Big StoryEconomy FinanceWest Bengal

আখরোট জাফরান ফলনে নয়া উদ্যোগ রাজ্যের উত্তরে

এখন সরকারের পাখির চোখ দৈনন্দিন সবজি ফলনের দিকে

তিয়াসা মিত্র : রীতিমতো পরীক্ষা মূলক ভাবে পাহাড়ের গায়ে জাফরান চাষ করা হচ্ছে। বিদেশি ফল ফলানোর প্রকল্প চলার পরে কার্শিয়াঙের মাটি তে বসানো হয়েছ আখরোট গাছের চারা। কারণ একটাই রাজ্যের চাহিদা অনুযায়ী জনগণ তাদের দ্রব্য পাচ্ছে না বা পেলেও তা চড়া দামে চোরা পথে রপ্তানি হচ্ছে। এই বিষয়ের দিকে নজর রেখে পশ্চিমবঙ্গ খাদ্যপ্রক্রিয়াকরণ ও উদ্যানপালন দফতর।

বুধবার ভারত চেম্বারে এক সভায় এই দপ্তর গুলির মন্ত্রী সুব্রত সাহা এবং দফতরের প্রধান তথা রাজ্যের অতিরিক্ত মুখ্য সচিব সুব্রত গুপ্তর দাবি, রোজকার জীবনে জরুরি কৃষিপণ্য হোক বা বিশেষ কিছু ফুল, ফল— অনেক কিছুই পশ্চিমবঙ্গকে অন্য রাজ্য বা অন্য দেশ থেকে বহুল পরিমাণে আমদানি করে প্রয়োজন মেটাতে হচ্ছে,যার মধ্যে অন্যতম জাফরান, ড্রাগন ফল, অ্যাভোকাডো, আখরোট, কাজু বাদাম, পেঁয়াজ ইত্যাদি। দপ্তর থেকে বলা হয়েছে, এ ভাবে সরবরাহ বাড়াতে পারলে ভবিষ্যতে খাদ্যপ্রক্রিয়াকরণ শিল্পে জোগান শৃঙ্খলও মজবুত করা যাবে। এই শিল্পের বিস্তারে আধুনিক হিমঘর, পরীক্ষাগার-সহ জরুরি নির্মাণে শিল্পকে পাশে থাকার ডাক দিয়েছেন মুক্ষসচিব।

সূত্রে জানা যাচ্ছে , নাগপুর থেকে কিছু বিশেষ ধরণের পেঁয়াজ এর চারাগাছ আনা হয়েছে এবং তা দেওয়া হয়েছে পশ্চিমবঙ্গের সাতটি জেলাতে চাষিদের হাতে , শোনা যাচ্ছে আগামী সাত মাসের মধ্যে মরশুম কালে বসানো হবে সেই চারা গাছ।

Show More

Related Articles

Leave a Reply

Back to top button
%d bloggers like this: