West Bengal

একই ফ্রেমে দেখা গেলোনা মোদী-মমতা কে, বিশ্বভারতীর শতবর্ষ উপলক্ষে সোশ্যাল মিডিয়ার পোস্টেই সীমিত থাকলেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়

বিশ্বভারতীর শতবর্ষের অনুষ্ঠানে রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কে আমন্ত্রণই জানানো হয়নি, বৃহস্পতিবার সাংবাদিক বৈঠক করে এমনই অভিযোগ করলেন তৃণমূল নেতা এবং রাজ্যের মন্ত্রী ব্রাত্য বসু

পল্লবী কুন্ডু : একুশে নির্বাচনের আগে যখন গোটা বাংলা জুড়ে শাসক বিরোধী সংঘাত তুমুল পর্যায়, তখন আবারো কি এক ফ্রেমে ধরা দেবে মোদী এবং মমতা ? বিশ্বভারতী(Visva-Bharati University)র শতবর্ষের অনুষ্ঠানকে কেন্দ্র করে উঠছিলো এমন প্রশ্নই। তবে আজ বদলে যায় সেই ছবি। বিশ্বভারতীর শতবর্ষের অনুষ্ঠানে রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়(Mamata Banerjee)কে আমন্ত্রণই জানানো হয়নি, বৃহস্পতিবার সাংবাদিক বৈঠক করে এমনই অভিযোগ করলেন তৃণমূল নেতা এবং রাজ্যের মন্ত্রী ব্রাত্য বসু(Bratya Basu)।

এদিন বিশ্বভারতীর শতবর্ষ অনুষ্ঠানে ভার্চুয়ালি যোগ দেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী(Narendra Modi), সাথে উপস্থিত ছিলেন রাজ্যপাল জগদীপ ধনখড়(Jagdeep Dhankhar) ও কেন্দ্রীয় শিক্ষামন্ত্রী রমেশ পোখরিয়াল(Ramesh Pokhriyal)। ব্রাত্যর অভিযোগ, সেখানে আমন্ত্রণই পাননি মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। অবশ্য সংশ্লিষ্ট বিষয়কে ধারে রেখে মুখ্যমন্ত্রী আলাদা করে বিশ্বভারতীর শতবর্ষ উপলক্ষকে কেন্দ্র করে রবীন্দ্রনাথ ঠাকুরের গানকে সাথে নিয়ে টুইট করেছেন। টুইটে লিখেছেন, ”বিশ্বসাথে যোগে যেথায় বিহারো, সেইখানে যোগ তোমার সাথে আমারও”। পাশাপাশি মমতা লিখেছেন, ‘১০০ বছর হল বিশ্বভারতীর। আদর্শ মানুষ তৈরির পথে রবীন্দ্রনাথ ঠাকুরের সবচেয়ে বড় এক গবেষণার ফসল এই শিক্ষার মন্দির। আমাদের উচিত এই মহান দার্শনিকের চিন্তা ও দর্শনকে সংরক্ষণ করা’।

অন্যদিকে, বিশ্বভারতীর প্যাডে লেখা ৪ ডিসেম্বরের একটি চিঠি ইতিমধ্যেই প্রকাশ্যে এসেছে। আর তা নিয়েই মূলত শুরু জলঘোলা। মুখ্যমন্ত্রীকে উদ্দেশ্য করে লেখা এই চিঠি নিয়ে বৃহস্পতিবার সাংবাদিক বৈঠকে ব্রাত্যকে প্রশ্ন করা হলে তিনি পাল্টা প্রশ্ন করেন, ”সেই চিঠির কোনও প্রাপ্তি স্বীকার করা হয়েছিল কি? ওই চিঠির প্রাপ্তি স্বীকারের নথি আছে কি? উপাচার্য নিজেই সই করে নিজের কাছে ওই চিঠি রেখে দিয়েছিলেন নাকি?” পাশাপাশি, অনুষ্ঠানের আগের রাতে মুখ্যমন্ত্রীকে আলাদা করে অনুষ্ঠানের কথা জানানো হয়েছিল বলেও কিছু সাংবাদিক দাবি করেন। তার উত্তরে ব্রাত্য বলেন, ”মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় একটি রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী। তাঁকে আমন্ত্রণ জানানোর এটা কোনও নিয়ম? এ ভাবে কাউকে আমন্ত্রণ জানানো হয়?”

শান্তিনিকেতনে গিয়ে বোলপুরে রোড শো করেছিলেন কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহ। সেই রোড শোয়েরই পালটা হিসেবে বোলপুরে একই জায়গায় রোড শো করবেন তৃণমূল নেত্রী তথা রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। ২৮ ডিসেম্বর বোলপুরে পৌঁছবেন মুখ্যমন্ত্রী। ২৯ ডিসেম্বর রোড শো করবেন তিনি। তবে আজ বিশ্বভারতীর শতবর্ষের অনুষ্ঠানে দেশের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী থাকলেও, ছিলেন না মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়।

Show More

Related Articles

Leave a Reply

Back to top button
%d bloggers like this: