Travel

পর্যটকদের আকর্ষণের কেন্দ্রবিন্দু হতে পারে ‘থিম্পু’

এক ঘেয়েমি কাটিয়ে ফিরিয়ে আনুন সতেজতা, ঘুরে আসুন থিম্পু থেকে

পল্লবী কুন্ডু : বহুদিন ধরে ঘরবন্দি। এক ঘেয়েমি কাটানোর জন্য মুখিয়ে রয়েছেন ভ্রমণপিয়াসীরা। কিন্তু সব কিছুর সামনেই একটাই বাঁধা। আর তা হলো অতিমারী করোনা। কিন্তু সময়ের সাথে সাথে পরিস্থিতিও এখন স্বাভাবিকের পথে। তাই খানিক ঝুঁকি নিয়ে এবার কিন্তু বেরিয়ে পড়া যেতেই পারে। গন্তব্য করুন থিম্পু(Thimphu)। যা ভুটানের হৃদয় নামে পরিচিত। ভুটানের প্রাচীন রাজধানী পুনাখা দ্বারা প্রতিস্থাপিত। থিম্পুকে ১৯৬১ সালে হিমালয় রাজ্যের রাজধানী শহর ঘোষণা করা হয়।

এই স্থানটি মূলত ‘থিম্বু’ নামে উচ্চারিত হয়। শহরটি ইন্টারনেট ক্যাফে, রেস্টুরেন্ট এবং পানশালা সহ ভুটানের সবচেয়ে আধুনিক স্থান হিসেবে পরিচিত। থিম্পুর নাইটলাইফও এর অন্যতম আকর্ষণ। যাইহোক, থিম্পু এখনও ভুটানি ঐতিহ্য ধরে রাখে যেহেতু এটি বুদ্ধ ডরডেনমা মত বিভিন্ন স্থাপত্য কাঠামো আছে, যা আপনার থিম্পুতে প্রবেশ চিহ্নিত করে। থিম্পুর মতিথাং জেলা ভুটানের জাতীয় প্রাণী, তাকিনের জাতীয় প্রাণী সংরক্ষণ করে। পাশাপাশি এই স্থানে টেক্সটাইল মিউজিয়াম, লাইব্রেরী, আর্ট স্কুল এবং উইকএন্ড মার্কেটের মত প্রতিষ্ঠানও বিরাজমান।

থিম্পু শুধুমাত্র একটি ঐতিহ্যবাহী কেন্দ্র নয়, এটি একটি সাংস্কৃতিক স্থানও বটে। পারো আন্তর্জাতিক বিমানবন্দর থেকে মাত্র এক ঘণ্টার পথ। শহরটি ঐতিহ্য এবং আধুনিকতার মিশ্রণ। এটি একমাত্র রাজধানী হিসেবেও পরিচিত যেখানে কোন ট্রাফিক লাইট ইনস্টল করা নেই। পাশাপাশি যদি আবহাওয়ার কথা বলা হয় তবে উষ্ণতা ১৪° সেলসিয়াস। ভ্রমণের জন্য সঠিক সময় সেপ্টেম্বর – নভেম্বর, আবার মার্চ।

তাই এবার জীবনের এক ঘেয়েমি দূর করে একটু বেরিয়ে আসুন। দেখবেন শরীর, মন আবার নতুন করে সতেজতার রসদ খুঁজে পাবে। ১-২ দিনের জন্য ঘুরে আসুন থিম্পু থেকে।

Show More

Related Articles

Leave a Reply

Back to top button
%d bloggers like this: