Big StoryHealth

সর্বনিম্ন সংক্রমণ, তবুও তৃতীয় ঢেউ এর আশংকায় চিকিৎসকরা

তৃতীয় ঢেউ যেমন ক্ষতি করবে প্রাপ্তবয়স্কদের তেমনি আছড়ে পড়বে শিশুদের ওপরেও

মধুরিমা সেনগুপ্ত: দীর্ঘ কয়েকদিন যাবত করোনার গ্রাফে ওঠা নামা লক্ষ্য করা গেছে যা সত্যিই চিকিৎসকদের কপালে চিন্তার ভাঁজ ফেলেছিলো। আর তার মধ্যেই তৃতীয় দেয়া আসন্ন। সব মিলিয়ে উদ্বেগজনক পরিস্থিতি সৃষ্টি হয়েছিল এই অতিমারীকে ঘিরে। তবে এদিন কিছুটা স্বস্তি মিললো উদ্বেগজনক পরিস্থিতি থেকে। কারণ দেশে করোনা সংক্রমণ আজ তুলনামূলক কম বলে সূত্রের খবর। দৈনিক আক্রান্তের সংখ্যাটা গত কয়েকদিন যাবৎ ৩০-৪০ হাজারের মধ্যে থাকলেও আজ সংখ্যাটা তার থেকেও কম, যা নিঃসন্দেহে স্বস্তির কারণ।

সর্বশেষ পাওয়া তথ্য অনুযায়ী, গত ২৪ ঘণ্টায় দেশে কোভিড আক্রান্তের সংখ্যা ২৫ হাজার ৭২ জন, কোভিডে মৃতের সংখ্যা ৩৮৯ জন এবং একদিনে সুস্থ হয়েছেন ৪৪ হাজার ১৫৭ জন। এই মুহূর্তে দেশে সক্রিয় রোগীর সংখ্যা ৩ লক্ষ ৩৩ হাজার ৯২৪ জন। এই নিয়ে, দেশের মোট করোনা আক্রান্তের সংখ্যা এসে দাঁড়িয়েছে ৩ কোটি ২৪ লক্ষ ৪৯ হাজার ৩০৬ জন এবং মোট সুস্থের সংখ্যা ৩ কোটি ১৬ লক্ষ ৮০ হাজার ৬২৬ জন। দেশে মোট মৃত্যু হয়েছে ৪ লক্ষ ৩৪ হাজার ৭৫৬ জনের। দেশে মোট টিকা পেয়েছেন ৫৮ কোটি ২৫ লক্ষ ৪৯ হাজার ৫৯৫ জন।

তুলনামূলক কম আক্রান্তের সংখ্যা কিছুটা স্বস্তি দিলেও বিজ্ঞানীরা এবং চিকিৎসকরা বারবার সাবধান করছেন যে তৃতীয় ঢেউ ইতিমধ্যেই ঘাড়ে নিঃশ্বাস ফেলছে এবং অক্টোবর মাসেই সর্বাত্মক সংক্রমণ বৃদ্ধি ঘটবে। এই সর্বগ্রাসী তৃতীয় ঢেউ থেকে রেহাই পাবেন শিশুরাও। কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্র মন্ত্রকের নির্দেশে জাতীয় বিপর্যয় মোকাবিলা কর্তৃপক্ষ দ্বারা যে কমিটি গঠন হয়েছিল তারই রিপোর্টে জানা যাচ্ছে, করোনার ডেল্টা স্ট্রেনের প্রকোপ যেমন ক্ষতিগ্রস্ত করবে প্রাপ্তবয়স্কদের তেমনি তার ঢেউ আছড়ে পড়বে শিশুদের ওপরেও। তবে সব থেকে বেশি চিন্তা সেইসব শিশুদের নিয়ে যাদের কোমর্বিডিটি রয়েছে। আশংকা অনুযায়ী সত্যিই যদি অক্টোবরে তৃতীয় ঢেউ আছড়ে পরে তবে পরিস্থিতি কতটা ভয়াবহ হবে তা ভেবে আটকে উঠছেন অনেকেই। যদিও বিশেষজ্ঞরা মনে করছেন অক্টোবরের আগেই যদি দেশের অধিকাংশ জনগণ টীকাগ্রহন করেন তবে পরিস্থিতি হয়তো কিছুটা হলেও সামাল দেওয়া যাবে।

Show More

Related Articles

Leave a Reply

Back to top button
%d bloggers like this: