমা না দিলে জরিমানা নেওয়ার কথাও বলেছে বলে। সম্প্রতি অভিভাবকদের একটি সংগঠন ‘ইউনাইটেড গার্ডিয়ান্স অ্যাসোসিয়েশন’-এর তরফে এব্যাপারে ক্রেতা সুরক্ষা দফতরকে চিঠি দেওয়া হয়। তবে এবারে রাজ্য সরকারের এই নির্দেশিকা জারির পর যে পরিস্থিতি স্বাভাবিক পর্যায়ে আসবে তা আশা করা হচ্ছে।

Tags
Show More

Related Articles

Back to top button
Close
Close
%d bloggers like this: