West Bengal

রাজ্য সরকারি কর্মীদের বকেয়া ডিএ নিয়ে এবার স্যাটের বড় নির্দেশ রাজ্য সরকারকে

আদালতের দ্বারস্থ হতে চায় রাজ্য সরকার, রায় হাতে পেলেই নেবে সিদ্ধান্ত

দেবশ্রী কয়াল : পূজার আগে একদিকে যখন রাজ্য সরকারি কর্মীদের জন্য সুখবর, তেমন অপরদিকে খানিক চিন্তার মুখে পড়ল রাজ্য সরকার। একেই করোনার জেরে প্রবল আর্থিক সঙ্কটের সম্মুখীন হতে হয়েছে রাজ্য সরকারকে। এবারে স্যাট এর তরফ থেকে নির্দেশ দেওয়া হল রাজ্য সরকারকে। নির্দেশ দিয়ে বলা হল এবারে রাজ্য সরকারি কর্মীদের বকেয়া ডিএ বা মহার্ঘভাতা মিটিয়ে দিতে হবে সরকারকে। বুধবার স্যাটের তরফ থেকে জানানো হয়েছে আগামী ১৬ ডিসেম্বরের মধ্যে এই বকেয়া মহার্ঘ ভাতা মিটিয়ে দিতে হবে।

তবে ওয়াকিবহাল মহলের মতে, স্যাটের এই নির্দেশের বিরুদ্ধে রাজ্য সরকার হাইকোর্ট কিংবা সুপ্রিম কোর্টে যেতেই পারে। কিন্তু স্যাটে একাধিকবার আবেদনের পরেও রাজ্য সরকারের যে ভাবে মুখ পুড়ল তা অনভিপ্রেত। তবে এমন ঘটনা প্রথমবার নয়, পূর্বেও রাজ্য সরকারি কর্মচারীদের বকেয়া ডিএ নিয়ে গত ২ বছর ধরেই বারংবার স্যাটে মুখ পুড়েছে রাজ্য সরকারের। এর আগে রাজ্যের করা রিভিউ পিটিশনের আবেদনও বাতিল করে দিয়ে স্যাট স্পষ্টই জনিয়েছে, কোনওভাবেই রাজ্য কর্মীদের ডিএ আটকে রাখতে পারে না। ফলে দ্রুতই এই বকেয়া মিটিয়ে দিতে হবে। কিন্তু তারপরেও রাজ্যের তরফ থেকে ফের আবেদন করা হয়। তারপরেই এদিন ফের কর্মচারিদের স্বার্থে এই রায় দেয় স্যাট। করোনা পরিস্থিতিতে স্যাট এর এমন নির্দেশের জেরে রাজ্য সরকার খানিক মুখ থুবড়ে পড়েছে তা বোঝা যাচ্ছে।

কর্মচারি ইউনিয়নের পক্ষে সঙ্কেত চক্রবর্তী বলেন, ‘এই রায় থেকেই স্পষ্ট বোঝা যাচ্ছে কীভাবে রাজ্য কর্মীদের বকেয়া আটকে রেখেছে। যতবার রাজ্য সরকার স্যাটে গিয়েছে, ততবারই হেরে গিয়েছে। কিন্তু মনে হচ্ছে নির্লজ্জ রাজ্য সরকার এরপরেও বকেয়া ডিএ দেবে না। হয়তো এই রায়ের বিরুদ্ধে হাইকোর্ট কিংবা সুপ্রিম কোর্টে যাবে। কিন্তু আমাদের যে লড়াই রয়েছে তা চলতেই থাকবে।

অবশ্য এখনও এই বিষয় সংক্রান্ত কোনো সরকারি মন্তব্য করা হয়নি রাজ্য সরকারের পক্ষ থেকে তবে বলা হয়েছে, রায়ের কপি হাতে পেয়ে সবদিক খতিয়ে দেখে তারপরেই সিদ্ধান্ত নেওয়া হবে। রাজ্য সরকার আগেই জানিয়েছিল, মহার্ঘ ভাতা রাজ্যের ইচ্ছের উপর নির্ভরশীল। অর্থাৎ বোঝাই যাচ্ছে রাজ্য সরকার এই রায়ের বিরুদ্ধে উচ্চ আদালতে যেতে পারে। তবে এখনও সবটা নিশ্চিত ভাবে বলা যাচ্ছে না।

Show More

Related Articles

Leave a Reply

Back to top button
%d bloggers like this: