Sports Opinion

ফিরে দেখা ময়দান

পর্ব -১

সৌমেন মুখার্জী, প্রাক্তন ফুটবলারঃ বাংলার ফুটবলকে উন্নতি করতে গেলে প্রথমেই যেটা করতে হবে সেটা হলো সত্তর দশকের পরিকাঠামোয় চলে যেতে হবে। যেরকম ভাবে আমরা খেলোয়াড় হয়েছি। একটি বাচ্ছা সাত আট বছর বয়সে পাড়ার মাঠে রোদ বৃষ্টি মাথায় নিয়ে কাদা মেখে চুটিয়ে খেলুক। বয়স যখন দশ সেই সময় কলকাতার কোন ফুটবল কোচিং ক্যাম্পের সাথে যুক্ত হয়ে অনুশীলন করুক। কলকাতা বলার অর্থ হলো ছোটবেলা থেকে কলকাতা মাঠের খেলার অভিজ্ঞতা হওয়া শুরু হয়ে গেলো। অনুশীলনের শেষে ছোলা ও বাদাম ভেজানো সাথে একটু বাতাসা খেলেই হবে। চিকেন স্টু, মাখন পাউরুটি, ডিমের পোচ, মিনারেল ওয়াটার ইত্যাদি ইত্যাদি এগুলো ভবিষ্যতে ভালো খেলোয়াড় হলে তখনকারের জন্য তোলা থাক।

কথায় আছে কষ্ট করলে কেষ্ট মেলে। বয়স যখন পনেরো কিংবা ষোল দেখবেন ঐ ছেলেটি কলকাতা মাঠে 4th ডিভিশন বা 3rd ডিভিশনে কোন দলে খেলার সুযোগ পেয়ে গেছে। এই হলো ছেলেটির যাত্রা শুরু। এইভাবে চললে আগামী দিনে বাঙ্গালী ফুটবল খেলোয়াড়ের অভাব ঘুচবে বলে আমার বিশ্বাস। এখন শুনি বয়সভিত্তিক খেলা হয় যেমন 14, 17, 19। আমার মনে হয় আগে যেরকম ছিলো ঐ জায়গায় ফিরে যেতে হবে। ছোট বড় সবাই এক সাথে খেলুক। এরকমভাবে একশো ছেলের মধ্যে আগামী দিনে কুড়িটা ভালো ফুটবল খেলোয়াড় হবেই। উদাহরণস্বরূপ বলতে পারি আমাদের সকলের প্রিয় ও আমার সমসাময়িক কৃশানু দে-র কথা। 1978 সালে প্রথম সাবজুনিয়র ফুটবলের আবিষ্কার কৃশানু।

পাশাপাশি একটা কথা বলি, যে যত ভালোই খেলুক, মোহনবাগান, ইস্টবেঙ্গল ও মহামেডানের সাথে না খেললে কেউ চিনবে না। তাই 1st ডিভিশনে গ্রুপ তুলে দিয়ে এই মুহুর্তে আগের মতো 28 টি দলের খেলা হওয়া উচিত বলে আমি মনে করি। তাই বলছি সাবজুনিয়র ফুটবলের উপর প্রচুর জোর দিতে হবে। যেরকমভাবে আমরা চারাগাছে জল, সার দিয়ে বড় করি। সাবজুনিয়র ফুটবল ঠিক হলে তবেই আগামী দিনে জাতীয় ফুটবল দলে বাঙ্গালী খেলোয়াড় দেখতে পাবো। এতক্ষণ যা লিখলাম সেটা একটা দিক আরেকটা দিক অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ সেটা হলো, কোচ এবং কর্মকর্তা উভয়ের মানসিকতা নিরেপেক্ষ হতে হবে। ভালো খেলোয়াড়কে ভালো বলতে হবে। এরকমভাবে বেশি না মাত্র পাঁচ বছর চললে আগামীদিনে জাতীয় ফুটবলে বহু বঙ্গ সন্তানকে দেখতে পাবো বলে আমার দৃঢ় বিশ্বাস। যাইহোক সবাই ভালো থাকবেন সুস্থ থাকবেন সাবধানে থাকবেন।

চলবে….

Show More

Related Articles

Leave a Reply

Back to top button
%d bloggers like this: