Entertainment

রাধিকা-কর্ণের অফস্ক্রিন সম্পর্কের রসায়নের গভীরতা মাপতে সর্বদাই এগিয়ে অনুগামীরা

'ইসসে ম্যায় ক্যায়া কহুঁ?' সাথে সাথেই বিপরীত থেকে উত্তর 'ইয়ে লড়তা হ্যায়, ঝগড়তা হ্যায়, দিওয়ানা হ্যায়....'

পল্লবী কুন্ডু : সম্প্রতি জি-বাংলার পর্দায় সবচেয়ে জনপ্রিয় জুটির তালিকায় নাম উঠে এসেছে ক্রুশল-স্বস্তিকা ওরফে রাধিকা-কর্ণের(Radhika-Karna)। পর্দার পেছনে তাদের সম্পর্কের রসায়ন কতটা গভীর তা জানতে আগ্রহের শেষ নেই অনুরাগীদের। তাই এবার আবারো শিরোনামে উঠে আসলো তাদের নাম। ‘কী করে বলব তোমায়’ ধারাবাহিকে কর্ণ-রাধিকা যতটাই কাছাকাছি, সেটে ততটাই দূরে একে-ওপরের থেকে ! মানে ঠিক কি রকম আপনিও বুঝতে পারছেননা তাইনা। মানে এক্ষেত্রে ব্যাপারটা ঠিক ‘তু তু ম্যায় ম্যায়’।

আর তাদের দুস্টু-মিষ্টি সেই সম্পর্কের এক ঝলক এবার সামাজিক মাধ্যমে। সেই খুনসুটি ক্যামেরাবন্দি হয়ে সোশ্যাল মিডিয়াতেও ঘুরছে। একে অন্যের বিরুদ্ধে নালিশ নাকি খুনসুটি। ক্রুশল রীতিমতো ব্যঙ্গের সুরে বলছেন, ‘ইসসে ম্যায় ক্যায়া কহুঁ?’ সাথে সাথেই বিপরীত থেকে উত্তর ‘ইয়ে লড়তা হ্যায়, ঝগড়তা হ্যায়, দিওয়ানা হ্যায়….’ বলে। ছাড়ার পাত্র ক্রুশলও নন।

আর যদি কথা ব্যক্তিগত জীবন নিয়ে হয় তবে, স্বস্তিকার দাবি, ”ক্রুশলের সঙ্গে আমার কিচ্ছু নেই। ভাল বন্ধু আমরা, কমফোর্ট জোন একে অন্যের। কাজের প্রতি প্রচণ্ড মনোযোগী।” তা হলে সামাজিক মাধ্যমে এমন পোস্ট ? ‘কর্ণ-রাধিকা’র দাবি, ‘কুছ কুছ হোতা হ্যায়’-এর ফ্লেভার আবার রি-ক্রিয়েট করা যায় কি না, সেটাই দেখছিলেন তাঁরা। এই দুই জুটির খুনসুটি একেবারে জমে ক্ষির। যেমন অনস্ক্রিন ঠিক তেমনটাই অফস্ক্রিনে। আর তাদের এই সম্পর্ক যে কতটা দর্শকদের মন কেড়েছে তাতো বলে দিচ্ছে টিআরপি রেটিং-ই।

Show More

Related Articles

Leave a Reply

Back to top button
%d bloggers like this: