Nation

প্যাসেঞ্জার ট্রেনের নতুন ‘জিরো বেসড’ টাইম টেবিল, বাদ যেতে পারে ৬০০ টি মেল ও এক্সপ্রেস ট্রেন

রেলমন্ত্রকের পরিকল্পনা অনুযায়ী, ৩৬০ টি প্যাসেঞ্জার ট্রেনকে মেল ও এক্সপ্রেস হিসাবে আপগ্রেড করা হবে। ১২০ টি মেল ও এক্সপ্রেস ট্রেনকে আপগ্রেড করা হবে সুপার ফাস্ট ট্রেন হিসাবে।

পল্লবী কুন্ডু : এবার নতুন টাইম টেবিলে চলবে প্যাসেঞ্জার ট্রেন। আর কয়েকমাসের মধ্যেই প্রকাশিত হবে প্যাসেঞ্জার ট্রেনের নতুন ‘জিরো বেসড’ টাইম টেবিল। গত বৃহস্পতিবার রেল বোর্ডের সিইও এবং চেয়ারম্যান ভি কে যাদব বলেন, দেশ জুড়ে ট্রেন চলাচল স্বাভাবিক হলেই নতুন টাইম টেবিল কার্যকরী হবে। এর আগেই জুলাই মাসের শুরুর দিকে খানিক আভাস পাওয়া গিয়েছিলো যে ট্রেন চলাচলের নয়া বিধি তৈরী হচ্ছে।
তাতে বাদ যেতে পারে ৬০০ টি মেল ও এক্সপ্রেস ট্রেন। বাদ দেওয়া হতে পারে ১০ হাজার ২০০ টি হল্ট। পাশাপাশি এটিও লক্ষিত হয়েছে যে, অতীতে প্যাসেঞ্জার ট্রেন(Passenger Train) যতক্ষণ অন্তর চলত, পরবর্তীকালে তা আর চলবে না।

রেলমন্ত্রকের(Ministry Of Railway) পরিকল্পনা অনুযায়ী, ৩৬০ টি প্যাসেঞ্জার ট্রেনকে মেল ও এক্সপ্রেস হিসাবে আপগ্রেড করা হবে। ১২০ টি মেল ও এক্সপ্রেস ট্রেনকে আপগ্রেড করা হবে সুপার ফাস্ট ট্রেন হিসাবে। সংশ্লিষ্ট বিষয় নিয়ে ভি কে যাদব বলেন, আইআইটি মুম্বইয়ের সহযোগিতায় প্যাসেঞ্জার ট্রেন চলাচলের নতুন নিয়ম তৈরি করা হচ্ছে। এর ফলে মালবাহী ট্রেন চলার জন্য ‘ডেডিকেটেড করিডোর’ তৈরি করা হবে। রেলের রক্ষণাবেক্ষণের জন্যও নির্দিষ্ট সময় বরাদ্দ থাকবে।

অন্যদিকে, ট্রেন চলাচলের নতুন বিধি তৈরি হলে রেলের আর্থিক অবস্থা আগের চেয়ে ভাল হবে বলে আশা করা হচ্ছে। গত কয়েক বছর ধরে প্যাসেঞ্জার ট্রেন চালাতে গিয়ে বিপুল ক্ষতির মুখে পড়ছে রেল। এদিকে, লকডাউনে পরিষেবা বন্ধের পর আনলক পর্বেও রেলের পক্ষ থেকে সাধারণ যাত্রীদের জন্য পরিষেবা চালু করতে পড়েনি রেল। ফলত রোজের যাত্রীদের দুর্ভোগ পোয়াতে হচ্ছে প্রতিদিন। একাধিক স্টেশনে এই নিয়ে বিক্ষোভে সামিল হচ্ছে সাধারণ যাত্রীরা। এ নিয়ে গত ১৫ দিনে সোনারপুর, হুগলি এবং লিলুয়ায় ধুন্ধুমার কাণ্ড বেঁধে গিয়েছিল। লিলুয়া স্টেশনে ব্যাপক ভাঙচুর চালায় জনতা। সমস্ত দিক বিবেচনা করেই রাজ্যকে চিঠি দিয়েছে কেন্দ্র। প্রতিউত্তরের জন্য অপেক্ষা করতে হবে সকলকেই।

Show More

Related Articles

Leave a Reply

Back to top button
%d bloggers like this: