HealthNation

সিরো সার্ভে করা হল রাজধানী জুড়ে, উঠে আসলো চাঞ্চল্যকর তথ্য

রিপোর্ট অনুযায়ী গত ৬ মাসে দিল্লির ২৩.৮৪ শতাংশ মানুষ করোনা আক্রান্ত হয়েছেন, কিন্তু নেই কোনোরকম উপসর্গ।

পল্লবী কুন্ডু : করোনা ভাইরাস, সময় বাড়ার সাথে সাথে মহা দানবীয় রূপ ধারণ করেছে। প্রতি মুহূর্তে ক্রমশ সঙ্কটের দিকে এগোচ্ছে পরিস্তিতি। এবার রাজধানী নিয়ে একটি সিরো সার্ভে করা হলে। তার রিপোর্টে উঠে আসে এক চাঞ্চল্যকর তথ্য। এই রিপোর্ট অনুযায়ী গত ৬ মাসে দিল্লির ২৩.৮৪ শতাংশ মানুষ করোনা আক্রান্ত হয়েছেন। কিন্তু আশ্চর্যের বিষয় এই যে এই মানুষ গুলোর মধ্যে সামান্যতম সংক্রমণ টুকু লক্ষিত হয়নি।২৭ জুন থেকে ১০ জুলাই পর্যন্ত সিরো সার্ভে -তে ২১,৩৮৭ টি স্যাম্পেল নিয়ে সার্ভে করা হয়েছিল। এঁদের বেশিরভাগের মধ্যেই করোনার কোনও লক্ষণ ছিল না।

কেন্দ্রীয় স্বাস্থ্যমন্ত্রকের দাবি, মানুষের মধ্যে যে পরিমাণ দ্রুততার সঙ্গে করোনা ভাইরাস ছড়িয়ে পড়ছে সেটা মাথায় রেখেই সিরো সার্ভে করানো হয়েছিল । দিল্লির ১১ টি জেলাতেই সার্ভে করানো হয়েছিল। এই সার্ভের সময় লোকের বাড়ি বাড়ি গিয়ে রক্তের নমুনা কালেক্ট করেছিল।আর তাতেই এই বিষয় সামনে আসে।তাঁদের মতে ২৩.৪৮ শতাংশ মানুষের রক্তে করোনা ভাইরাসের অ্যান্টিবডি তৈরি হয়ে গিয়েছে। এই সার্ভে প্রমাণ করল একটা বড় অংশের মানুষের ইতিমধ্যেই করোনা সংক্রমণ হয়ে গিয়েছে এবং তাঁরা অ্যাসিম্পটম্যাটিক থাকা অবস্থায় সেরে গিয়েছেন।পরীক্ষার পরেই বলা হচ্ছে দিল্লির জনসংখ্যা যদি ২ কোটি হয়, তাহলে ৪৭ শতাংশ মানুষ ইতিমধ্যেই করোনা ভাইরাস সংক্রমণের সংস্পর্শে এসেছেন।

রাজধানীর মতো একটি জনঘনত্ব এলাকায় সংক্রমণ এড়ানো অনেকটাই কঠিন। এই সার্ভেতে প্রমাণিত হয়েছে ফেস শিল্ড, মাস্কের ব্যবহার করলে এই রোগের সংক্রমণ অনেকটা কমানো যায়।যদি সাধারণ জনতা সচেতন হয় তবে বাঁচা যেতে পারে মহামারী করোনার হাত থেকে। সঠিক পদ্ধতিতে সাবধানতা অবলম্বন করলে অবশ্যই লড়া সম্ভব।

Tags
Show More

Related Articles

Back to top button
Close
Close
%d bloggers like this: