West Bengal

রোগীকে আটকে রেখেই হাসপাতালের বিল বাড়াচ্ছে আমরি হাসপাতাল, উঠল ঘোরতর অভিযোগ

ক্ষুব্ধ রোগীর পরিবারের বক্তব্য, করোনা কারন দেখিয়ে রোগীকে আটকে রাখছে কর্তৃপক্ষ, সবই বিল বাড়ানোর ছক

দেবশ্রী কয়াল : কোনোমতেই কমছে না বেসরকারি হাসপাতাল গুলোর দৌরাত্ম। বারবার উঠছে তাদের বিরুদ্ধে ঘোরতর অভিযোগ। রাজ্য সরকারের তরফ থেকে নির্দেশিকা জারির পরেও একপ্রকার জোর জুলুমি চালিয়ে যাচ্ছে তারা। কলকাতা তথা রাজ্যের বুকে একশ্রেনীর ব্রান্ডেড বেসরকারি হাসপাতালের চূড়ান্ত অমানবিক ও তুঘলকিপনা আচরণ বন্ধ আর হচ্ছে না। আর এবারও অভিযোগ উঠল এক নামী বেসরকারি হাসপাতালের বিরুদ্ধে। অভিযোগ ওই বেসরকারি হাসপাতালটি, রোগীকে আটকে রেখেই বাড়িয়ে যাচ্ছিল বিলের অঙ্ক। ক্ষুব্ধ রোগী পরিবারের সদস্যরা ইতিমধ্যেই বিষয়টি পূর্ব যাদবপুর থানায় জানিয়ে অভিযোগও দায়ের করেছেন।

রোগির পরিবার অভিযোগ করে জানিয়েছেন, তাঁদের আত্মীয় ডালিয়া সেন(৪৮) বরাহনগরের বাসিন্দা। গত কয়েকদিন ধরেই তিনি কিডনির সমস্যায় ভুগছেন। গত ২৩শে আগস্ট তাঁকে চিকিত্‍সার জন্য বরাহনগরের একটি নার্সিংহোমে ভর্তি করা হয়। সেখানে তাঁর করোনা পরীক্ষা করা হলে রিপোর্ট নেগেটিভ আসে। এরপর ২৪ আগস্ট তাঁকে মুকুন্দপুরের আমরি হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। সেখানেও ২৫ আগস্ট ডালিয়া দেবির করোনা পরীক্ষা করা হলে তাঁর রিপোর্ট নেগেটিভ আসে। তারপর থেকে ওই হাসপাতালে তাঁর মোট আটবার ডায়ালিসিস হয়। এদিকে হঠাত্‍ করে বুধবার হাসপাতালের তরফে পরিবারের সদস্যদের জানানো হয় ডালিয়া দেবী করোনা পজেটিভ। এরপরই ওই ঘটনায় ক্ষোভে ফেটে পড়েন রোগীর পরিবারের সদস্যরা।

রোগীর পরিবারের সদস্যের অভিযোগ, কিছুদিন আগেই একই হাসপাতালে রোগীর রিপোর্ট নেগেটিভ ছিল, তাহলে তার রিপোর্ট কি করে পজিটিভ হয়ে যায়? তাঁদের বক্তব্য রোগীকে ইচ্ছাকৃতভাবে আটকে রেখে বিল বাড়ানোর চেষ্টা করছে আমরি হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ। তাঁদের সন্দেহ ইচ্ছাকৃত ভাবে ওই হাসপাতাল সাধারন রোগীকে কোনও ভাবে করোনা সংক্রমণ করে এই ভাবে রোগী আটকে রেখে হাসপাতালের বিল বাড়াচ্ছে। যদিও এই বিষয়ে আমরি হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ এখনও কোনো প্রতিক্রিয়া জানায়নি।

Tags
Show More

Related Articles

Leave a Reply

Back to top button
Close
Close
%d bloggers like this: