mamata banerjee

রেকর্ড সাফল্য, ৮ দিনে ‘দিদির দূত’ ব্যবহার করেছেন ১ লক্ষেরও বেশি

জেনে নিন কি কি আছে এই অ্যাপে

মধুরিমা সেনগুপ্ত: ভোটের মুখে জনসংযোগ বাড়াতে তৃণমূলের নয়া হাতিয়ার ‘দিদির দূত’। আর চালু হওয়ার ৮ দিনের মধ্যেই প্রায় ১ লক্ষ মানুষ ব্যবহার করেছেন ‘দিদির দূত’ অ্যাপটি। এই বিশেষ অ্যাপটি ডাউনলোড করে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের সঙ্গে সরাসরি যোগাযোগ করতে পারবে সাধারণ মানুষ। তৃণমূলের পক্ষে টুইটে সাফল্যের এই কথা তুলে ধরা হয়েছে।

চলতি মাসের ৪ তারিখে চালু হয় ‘দিদির দূত’ অ্যাপ। এই অ্যাপটির লঞ্চে মূলত তিনটি লক্ষ্য। প্রথমত, মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় সাধারণ মানুষের উন্নয়নের জন্য কী কাজ করেছেন তা মানুষকে জানানো। দ্বিতীয়ত, মানুষের যদি কোনও অভাব অভিযোগ থাকে তাহলে দিদির দূত ভ্যানে তৃণমূলের যে সকল নেতাকর্মীরা থাকবেন, তাঁরা সেই অভাব অভিযোগ শুনবেন। তৃতীয়ত, তৃণমূলের বিরুদ্ধে বিজেপি’র অপপ্রচারের জবাবও দিদির দূত ভ্যানের মধ্যে দিয়ে দেওয়া হবে। অ্যাপ ব্যবহারকারীরা সরাসরি দিদির সঙ্গে লাইভে যোগাযোগ করতে পারবেন। এছাড়াও ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে সরাসরি কথা বলা যাবে দিদির সঙ্গে। জনসংযোগ বানানোর জন্য যে এটি একটি দুর্দান্ত পদক্ষেপ তা এক কোথায় স্বীকার করে নিয়েছেন অনেকেই। বর্তমান সময় ডিজিটাল প্লাটফর্মের ছড়াছড়ি সর্বত্র। তাই ভোটের প্রচারে হাতিয়ার হিসেবে দিদির দূত অ্যাপটি
তৃণমূলের নয়া হাতিয়ার। ‘গুগল প্লে’ স্টোর থেকে অ্যাপটি ডাউনলোড করা যাচ্ছে।

তৃণমূল সূত্রে খবর, দলের যুব সভাপতি অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায় এদিন সোনারপুর উত্তর এবং দক্ষিণ থেকে এই অ্যাপের প্রচার করবেন। জনসংযোগ বাড়াতে ‘দিদির দূত’ নামে একটি প্রচারগাড়ি উদ্বোধন করা হতে পারে। সব জেলায় তৃণমূলনেত্রীর কথা ‘দূত’ হিসাবে পৌঁছে দেবে এই নয়া অ্যাপ।

এক নজরে জেনে নিন ঠিক কি কি রয়েছে এই অ্যাপে:
• এই অ্যাপে খবরের যে বিভাগ রয়েছে, সেখানে রাজ্য সরকারের বিভিন্ন উন্নয়নমূলক প্রকল্প সম্পর্কে উল্লখ করা হয়েছে।
• ইনফোগ্রাফিকের মাধ্যমে তুলে ধরা হয়েছে রাজ্য সরকারের বিভিন্ন সামাজিক ও উন্নয়নমূলক প্রকল্পের সূচক।
• গ্যালারি বিভাগে রয়েছে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের বিভিন্ন জনসভা ও কর্মসূচির ভিডিয়ো ও ছবি।
• এছাড়াও রয়েছে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের লড়াইয়ের ইতিহাস। রয়েছে নানাবিধ উদ্যোগের বিবরণ ও তৃণমূল সুপ্রিমোর সংক্ষিপ্ত ভিডিয়ো।
• নজেল স্টোরে গেলেই মিলবে রাজ্যের উন্নয়নের খতিয়ান।
• তৃণমূলের নানা কর্মসূচির হদিশও এখান থেকেই পাওয়া যাবে।
• তৃণমূল নেত্রীর উদ্দেশে কোনও পরামার্শ থাকলে ‘দিদির সাথে যুক্ত’ বিভাগে তা দেওয়া যাবে।
• এই অ্যাপে দেখা যাবে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের জনসভার লাইভ টেলিকাস্ট।
• জানানো যাবে অভিযোগও।

এই অ্যাপে রেজিস্ট্রেশন করার সময় আপনাকে কিছু তথ্য দিতে হবে। সেগুলি হল-
• নাম
• লিঙ্গ
• মোবাইল নম্বর
• ঠিকানা
• ইমেল অ্যাড্রেস
• জন্ম তারিখ
• আইডেনটিটি প্রুফ। যেমন- ভোটার আইডি/ ড্রাইভিং লাইসেন্স/ পারমানেন্ট অ্যাকাউন্ট নম্বর/ ব্যক্তিগত সোশ্যাল মিডিয়া প্লাটফর্মের বিস্তারিত বিবরণ।
• বিধানসভা কেন্দ্রের বিস্তারিত তথ্য।
• অন্যান্য তথ্য যা প্রত্যক্ষ বা অপ্রত্যক্ষভাবে আপনাকে চিহ্নিত করতে পারে।

Show More

Related Articles

Leave a Reply

Back to top button
%d bloggers like this: