Big Story

তৃতীয় স্বামীর কাছে নিজের আনুগত্য প্রমানে বলি দিলেন দ্বিতীয় সন্তানের

১০ বছর বয়সি পবিত্রা সোমবার সকালে হাসপাতালে মারা যায়

তিয়াসা মিত্র : স্বামীর কাছে আনুগত্বটা প্রমানে নিজেরই মেয়েকে পুড়িয়ে মারলেন মহিলা। চেন্নাই-এর তিরুভোত্তিউরে রবিবার রাতে এই মর্মান্তিক ঘটনাটি ঘটেছে। ১০ বছর বয়সি পবিত্রা সোমবার সকালে হাসপাতালে মারা যায়। অভিযুক্ত মহিলার নাম জয়লক্ষ্মী এবং তার স্বামীর নাম পদ্মনাভন। পুলিশ সূত্রে খবর, পেশায় গাড়ির চালক পদ্মনাভন মাঝে মধ্যেই তার স্ত্রী জয়লক্ষ্মীর বিবাহ বহির্ভূত সম্পর্ক আছে বলে সন্দেহ করত। সে রবিবার রাতে মত্ত অবস্থায় বাড়ি ফিরে আসে এবং অশান্তি শুরু করে। এমনকি সে নিজের স্ত্রী-র আনুগত্য প্রমাণ করতে বলে।

পদ্মনাভন বলে, নিজের বিশ্বস্ততা প্রমাণ করতে সে যেন নিজের মেয়ের গায়ে আগুন লাগিয়ে দেয়। যদি জয়লক্ষ্মী বিশ্বস্ত হয়, তা হলে তার মেয়ের কিছু হবে না বলেও দাবি করেছিল পদ্মনাভন। এর পরই জয়লক্ষ্মী নিজের ঘুমন্ত মেয়েকে তুলে নিয়ে এসে তার গায়ে কেরোসিন ঢেলে আগুন লাগিয়ে দেয় । পবিত্রা-র চিৎকার শুনে প্রতিবেশীরা ছুটে আসে এবং অগ্নিদগ্ধ পবিত্রাকে স্থানীয় হাসপাতালে ভর্তি করেন। কিন্তু চিকিৎসকেরা তাকে ততক্ষনাৎ মৃত বলে ঘোষণা করেন। পুলিশ আরও জানিয়েছে যে পদ্মনাভন, পবিত্রা-র সৎ বাবা ছিলেন। মৃতা পবিত্রা, তার মা জয়লক্ষ্মী এবং সৎ বাবা পদ্মনাভন-এর সঙ্গে একই ঘরে বসবাস করতেন। জয়লক্ষ্মী, পদ্মনাভনের আগে আরও দু’জনকে বিয়ে করেছিলেন। জয়লক্ষ্মীর দ্বিতীয় পক্ষের সন্তান ছিল পবিত্রা।

Show More

OpinionTimes

Bangla news online portal.

Related Articles

Leave a Reply

Back to top button
%d bloggers like this: