Big Story

অসুস্থ বিশ্বভারতীর উপাচার্য, জেলা স্বাস্থ্য দফতরের টিকিৎসায় নাকচ

কলকাতা হাই-কোর্টে মামলা রায় করে বিশ্বভারতী কর্তৃপক্ষ

শর্মিষ্ঠা বিশ্বাস: ২৭ অগাস্ট থেকে শুরু হয়ে বিশ্বভারতী বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য বিদ্যুৎ চক্রবর্তীর বাড়ির বাইরে গত ৭ দিন ধরে চলছে প্রতিবাদ। তিনজন ছাত্রছাত্রীকে শোকস ছাড়া বিনা কারণে বহিষ্কারের কারণে চলে প্রতিবাদ। এরমাঝেই গতকাল সন্ধ্যেবেলা অসুস্থ হয়ে পড়েন উপাচার্য। বিশ্বভারতীর পিয়ারসন মেমোরিয়াল হাসপাতাল থেকে মেডিকেল টিম পাঠানো হয় উপাচার্যের বাড়ি। তবে মেডিকেল টিম ফিরে যেতে বাধ্য হয়, কারণ বিক্ষোভরত ছাত্রছাত্রীদের দাবি ছিল তাদের মধ্যে কয়েকজন যাবে উপাচার্য কতটা অসুস্থ আছেন তা দেখতে। ফলে নিরাপত্তারক্ষীরা মেডিকেল টিম-সহ কারোকেই বাড়ির ভেতরে ঢুকতে অনুমতি দেয়নি।

পরে বিক্ষোভরত ছাত্রছাত্রীরাই বোলপুরের এসডিপিও অভিষেক রায়ের নেতৃত্বে জেলা স্বাস্থ্য দফতরের মেডিকেল টিমকে চিকিৎসার জন্য পাঠালে, বিদ্যুৎ চক্রবর্তীর মেয়ে জানান উপাচার্য বিশ্রাম নিচ্ছেন এবং তাঁর এখন কোনো চিকিৎসার প্রয়োজন নেই। ওই মেডিকেল টিমে দুজন চিকিৎসক, একজন টেকনিশিয়ান ও বেশ কিছু নার্সকে পাঠানো হয়। অনেকক্ষণ অপেক্ষার পর উপাচার্য জেলা স্বাস্থ্য দফতরের চিকিৎসা নিতে নাকচ করল ফিরে যেতে হয় মেডিকেল টিমকে। তবে পরে আবারও উপাচার্যের চিকিৎসার প্রয়োজন হলে সাহায্য করা হবে বলে জানায় প্রশাসন।

এরপর শুক্রবার, বিশ্বভারতীর মূল সেন্ট্রাল অফিসের সামনে বিক্ষোভ দেখায় ছাত্রছাত্রীরা। বিক্ষোভ ভঙ্গ করতে গেলে রীতিমতো হাতাহাতি লেগে যায় বিশ্বভারতীর নিরাপত্তাকর্মী ও ছাত্রছাত্রীদের মধ্যে। আগে বিশ্বভারতীর নিরাপত্তারক্ষীরা ছাত্রদের গায়ে হাত তোলেন বলে অভিযোগ ছাত্রছাত্রীদের। এদিকে ছাত্রছাত্রীরা বিশ্বভারতীর উপাচার্যের আপ্ত সহায়কের গাড়ি দাঁড় করিয়ে তাঁর সঙ্গে কথা বলতে চাইলে তখন তিনি ছাত্রছাত্রীদের গাড়ির ধাক্কা দিতে উদ্যত হন বলেও অভিযোগ আন্দোলনরত ছাত্রছাত্রীদের। এতকিছুর পরেও কেন মুখে কুলুপ এঁটে বসে আছেন বিশ্বভারতীর উপাচার্য বিদ্যুৎ চক্রবর্তী? এমনটাই প্রশ্ন তুলেছেন শিক্ষামহলের অনেকে।

Show More

Related Articles

Leave a Reply

Back to top button
%d bloggers like this: