Big Story

” কেঁচো খুঁড়তে কেউটে ” বেরোনোর ভয়ে নেতাজি রহস্যের সমাধানে নারাজ কেন্দ্র- তৃণমূল মুখপাত্র

অনেক গবেষকই বলছেন, কেঁচো খুঁড়তে কেউটে বেরোনোর ভয়।’

তিয়াসা মিত্র : সাম্প্রতিক একটি বিষয়ে গোটা বাংলা তথা ভারতের রাজনৈতিক মহলের চর্চার বিষয়ে ” সুভাষ চন্দ্র ” নেতাজি রহস্য আসলে কি তা সম্পর্কে আগ্রহী নয় এমন মানুষ কম আছে , আর সেই বিষয়কে কেন্দ্র করে তৃণমূল নেত্রী মমতা বন্দোপাধ্যায় বলেন, ” নেতাজি-রহস্য উদ্‌ঘাটনে উদ্যোগী নয় মোদী সরকার ” আর সেই সূত্র ধরেই আবার তৃণমূলের মুখপাত্র একই কথা বলেন। লেখা হল, ‘কেঁচো খুঁড়তে কেউটে’ বেরোনোর ভয়েই নেতাজি রহস্যভেদে আগ্রহ নেই দিল্লির

সোমবার ঠিক করা হয় রাজ্য স্কুলের বাংলা পাঠপুস্তকের মধ্যে যোগ করা হবে ভারতের প্রথম প্রধানমন্ত্রী হিসেবে নেতাজি সুভাষচন্দ্র বসুর নাম। এই কথা জানালেন শিক্ষা মন্ত্রী ব্রাত্য বসু। তিনি বলেন, ‘‘১৯৪৩ সালে নেতাজি দক্ষিণ-পূর্ব এশিয়াতে শপথ নেন প্রধানমন্ত্রী হিসাবে। মাথায় রাখতে হবে, সেই সময় অখণ্ড ভারতবর্ষ ছিল। পরাধীন অখণ্ড ভারতবর্ষ। উপনিবেশকালে এটি তিনি করেছিলেন। নিজের ক্যাবিনেট গঠন করেছিলেন। এটি সিলেবাসে যাওয়ার ক্ষেত্রে কোনও রাজনৈতিক বা সময়কালীন কোনও প্রশ্ন আছে কি না, সেটা আমরা সিলেবাস কমিটিকে বিবেচনা করতে বলব।’’ পর দিন সকালেই শিক্ষামন্ত্রীর এই সিদ্ধান্তের ভূয়সী প্রশংসা করে সম্পাদকীয় লিখেছে রাজ্যের শাসক দলের মুখপত্র। এর পরই সম্পাদকীয়তে সরাসরি আক্রমণ করা হয়েছে দিল্লির মোদী সরকারকে।

বলা হয়েছে, নেতাজি সংক্রান্ত কোনও ফাইল প্রকাশ্যে আনার আগেই কেন্দ্রের সরকার বলে দেয়, তা স্পর্শকাতর। সম্পাদকয়ীয় স্তম্ভে লেখা হয়েছে, ‘কেন্দ্রীয় সরকার আহাম্মক হতে পারে, ভারতবর্ষের মানুষ নন।’ তৃণমূলের মুখপত্রের সম্পাদকীয়তে যুক্তি দেওয়া হয়েছে, ‘প্রায় আশি বছর আগের ঘটনার পর পৃথিবীর মানচিত্রটাই বদলে গিয়েছে। অনেক গবেষকই বলছেন, কেঁচো খুঁড়তে কেউটে বেরোনোর ভয়।’

Show More

OpinionTimes

Bangla news online portal.

Related Articles

Leave a Reply

Back to top button
%d bloggers like this: