Foods

কোরোনার কারণে বাইরের খাওয়ার খেতে ভয় পাচ্ছেন ?বাড়িতে বানিয়ে ফেলুন লোভনীয়ও চিকেন বিরিয়ানি

বিরিয়ানি বানানো মানেই ঝক্কি ?না এবার সহজ উপায় শিখেনিন বাড়িতে চিকেন বিরিয়ানি বানানোর রেসিপি

চৈতালি বর্মন : চিকেন কার না প্রিয়ও বলুন আর বিরিয়ানি(Biryani)র কথা আর বলাম না। বিরিয়ানি এমনই একটা জিনিস যেটা সবার কাছেই খুবই লোভনীয়ও। আর শীতকাল মানেই বাঙালির কাছে কব্জি ডুবিয়ে খাওয়ার মরশুম। আর তার মধ্যে কয়েকদিন পরেই নববর্ষ। আর সেইদিনটা সবাই খুব খুশি ভাবেই কাটাতে চাই আর তার সঙ্গে একটা ভালো রান্না তো করতেই হবে। তবে বাড়িতে বিরিয়ানি বানানো মানেই হাজার ঝক্কি। মশলা বানাও, জলের মধ্যে হাঁড়ি বসিয়ে স্টিম করো, এত ঝামেলার জন্যেই অনেকেই বাড়িতে না বানিয়ে একবারে কিনেই নিয়ে আসেন।কিন্তু আপনি একবার সহজ উপায়টা শিখে ফেললে আর সমস্যা নেই! আরাম করে মন ভরে খাওয়াও যাবে, খাওয়ানোও যাবে।

তাহলে চিকেন বিরিয়ানির জন্যে কী কী উপকরণ লাগবে, দেখে নিনঃবাসমতী চাল ৭০০ গ্রাম (বাড়ির ভাতের চালেও করা যাবে ), মুরগির মাংস দেড় কেজি, পেঁয়াজ কুচি ৪ টি বড় মতো, রসুন 8 কোয়া, কাঁচালঙ্কা, আদাবাটা ২ টেবিল চামচ, টক দই ৪ টেবিল চামচ, টক দই ৪ টেবিল চামচ, গোটা মশলা যেমন- লবঙ্গ, দারচিনি, এলাচ, জায়ফল, জয়িত্রী , ধনে পরিমাণ মতো, দুধে ভেজানো জাফরান। কামধেনু রঙ অল্প। দেশি ঘি ২ টেবিল চামচ ।প্রথমেই পেঁয়াজ কুচি করে দুধে খানিকটা সময় ভিজিয়ে রাখুন।ওদিকে কড়াইর তেল পুরো গরম হয়ে এলে পেঁয়াজ কুচিগুলি তুলে নিয়ে ভাজুন। পেঁয়াজ কুচিগুলো একদম বাদামি মুচমুচে হয়ে যাবে!এবার তৈরিঃপ্রথমে সব গোটা মশলা গুলো মিক্সিতে অথবা পাটায় পিষে নিন। এবার কাঁচালঙ্কা,পেঁয়াজ , রসুন এবং আদা মিক্সিতে পেষ্ট করুন। এরপর গুড় মশলাগুলো টকদই –এ ফেটিয়ে রেখে দিন।এরপর মুরগির মাংসের মধ্যে সব বাটা মশলা এবং -গুঁড়ো মশলা মেশানো টক দই, নুন-চিনি দিয়ে ভালো করে মেরিনেট করুন। মনে রাখতে হবে, মাংস অর্ধেক রান্না হয় মেরিনেটের ওপর! মেরিনেটের সময় জল দেবেন না।এবার মেরিনেট করা মাংস এবং গোটা আলুগুলো প্রেসার কুকারে দিয়ে ২/ ৩ টি সিটি দিন। আঁচ হালকা রাখতে হবে।মাংসের পর্বের পর বিরিয়ানি ভাতঃচাল প্রায় এক ঘণ্টা জলে ভিজিয়ে রাখুন। এবার একটিপাত্রে জল পুরো ফুটান।এবং সেখানে ভিজিয়ে রাখা চালগুলো থেকে জল ঝরিয়ে চালগুলো ওখানে দিয়ে দিন। এবং এর সঙ্গেই দিন তেজপাতা ও নুন।চাল যতটুকু জলও সে পরিমাপ মতো। ভাতটা পুরো নরম করবেন না, একটু শক্ত থাকতে থাকতেই নামিয়ে নিন।ভাতের জল খুব ভালোভাবে ঝরিয়ে নিন এবার। এবার সেই দুধে ভেজানো জাফরান দিয়ে ভাত একটু ঝাঁকিয়ে নিন।

এবার হল লেয়ার বানানোর পর্ব : একটি পাত্রে প্রথমত আন্দাজ মতো ভাত দিন। এরপর রান্না করা মুরগির মাংসের কয়েক টুকরো, আলু এরপর পেঁয়াজ ভাজা ছড়িয়ে দিন।আবার এই একইভাবে লেয়ার বানান।সব হয়ে গেলে কেওড়ার জল ছড়িয়ে দিন। এরপর ২ টেবিল চামচ দেশী ঘি দিয়ে ঢাকা দিয়ে রেখে দিন।এবার এল আসলঃউপরোক্ত পর্যায়গুলো শেষ হওয়ার পর উনুনে একটা তাওয়া অথবা একটি ফুটন্ত জলের পাত্রের উপর বিরিয়ানির পাত্রটি বসিয়ে রাখতে হবে ২০ থেকে ২৫ মিনিটের মতো।অবশ্যই মনে রাখতে হবে বিরিয়ানির পাত্রের ঢাকনা যেন ভালভাবে বন্ধ থাকে।এবার উপরে বাকি পেঁয়াজ ভাজাগুলো ছড়িয়ে, একটা সিদ্ধ ডিম অর্ধেক করে কেটে সাজিয়ে সুন্দর করে পরিবেশন করুন।

Show More

Related Articles

Leave a Reply

Back to top button
%d bloggers like this: