West Bengal

জল্পনা-কল্পনার অবসান রাজনৈতিক মহলে, ১৯ শে ডিসেম্বর দলবদল

আগামী ১৯ শে ডিসেম্বর অর্থ্যাৎ শনিবার বিজেপিতে যোগ দিতে চলেছেন শুভেন্দু অধিকারী

পল্লবী কুন্ডু : ধোঁয়াশা কাটলো রাজনৈতিক মহলে। অবসান সমস্ত জল্পনা-কল্পনার। সূত্র মারফত খবর, আগামী ১৯ শে ডিসেম্বর অর্থ্যাৎ শনিবার বিজেপিতে যোগ দিতে চলেছেন শুভেন্দু অধিকারী(Suvendu Adhikari)। উপস্থিত থাকবেন অমিত শাহ(Amit Shah)। শোনা যাচ্ছে, তাঁর উপস্থিতিতেই এদিন শুভেন্দুর অভিষেক ঘটবে ভারতীয় জনতা পার্টিতে। সূত্রের খবর যোগদানের আগে দিল্লিও যেতে পারেন শুভেন্দু অধিকারী। তার আগেই সেক্ষেত্রে শুভেন্দু ইস্তফা দেবেন বিধায়ক পদ থেকে। সেই ইস্তফা স্পিকার গ্রহণ করলেই সমাপ্তি ঘটবে শুভেন্দু-তৃণমূল সম্পর্কের।

শুভেন্দুর দলত্যাগ পদ্ধতি ছিল অত্যন্ত পর্যায়ক্রমিক ভাবে। গত ২৫ নভেম্বর তিনি প্রথমে ইস্তফা দেন হলদিয়া উন্নয়ন পর্ষদের চেয়ারম্যান পদ থেকে। ২০১১ সাল থেকে এই পদে বহাল ছিলেন শুভেন্দু। এর দুদিন পরেই ছাড়েন মন্ত্রীত্ব। ইস্তফাপত্র যায় কালীঘাটে, মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের বাসভবনে। ধাপে ধাপে প্রশাসনিক পদগুলি থেকে সরে দাঁড়ালেও শুভেন্দু তাঁর বিধায়ক পদটি ছাড়েননি। যদিও একদল ভাবছিলেন বিচ্ছেদ স্রেফ সময়ের অপেক্ষা, তৃণমূলের তরফে মতপার্থক্য দূর করার চেষ্টা করা হয়েছিল সর্বতো ভাবে। এদিকে শুভেন্দু নানা অরাজনৈতিক সভা থেকে জল্পনাই শুধু বাড়িয়েছেন।বলেছেন পান্তাভাত,মুড়ি খাওয়া ছেলেটা আদর্শের জন্য লড়ছে। কারও নাম না করেই বলেছেন, ফ্ল্যাটবাড়ির লোকজনদের অসুবিধে হচ্ছে।

ডিসেম্বরের প্রথম দিন শুভেন্দুর সঙ্গে বৈঠক করেন অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়। বৈঠকে হাজির ছিলেন সৌগত রায়, ভোটকুশলী প্রশান্তকিশোর, সুদীপ বন্দ্যোপাধ্যায়রা। তৃণমূল সাংসদ সৌগত রায় নিজে সাংবাদিকদের ডেকে জানান, বৈঠক অত্যন্ত ইতিবাচক। সব পক্ষ একটা সাধারণ জায়গায় এসেছে, দ্রুত সমস্যার সমাধান হবে। আপাতত সব সমস্যা মিটে গিয়েছে। তৃণমূলেরই থাকছেন শুভেন্দু অধিকারী। তবে সেই ভ্রম কাটে ঠিক তার একদিন পরেই।

শুভেন্দু বলেন, যৌথ প্রেস কনফারেন্সের শর্ত মানেননি দল। তাই আর একসঙ্গে পথ চলা সম্ভব নয়। আর সেদিনের পর থেকেই দল বদলের দিন গুণছে রাজ্যবাসী। আর আজই সেই সমস্ত প্রশ্নের চিরসমাপ্তি। শনিবারেই দলপ্রবেশ শুভেন্দুর। এদিন অরাজনৈতিক সভা থেকে তৃণমূলকে বিরাট তোপ দাগেন শুভেন্দু অধিকারী। বলেন, নন্দীগ্রাম আন্দোলন কোনও ব্যক্তির নয়, ওই আন্দোলন ছিল জনতার। তিনি এদিনও বলেন, কোনও পদের লোভ নেই তাঁর। ব্যক্তি আক্রমণ নিয়েও মুখ খোলেন শুভেন্দু। বলেন, যাঁরা তাঁকে আক্রমণ করছে তাঁদের অবস্থা অনিল বসুদের মতো হবে। এদিন হলদিয়া উন্নয়ন পর্ষদ নিয়েও ক্ষোভ উগড়ে দেন তিনি।

Show More

Related Articles

Leave a Reply

Back to top button
%d bloggers like this: