Nation

অপেক্ষা করতে হবে পরবর্তী শুনানির, তার আগের সকল পথ বন্ধ রাজস্থান কংগ্রেসের

শচীন ও তার বিধায়ক অনুগামীরাই এখন এগিয়ে, শুক্রবার শুনানি হাইকোর্টে

দেবশ্রী কয়াল : প্রশ্ন কার জয় হবে, আর সেই নিয়েই চলছে মামলা। তবে এবারে রাজস্থান হাইকোর্টের পর এবার সুপ্রিম কোর্টেও স্বস্তি সচিন পাইলটদের। সচিন পাইলট ও তাঁর অনুগামীদের বহিষ্কারের সিদ্ধান্ত আপাততভাবে রদের রায়কে চ্যালেঞ্জ করে বুধবার সুপ্রিম কোর্টে যান রাজস্থানের স্পিকার। আজ সর্বোচ্চ আদালতে ছিল শুনানি। সেখানে সুপ্রিম কোর্ট শুক্রবার রাজস্থান হাইকোর্টের রায় প্রদানে দিয়েছে সম্মতি। তবে শেষ রায় সুপ্রিম কোর্টই দেবে। তবে এই মুহূর্তে শুক্রবার হাইকোর্টের শুনানি পর্যন্ত অপেক্ষা করা ছাড়া কোনও উপায় রইল না রাজস্থান কংগ্রেসের।

শচীন এবং তাঁর অনুগামীদের বিধায়ক পদ থেকে কেন খারিজ করা হবে না, তা জানতে চেয়ে নোটিশ দিয়েছিলেন স্পিকার সিপি জোশি। আর এরপরেই হাইকোর্টে সেই নোটিশকে চ্যালেঞ্জ জানিয়ে ছিলেন সচিনরা। আজকের শুনানিতে বলা হয়, আগামী শুক্রবার সেই মামলার রায় ঘোষণা হবে। তবে তত দিন পর্যন্ত সচিন ও তার বিধায়কদের বিরুদ্ধে কোনও ব্যবস্থা নেওয়া যাবে না বলে নির্দেশ দেওয়া হয়েছে।

এরপরেই হাইকোর্টের এই নির্দেশের বিরুদ্ধেই সুপ্রিম কোর্টে যান স্পিকার জোশী। বিচারপতি অরুন মিশ্র, বিচারপতি বি আর গাওয়াই এবং কৃষ্ণ মুরারীর সমন্বয়ে গঠিত সুপ্রিম কোর্টের বেঞ্চ বলেছে, স্পিকারের আবেদনে গুরুত্বপূর্ণ প্রশ্ন উত্থাপন করা হয়েছে তবে তার জন্য দীর্ঘ শুনানির প্রয়োজন।

তবে রাজস্থান হাইকোর্টকে এই মালমার রায় দেওয়ার অনুমতি দেওয়ার নির্দেশ দিয়েছে শীর্ষ আদালত। স্পিকারের আবেদনের বিষয়ে পরবর্তী শুনানি ২৭ জুলাই নির্ধারণ করেছেন বিচারপতিরা। তাই এখন অপেক্ষা করা ছাড়া কোনো পথ খোলা নেই। তবে এত কিছুর পর, পুনরায় শচীনের কংগ্রেসে ফিরে আসা নিয়ে রয়েছে যথেষ্ট সংশয়। কারন আগের তুলনায় এই ঘটনা হয়ে উঠেছে আরও গুরুতর।

Tags
Show More

Related Articles

Back to top button
Close
Close
%d bloggers like this: